চাকরির নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ২৮

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৭ ১৪২৭,   ০৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

চাকরির নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ২৮

নিজস্ব প্রতিবেদক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:১০ ৩০ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৪:২৩ ৩০ নভেম্বর ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ঢাকার আশুলিয়া-সাভার এবং রাজধানীর মিরপুর ও ভাটারা এলাকা থেকে ভুয়া চাকুরিদাতা প্রতিষ্ঠানের ২৮ জন প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

রোববার বিভিন্ন এলাকায় পৃথক অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব-৪। সোমবার র‌্যাব-৪ এর এএসপি (মিডিয়া) জিয়াউর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, রাজধানীর শাহ আলী থানার মুক্ত বাংলা শপিং কমপ্লেক্সে ‘প্রসেস সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড’ নামক প্রতিষ্ঠান থেকে ৬৫ টি জীবন বৃত্তান্ত ফর্ম, ৩টি সিল, ১টি ব্যানার, ৪টি ডায়েরি এবং ৪ জন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা ছয় প্রতারককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরা হলো- মো. মোসলে উদ্দিন (৪২), মো. ফজলুল ইসলাম (৪০), মো. আব্দুল মান্নান (৫২), মো. রেজওয়ান মাহমুদ রনি (২১), রাজু চন্দ্র শর্মা(২৪) ও মো. সাখাওয়াত হোসেন সজিব (২২)।

অপর এক অভিযানে রাজধানীর কাফরুল থানার সেনপাড়া পর্বতা এলাকায় ‘অইস্টার ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড’ নামক প্রতিষ্ঠান থেকে ২টি ভর্তির আবেদন বই, ২টি অঙ্গীকারনামা বই, ৪টি স্ট্যাম্প সিল, ১টি ব্যানার, ৭টি আইডি কার্ড, ৩টি টাকা জমার রশিদ বই, ১টি টাকা খতিয়ান বই, ৮ হাজার ৩৯৬ টাকা ও ১৬ জন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা পাঁচ প্রতারককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এরা হলো- আল-রাব্বি হাসান ওরফে পরিতোষ আওয়াল (৩৫), নুর কালাম (৩১), হাসিবুর রহমান (২১), ফয়েজ (২৮), মো. মামুন মিয়া (২১)।

রাজধানীর প্রগতি সরণির নর্দা এলাকায় ‘এমিকন সিকিউরিটি সার্ভিসেস লিমিটেড’ নামক প্রতিষ্ঠান থেকে ২২টি চাকরির বিজ্ঞাপন, ১৮টি ব্যাংকে টাকা জমার রশিদ, ৭টি রেজিস্টার বই, ৬৫টি জীবন বৃত্তান্ত ফর্ম, ৫০টি লিফলেট, ৭১টি বিজ্ঞাপন, ৮টি সিল ও ৯ জন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা দুই প্রতারককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরা হলো- গোলাম মোস্তফা (৫৫), তোফাজ্জল হোসেন (৫২)।

এছাড়া আশুলিয়া থানার টোংগাবাড়ি এলাকার ‘জিম সিকিউরিটি লিমিটেড’ নামক প্রতিষ্ঠান থেকে ৪০টি নিয়োগ বিজ্ঞাপন ফর্ম, ৩টি ভর্তি ফর্ম, ৭টি হলফনামা, ১০টি আইডি কার্ড, ৭টি যোগদানপত্র ও ১৫ জন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা ১৪ প্রতারককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এরা হলো- মো. সোহেল রানা (৩২), মো. ইমরান (১৮), মো. রাব্বি মাহমুদ (১৮), ইব্রাহিম শেখ (২৪), চয়ন বাড়ই (১৯), মো. ফাহাদ (১৮), মো. হাবিব (১৮), মো. রাসেল (১৮), মো. বাদল আহমেদ (১৮), মো. তাওসিফ (২০), মো. ইমরুল কায়েস (২৪), মোছা. মোস্তাফিম মজরিনা ওরফে হ্যাপি (২১), হালিমা আক্তার (১৮) ও জহুরা আক্তার বিথি (১৯)।

অন্যদিকে ঢাকা জেলার সাভার থানার কালমা এলাকা থেকে আয়কর অফিসে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে ২টি ভুয়া নিয়োগপত্র ও ৬ জন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা মো. গিয়াস সরদারকে (৬০) গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার আসামিরা দোষ স্বীকার করে জানায়, তারা রাজধানীসহ ঢাকা জেলার বিভিন্ন এলাকায় অফিস ভাড়া করে বিভিন্ন নামে-বেনামে ভূঁইফোড় প্রতিষ্ঠান খুলে। এসব প্রতিষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অর্ধশিক্ষিত বেকার ও আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল যুবক-যুবতীদের আকর্ষণীয় ও উচ্চ বেতনের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করছিল। এর মাধ্যমে চক্রটি ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

গ্রেফতার আসামিদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতারকদের গ্রেফতারে নজরদারি অব্যাহত রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/ইএ/জেডআর