এবার রাজধানীতে ১ টাকায় মিলবে ছাত্রী নিবাস

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১২ ১৪২৭,   ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

এবার রাজধানীতে ১ টাকায় মিলবে ছাত্রী নিবাস

ধ্রুব ইকরামুল ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০১ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:৪০ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

বাসন্তী নিবাস, ছবিঃ  ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

বাসন্তী নিবাস, ছবিঃ ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

এক টাকায় আহার- কথাটি শুনলেই মনে পড়ে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের কথা। সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের আহারের ব্যবস্থা করে এ দেশের মানুষের মনে জায়গা করে নেয় সংগঠনটি। এবার ছাত্রীদের জন্য এক টাকায় রাজধানীতে আবাসিক হোটেলের সুবিধা দিচ্ছে বিদ্যানন্দ।

শিক্ষা কিংবা চাকরি সংক্রান্ত প্রয়োজনে ঢাকায় প্রতিনিয়ত আগমন ঘটে অসংখ্য নারীর। তবে নিরপদ আবাসনের প্রশ্নে বেশ চিন্তায় থাকতে হয় তাদের। সেই কথা মাথায় নিয়েই রাজধানীর পল্লবীতে ছাত্রী ও চাকরি সন্ধানী নারীদের জন্য চলতি বছরের মার্চ-এ যাত্রা শুরু করে ‘বাসন্তী নিবাস।’ সেখানে শুধুমাত্র ছাত্রীদের প্রথম রাতের জন্য গুণতে হতো ৭১ টাকা, দ্বিতীয় রাত থেকে চাকুরিজীবী ও ছাত্রী উভয়ের জন্য ২৯৯ টাকা। তবে আজ শনিবার থেকে মাত্র ১ টাকার বিনিময়ে সেখানে রাত্রিযাপন করতে পারবেন ঢাকার বাইরে থেকে আগত ছাত্রীরা। সেইসাথে দিনপ্রতি খরচ একশত টাকা কমিয়ে নির্ধারণ করা করা হয়েছে ১৯৯ টাকা।

বাসন্তী নিবাসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার ডেইলি বাংলাদেশকে জানান, সম্প্রতি কুমিল্লাগামী একটি বাসে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। অনেক ছাত্রী এবং চাকুরিজীবী নারী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ কিংবা নানান প্রয়োজনে ঢাকায় আসছেন। থাকার জায়গার অভাবে রাতেই নিজ বাড়িতে যাত্রা করেন, যা নিরাপদ নয়। সেই বিষয়টি চিন্তা করেই বিদ্যানন্দের এই নতুন ইভেন্টটি আজ থেকে শুরু হয়েছে, যেখানে মাত্র এক টাকার বিনিময়ে আবাসিক হোটেলের সুবিধা পাবেন একজন ছাত্রী।

বাসন্তী নিবাসের জাপানি নকশার ক্যাপ্সুল বেড

চলতি বছরের ৮ই মার্চ, বিশ্ব নারী দিবসে মিরপুর পল্লবীর ২ নম্বর সড়কের ১৩ নম্বর বাড়িতে যাত্রা শুরু করে বিদ্যানন্দের বাসন্তী নিবাস। নারীদের জন্য বিশেষায়িত এই সুসজ্জিত আবাসিক হোটেলে রয়েছে জাপানি নকশার শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ক্যাপ্সুল বেড এবং ওয়াইফাই সুবিধা। উল্লেখ্য, হোটেলটির সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী নারী। সেইসাথে রয়েছে সার্বক্ষণিক সিসি ক্যামেরা ও এক্সেস কন্ট্রোল সিস্টেম।

হোটেলটিতে থাকার জন্য ঢাকার বাইরে থেকে আগত ছাত্রীদের প্রমাণস্বরূপ পরীক্ষার প্রবেশপত্র কিংবা বাসের টিকেট সঙ্গে থাকতে হবে।

খাবারের জন্য রয়েছে সুসজ্জিত ক্যান্টিন; ছবিঃ ফেসবুক পেজ থেকে সংগৃহীত

তাহমিনা আক্তার জানান, আপাতত একটিই শাখা রয়েছে হোটেলটির। তবে সারা পেলে ভবিষ্যতে আরো শাখা স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে বাসন্তী নিবাসের।

প্রসঙ্গত, ‘এক টাকার আহার’, ‘বাসন্তী নিবাস’, ‘বিদ্যানন্দ ভাসমান হাসপাতাল’ ইত্যাদি প্রকপ্লের পাশাপাশি দেশের করোনা মহামারি, বন্যাসহ যেকোনো দুর্যোগ মোকাবিলায় অগ্রণী ভূমিকা রেখেছে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের সেচ্ছাসেককরা।

দেখতে যেমন বাসন্তী নিবাস-ভিডিও

ডেইলি বাংলাদেশ/EKD