প্লাজমা নিয়ে ব্যবসা, হাতেনাতে দালাল আটক

ঢাকা, বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৬ ১৪২৭,   ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

প্লাজমা নিয়ে ব্যবসা, হাতেনাতে দালাল আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:২৩ ৮ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৯:৩৯ ৮ আগস্ট ২০২০

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

করোনা রোগীর জন্য প্লাজমা নিয়ে ব্যবসা করার অভিযোগে আহসানুল ফরিদ নামে একজনকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের সংগঠন ‘বাঁধন’। 

শনিবার বেলা পৌনে ৪টার দিকে শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাঁধন এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রিপন।

তিনি জানান, ওই ব্যক্তিকে বেশ কিছুদিন ধরে আমরা অনুসরণ করছিলাম। এর আগেও ওই ব্যক্তি ‌আমাদের (বাঁধন) কাছ থেকে করোনা রোগীর জন্য প্লাজমা সংগ্রহ করেছিলো। শনিবারও তিনি প্লাজমা নিতে আসেন। আমাদের সন্দেহ হলে আমরা ওই রোগীর স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে তার প্রতারণার বিষয়টি নিশ্চিত হই। পরে তাকে শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

বাঁধন এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রিপন জানান, আহসানুল ফরিদ বিভিন্ন হাসপাতালে গিয়ে করোনা রোগীর স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের প্লাজমা লাগবে বলে প্রথমে যোগাযোগ করেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই রোগীর স্বজনরা জানেন না কোথাকে প্রাজমা সংগ্রহ করতে হবে। আর এই সুযোগটিই নেন ফরিদ। তিনি রোগীর চিকিৎসা সংক্রান্ত কাগজপত্র সংগ্রহ করে সরকারি মূল্যে প্লাজমা সংগ্রহ করে অধিক মূল্যে তা বিক্রি করেন। অথচ শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে এক ব্যাগ প্লাজমার মূল্য ৩ হাজার টাকা। শনিবার তিনি যে রোগীর জন্য প্লাজমা সংগ্রহ করতে আসেন তার কাছ থেকে ফরিদ ১৫ হাজার টাকা নেয়ার পরও আরো টাকা দাবি করেন। তিনি এক ব্যাগ প্লাজমা ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকায়ও বিক্রি করেছেন বলে স্বীকার করেন। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে ‌‌‘বাধন’ এর স্বেচ্ছাসেবকরা শাহবাগ থানায় অভিযোগ করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসসি/এমআরকে