জামিন পেলেন সেই ‘অফু বাই’

ঢাকা, শনিবার   ২৩ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৯ ১৪২৭,   ০৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জামিন পেলেন সেই ‘অফু বাই’

নিজস্ব প্রতিবেদক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৫৫ ১৭ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৯:০০ ১৭ আগস্ট ২০২০

ইয়াসীন আরাফাত অপু ওরফে ‘অফু বাই’। ফাইল ছবি।

ইয়াসীন আরাফাত অপু ওরফে ‘অফু বাই’। ফাইল ছবি।

সড়কে পথচারীকে মারধর ও ছিনতাইয়ের অভিযোগে করা মামলায় টিকটকার ইয়াসীন আরাফাত অপু ওরফে ‘অফু বাই’ জামিন পেয়েছেন।

সোমবার তার জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুন অর রশিদ। 

আদালতের জিআরও মোহাম্মদ জালাল বলেন, আদালতে টিকটকার অপু জামিনের আবেদন করেন। সেই আবেদন শুনানি শেষে অপুর জামিন মঞ্জুর করে আদালত। ফলে কারাগার থেকে মুক্তিতে টিকটকার অপুর আর কোনো বাঁধা রইল না। 

গত ৩ আগস্ট উত্তরা ছয় নম্বর সেক্টরের আলাওল এভিনিউয়ের ১২ নম্বর বাড়ির পাশের সড়ক থেকে সহযোগী নাজমুলসহ টিকটকার অপু ওরফে ‘অফু বাই’কে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারের পর অর্থ্যাৎ গত ৪ আগস্ট ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আজিজ তালুকদার। ওই দিন তদন্ত কর্মকর্তা অপুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। কিন্তু ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম মাহমুদা আক্তার রিমান্ডের আবেদন নাকচ করেন। একইসঙ্গে অপুকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়।

মামলার নথির তথ্যানুযায়ী, গত ২ আগস্ট উত্তরা ছয় নম্বর সেক্টরের আলাওল এভিনিউয়ের রাস্তা দখল করে টিকটকার অপু ও তার বেশ কয়েকজন সহযোগী। সেখানে আড্ডারত অবস্থায় ছিলেন তারা। তখন ওই সড়ক দিয়ে গাড়িতেই যাচ্ছিলেন মেহেদী হাসান নামের এক ব্যক্তি ও তার বন্ধুরা। ওই সময় সড়ক থেকে অপুদের সরে যেতে হর্ন দেন মেহেদী। হর্ন কেন দেয়া হলো জানতে গিয়েই দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে অপু ও তার সহযোগীরা সম্মিলিতভাবে মেহেদী হাসান ও তার বন্ধুদের মারধর করেন। একইসঙ্গে মেহেদী হাসানদের মুঠোফোনও ছিনতাই করা হয় বলে মামলার নথিতে উল্লেখ করা হয়েছে। 

এ ঘটনার পর গত ৩ আগস্ট ভুক্তভোগী মেহেদির বাবা এস এম মাহবুব আলম বাদী হয়ে উত্তরা পূর্ব থানায় মামলা করেন। মামলায় মারামারি ও ছিনতাইয়ের অভিযোগ এনে আটজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৩০ জনকে আসামি করা হয়। সেই মামলায় গ্রেফতার হন অপু ও তার সহযোগী নাজমুল।

টিকটকার অপুর গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলায়। তিনি দক্ষিণখান এলাকার একটি বাসায় বসবাস করতেন। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ