গাড়ি-বাড়ির স্বপ্নে বিভোর ‘ভদ্র’ চটপটিওয়ালার মাদক ব্যবসা

ঢাকা, শুক্রবার   ২৭ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৭,   ১০ রবিউস সানি ১৪৪২

গাড়ি-বাড়ির স্বপ্নে বিভোর ‘ভদ্র’ চটপটিওয়ালার মাদক ব্যবসা

নিজস্ব প্রতিবেদক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৫১ ২৬ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ২০:০৭ ২৬ অক্টোবর ২০২০

জুতাসহ আটক আল আমিন।

জুতাসহ আটক আল আমিন।

লোভ নাকি পাপের দিকে নিয়ে যায়, আর সেটি করতে শুরু করেছিলেন চটপটিওয়ালা আল আমিন। নিজের জমজমাট ব্যবসা ছেড়ে অল্প পুঁজিতে অধিক লাভ ও বড়লোক হওয়ায় আকাঙ্ক্ষা জাগে তার। প্রচুর টাকা আয় করে বাড়ি, গাড়ি করার স্বপ্নে বিভোর হন ‘বুদ্ধিমান ও ভদ্রবেশী’ আল আমিন। তবে সুকৌশলে মাদক ব্যবসা করতে গিয়েও অবশেষে ধরা পড়েছেন তিনি। 

রোববার রাজধানীর পল্লবী থানার অরিজিনাল ১০ নম্বর এলাকা থেকে এ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, আটক আল আমিনের অনেক বুদ্ধি। নতুন স্যান্ডেলের ভেতরে এক হাজার ২৫০ ইয়াবা ঢুকিয়ে জুতার ব্যাগে ভরে সে। আল আমিনের মনে অনেক সাধ, ইয়াবার চালান ঠিকমতো পৌঁছাতে পারলেই স্বপ্নপূরণ আটকায় কে! কিন্তু কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছার আগেই মাদক চোরাচালান সফলে দৃঢ় প্রত্যয়ী, চোখে সাফল্যের হাতছানি ধারণকারী আল আমিনকে আটক করা হয়। এতে ভেঙে যায় আল আমিনের বাড়ি-গাড়ির স্বপ্ন। আর স্বপ্নটি ভেঙে দেন পল্লবী থানার এসআই মো. রহিম। 

পুলিশ ঘটনার বর্ণনা দিয়ে জানায়, আল আমিনের আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় জুতাসহ তাকে হাতেনাতে ধরে পুলিশ। আল আমিন শুরু চোটপাট (প্রতিবাদের সুর) করেছিল। আল আমিনের ডায়ালগ ‘স্যান্ডেল নিয়েও কি হাঁটতে পারবো না?’ কারণ তখনো স্যান্ডেলের ভেতরে কী আছে তা জানা যায়নি। 

স্যান্ডেল জোড়া দেখতে চাইলে আল আমিন চাপাচাপি শুরু করলো। আল আমিনের প্রশ্ন ‘স্যান্ডেল দেখার কী আছে’? নাছোড়বান্দা এসআই রহিম। স্যান্ডেলের বকলেছ (পায়ের নিচের অংশ) খুলতেই বেরিয়ে এলো এক হাজার ২৫০ ইয়াবা। তাৎক্ষণিক তাকে আটক করা হয়। পরে আল আমিনকে আদালতে পাঠানো হয়।

পল্লবী থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ জানান, আটক আল আমিনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাতদিনের রিমান্ড আবেদনও করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ