প্রেম করে বিয়ে, এক বছর পর স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

ঢাকা, রোববার   ২৫ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১০ ১৪২৭,   ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

প্রেম করে বিয়ে, এক বছর পর স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৫৭ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০  

জান্নাত

জান্নাত

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে প্রেম করে বিয়ের এক বছরের মাথায় জান্নাত (২০) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত স্বামী ইমন মিয়াকে (২৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার ভোরে উপজেলার তেঘরিয়া আব্দুল্লাহপুর চৌধুরীপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ ও গৃহবধূর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ১ বছর আগে প্রেম করে বিয়ে করেন ইমন ও জান্নাত। গত ২০ আগস্ট চৌধুরীপাড়া এলাকায় ভাড়া বাসায় সংসার শুরু করে এ দম্পতি। ইমন ইলেক্ট্রিশিয়ান হিসেবে কাজ করত।

বাড়ির মালিক আমির হোসেন মেম্বার বলেন, বুধবার ভোর রাত ৫টার দিকে ইমন আমাকে ডেকে বলেন আমার স্ত্রী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আমি ওদের ঘরে এসে দেখি জান্নাতের লাশ খাটের উপর একটা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখা আছে। যদিও ঘরের ভেতরে গলায় ফাঁস লাগানোর মতো কোনো ব্যবস্থা ছিলো না।

নিহতের খালা মালেকা বেগম বলেন, গ্রামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জ হলেও জান্নাত দীর্ঘদিন আমার কাছে (কেরানীগঞ্জে) ছিলো। প্রতিবেশী ইমন জান্নাতের জন্য বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এতে আমরা রাজি হইনি। কারণ ইমন এর আগে আরো একটি বিয়ে করেছে। পরে পরিবারের অমতে জান্নাতকে ফুসলিয়ে বিয়ে করে ইমন। তিনি অভিযোগ করেন, বিয়ের পর জান্নাতের কাছে আগের স্ত্রীকে তালাক দেয়ার জন্য ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা যৌতুক হিসেবে দাবি করে ইমন। এ টাকার জন্য প্রায়ই জান্নাতকে মারধর করত। ওই টাকার জন্যই জান্নাতকে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্বামী।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই কুদ্দুস জানান, ভোর রাতে ৯৯৯ থেকে কল পেয়ে তেঘরিয়া এলাকা থেকে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সুরতহাল রিপোর্ট শেষে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের দুই হাতে কামড় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ শাহজামান জানান, হত্যা মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। নিহতের স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে যেটুকু জানা গেছে তাতে ধারণা করা হচ্ছে- যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে তার স্বামী।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই