চার দিন ধরে কোথায় মিরপুরের সেই তিন বান্ধবী?

ঢাকা, বুধবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ২৪ ১৪২৮,   ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

চার দিন ধরে কোথায় মিরপুরের সেই তিন বান্ধবী?

নিজস্ব প্রতিবেদক   ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৩৫ ৩ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৫:৩৬ ৩ অক্টোবর ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রাজধানীর মিরপুরের পল্লবী থেকে তিন কলেজছাত্রী নিখোঁজের ঘটনায় চারজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেফতার আসামিদের সাত দিন করে রিমান্ড আবেদন করবে পুলিশ।

পল্লবী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে নিখোঁজ এক শিক্ষার্থীর বড় বোন মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন- মো. তরিকুল্লাহ (১৯), মো. রকিবুল্লাহ (২০), জিনিয়া ওরফে টিকটক জিনিয়া রোজ (১৮) ও শরফুদ্দিন আহম্মেদ অয়ন (১৮)। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পরিবারের সদস্যরা তাদের খুঁজে পাচ্ছেন না। পরিবারের সদস্যদের একটাই প্রশ্ন- চার দিন ধরে কোথায় আছে তারা?

পল্লবী থানা সূত্রে জানা যায়, এই মামলার গ্রেফতার চার আসামিকে আজ রোববার দুপুরে আদালতে পাঠানো হবে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রত্যেকের বিরুদ্ধে সাত দিন করে রিমান্ড আবেদন করবে পুলিশ।

এর আগে, শনিবার রাত ৯টায় নিখোঁজ দিলখুশ জান্নাত নিসার বড় বোন অ্যাডভোকেট কাজী রওশন দিল আফরোজ বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

পরিবার বলছে, তারা উচ্চশিক্ষার জন্য একটি পাচারকারীর খপ্পরে পড়ে নিখোঁজ হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ এখন পর্যন্ত তিনজনকে আটক করেছে।

নিশার পরিবার জানায়, বাসা থেকে নিশা ৬ লাখ টাকা ও স্কুল সার্টিফিকেট নিয়ে বের হয়ে আর ফেরেনি। স্নেহার মায়ের দাবি, বাসা থেকে ১৮ হাজার টাকা স্বর্ণালংকার নিয়ে নিখোঁজ হয়েছে তার মেয়ে। নিশার মাধ্যমেই পরিচয় তরিকুলের সঙ্গে।

স্নেহার মা বলেন, আমার মেয়ে আমায় বলেছে আম্মু সাড়ে ১২টার দিকে এসে যাব। কলেজ থেকে এসে কোচিংয়ে যাব। তারপর আমি দুইটার দিকে কোচিংয়ে গিয়ে শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদ করি, তারা আমায় বলে সে আসিনি।

নিখোঁজ দিলখুশের বোন আইনজীবী কাজী রওশন দিল আফরোজ  দাবি করেন, প্রতিবেশী তরিকুল প্রায়ই দিলখুশের সঙ্গে কথা বলতেন। তিনি নিজেকে অনেক বড় হ্যাকার হিসেবে পরিচয় দেন। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে লোক পাঠানোর কথা বলতেন তার বোন দিলখুশকে। এতে দিলখুশ তার কথার ফাঁদে পড়েন বলে ধারনা।

অভিযুক্ত তরিকুল ও তার বন্ধু রফিকুলসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। আত্মীয়-স্বজন জানান, তরিকুল নারী পাচারকারী চক্রের সদস্য।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ

English HighlightsREAD MORE »