ভিক্টোরিয়া পার্ক সংলগ্ন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ডিএসসিসির

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৬ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১২ ১৪২৭,   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২

ভিক্টোরিয়া পার্ক সংলগ্ন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ডিএসসিসির

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৫৭ ২২ অক্টোবর ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রাজধানীর ভিক্টোরিয়া পার্ক সংলগ্ন ওয়াসা পানির পাম্পের চারপাশ থেকে সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি)।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের সম্পত্তি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মুনিরুজ্জামান ওয়াসা পানির পাম্পের চারপাশ গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় ওয়াসার পানির পাম্পের চারপাশের অবৈধ ৫টি দোকান উচ্ছেদ করা হয়। 

কবি নজরুল কলেজ সংলগ্ন সিটি কর্পোরেশন মার্কেটের সিরির নিচে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা একটি দোকানকে সিল গালা করা হয়েছে। এছাড়া অবৈধভাবে ফুটপাত দখল করায় আরো দুইটি দোকানকে পাঁচ হাজার টাকা 
জরিমানা করা হয়েছে।

কবি নজরুল কলেজ সংলগ্ন সিটি কর্পোরেশন মার্কেটের সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ ক্ষোভ প্রকাশ করে ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, আমাদের আগে বলা হয়নি তাহলে দোকানের মালামাল সরিয়ে রাখতাম।

ডিএসসিসির সম্পত্তি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মুনিরুজ্জামান ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, গতকাল ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস ৪২নং ওয়ার্ড পরিদর্শন করেছেন।

ভিক্টোরিয়া পার্ক সংলগ্ন ওয়াসার পানির পাম্পের চারপাশ থেকে সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। একটি দোকানকে সিল গালা করা হয়েছে। ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করায় আরো দুইটি দোকানকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আমাদের এই অভিযান চলমান থাকবে।

মেসার্স কিউ, জি, সামদানী অ্যান্ড কোম্পানি ভিক্টোরিয়া পেট্রোল পাম্প রাস্তা বন্ধ করে তেলের ট্যাঙ্কি গড়ে তোলার অভিযোগ করে পেট্রোল পাম্পের আশেপাশের লোকজন। পরে পেট্রোল পাম্পের মালিকে খোঁজ করে সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মুনিরুজ্জামান। মালিকের ভাই কাজী ফিরোজ সমাদানী (পাবলু) জানান মালিক বিদেশে। এ সময় পাম্পের কাগজপত্র দেখতে চাইলে মালিকের কাছে আছে বলে জানায় পাবলু। পরে সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্বরত কর্মকর্তারা কাগজপত্র আনার জন্য দুই দিন সময় বেঁধে দেয়।

এ সময় সিটি কর্পোরেশনের জায়গায় গড়ে ওঠা পেট্রোল পাম্পের ফিলিং মেশিন উচ্ছেদ করা হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/এমআরকে