পরিষ্কার হচ্ছে রূপনগর খাল, নৌকা করে যাওয়া যাবে তুরাগে

ঢাকা, শুক্রবার   ২২ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৮ ১৪২৭,   ০৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

পরিষ্কার হচ্ছে রূপনগর খাল, নৌকা করে যাওয়া যাবে তুরাগে

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:২৬ ১৩ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৫:০১ ১৩ জানুয়ারি ২০২১

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

রাজধানীর রূপনগর খাল থেকে নৌকা করে তুরাগ নদীতে যাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। খালের সবটুকু অংশ উদ্ধার-পরিষ্কার করে এবং আশেপাশের অবৈধ দখল উচ্ছেদ করে এই নৌকাভ্রমণ হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় ডিএনসিসির ৬, ৭ এবং ৮ নম্বর ওয়ার্ডে বিস্তৃত রূপনগর খালটি পরিদর্শনে আসেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম। পরিদর্শনকালে খাল পরিষ্কার কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন মেয়র।

আতিকুল ইসলাম বলেন, এই খালে আগে প্রচুর আবর্জনা ছিল। আমরা সেগুলো পরিষ্কার করেছি। প্রতিদিন ৫০ থেকে ৬০ জন কর্মী কাজ করে ১৫ দিনে খালটি পরিষ্কার করে। এটি প্রায় দুই কিলোমিটার লম্বা এবং সর্বোচ্চ ৬০ ফুট চওড়া। এখন কাজ হচ্ছে খাল এবং এর আশেপাশের অংশ সুন্দর করা। এই খালে নৌকায় করে আমি তুরাগ নদীতে যেতে চাই।

খাল পুরোপুরি পরিষ্কার হলে এলাকাবাসীর বিভিন্ন সুবিধার বিষয় তুলে ধরে আতিক বলেন, এই এলাকায় বেশ কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যখন শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের সময় হয় তখন মেইন রোডের ওপর চাপ পড়ে। এই খালের পাশে যে অংশ আছে সেটিকে সুন্দর করতে পারলে এখান দিয়ে সবাই যাতায়াত করতে পারবে। এখান দিয়ে কমার্স কলেজ পর্যন্ত যাওয়া সম্ভব। এজন্য আমরা এখানে ওয়াকওয়ে এবং সাইকেল লেন করবো। বনায়নের জন্য এরই মধ্যে গাছ লাগানো হয়েছে। শুধু সড়ক করলে হবে না। এই খালে সুয়ারেজ লাইনের বর্জ্য এসে পড়ে। তাই খালের পানিও পরিষ্কার করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, ফুটপাত এবং খালের পাড়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট দিকনির্দেশনা রয়েছে। রূপনগর খালের ওপর যেসব অবৈধ স্থাপনা রয়েছে সেগুলো শিগগিরই গুঁড়িয়ে দেয়া হবে। দখলদাররা যতই প্রভাবশালী হোক না কেন তাদের উচ্ছেদে ডিএনসিসি পিছু হটবে না।

এসময় ডিএনসিসির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডর এম সাইদুর রহমান, সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং ডিএনসিসির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/এইচএন