দুই ব্যস্ত সড়কে বিক্ষোভ, যানজটে নাকাল রাজধানীবাসী

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৩ আগস্ট ২০২১,   শ্রাবণ ১৯ ১৪২৮,   ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

দুই ব্যস্ত সড়কে বিক্ষোভ, যানজটে নাকাল রাজধানীবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:২৫ ১ এপ্রিল ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

দেশে করোনা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় দুই সপ্তাহের জন্য বাসে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচলের নির্দেশনা ও রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের মাধ্যমে মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে মোটরসাইকেলসহ অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের চালকরা। অন্যদিকে খিলক্ষেতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকেও বাসে উঠতে না পেরে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে বিক্ষুব্ধ যাত্রীরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা থেকে রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের চালকরা প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তায় জড়ো হতে শুরু করেন। বেলা ১২টা পর্যন্ত কয়েকশ' মোটরসাইকেল প্রেসক্লাবের সামনে জমায়েত হয়েছে। অন্যদিকে খিলক্ষেতে রাস্তা অবরোধ করায় পুরো বিমানবন্দর সড়কে যানবাহনের দীর্ঘ জটলা তৈরি হয়েছে। যদিও পুলিশের হস্তক্ষেপে অবরোধকারীরা সরে গেলেও সড়কে যানবাহনের তীব্র চাপ সৃষ্টি হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, রাজধানীর দুই ব্যস্ততম সড়ক অবরোধ করায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে বিপাকে পড়েছেন অফিসগামী সাধারণ মানুষেরা। এছাড়াও যানজটে আটকে পড়ে রয়েছে বেশকিছু অ্যাম্বুলেন্স।

খিলক্ষেত থানার ওসি মুন্সী ছাব্বীর আহমদ জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে বাসগুলো অর্ধেক যাত্রীর বেশি তুলছে না। এর ফলে অফিসগামী মানুষরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকেও বাসে উঠতে পারছেন না। এতে তারা ক্ষুব্ধ হয়ে খিলক্ষেত ওভার ব্রিজের নিচে রাস্তা বন্ধ করে অবস্থান নেন।

অন্যদিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভে অংশ নেয়া ইমরান নামের একজন বলেন, আমাদের পেটে লাথি মারা হয়েছে। আমাদেরকে মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহনের সুযোগ দিতে হবে। এই দাবি আদায় করেই আমরা রাস্তা ছাড়ব।

কিভাবে সবাই একত্রিত হলেন তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে আমরা সবাই একত্রিত হয়েছি।

এদিকে, কারওয়ান বাজার, বাংলামোটর, শাহবাগ ও ধানমন্ডি এলাকায়ও সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের চালকরা। এতে এসব এলাকায় যান চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ