নাগরিক তথ্য সংগ্রহে খিলক্ষেত থানার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

ঢাকা, সোমবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ১২ ১৪২৭,   ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪২

নাগরিক তথ্য সংগ্রহে খিলক্ষেত থানার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০৭ ২০ জুন ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সপ্তাহ চলছে। ডিএমপি’র বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে খিলক্ষেত থানা ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগ নিয়েছে। এর মধ্যে টহলগাড়িকে বুথসহ বাইসাইকেল র‌্যালি ও রোল বল স্কেটিং শোভাযাত্রার মাধ্যমে নাগরিক তথ্য সংগ্রহের প্রচারণা চালানো হচ্ছে। এছাড়া রয়েছে মেগাস্ক্রিনে প্রচার-প্রচারণা। 

খিলক্ষেত থানার ওসি মোস্তাজির রহমান ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, নাগরিক তথ্য সংগ্রহে নাগরিকদের উদ্বুদ্ধ করার জন্য যা প্রয়োজন তা মেটানোর চেষ্টা করছি। আর এসব কর্মসূচির কারণে নাগরিকরাও স্বতঃস্ফুর্তভাবে সারা দিচ্ছেন। এ উপলক্ষে বুধবার শতাধিক বাইসাইকেলে শোভাযাত্রা করা হয়েছে। এছাড়া নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সপ্তাহ-১৯ এর শুরু থেকেই (১৫ জুন) আমার থানার টহল গাড়িগুলোকে বুথ হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। 

তিনি আরো জানান, বৃহস্পতিবার রোল বল স্কেটিং এর আয়োজন করা হয়। জনগণের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য রোল বল স্কেটাররা বিভিন্ন কসরত ও নৈপূন্য দেখায়। এছাড়া আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে এ বিষয়ে আলোচনা সভা করা হয়েছে। অপরদিকে এই এলাকার ৯৭ টি মসজিদের ঈমাম ও মোয়াজ্জিনদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। কাল শুক্রবার প্রতিটি মসজিদে তারা নাগরিকদের তথ্য দেয়ার জন্য বয়ান করবেন। 

এদিকে নিকুঞ্জ ৫ নম্বর রোডের খেলার মাঠে ক্রিকেট বিশ্বকাপ উপলক্ষে হাজার হাজার ক্রিকেটপ্রিয় দর্শক মেগাস্ক্রিনে খেলা উপভোগ করতে আসেন। আজ বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ উপলক্ষে আসা দর্শকদের ওই মেগাস্ক্রিনে এ বিষয়ে তৈরি করা বিভিন্ন তথ্য, ফুটেজ, গান, নাটিকা ও বিভিন্ন সেলিব্রেটিদের বক্তব্য তুলে ধরা হবে। আগে থেকেই এ বিষয়ে ফেরদৌস ও রিয়াজসহ বিভিন্ন নাট্য ও সঙ্গীত শিল্পীদের অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য উপস্থাপন করা হচ্ছে এ মেগাস্ক্রিনে। আর আগামীকাল শুক্রবার দেড় শতাধিক মোটরসাইকেলের একটি র‌্যালির আয়োজন করা হবে।

ওসি বলেন, যে সব বাড়ি থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হয়ে গেছে সেসব বাড়িতে স্টিাকর লাগিয়ে দেয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে খিলক্ষেত এলাকার বাসিন্দাদের মোবাইল ফোনে খুদে বার্তা (এসএমএস) পাঠিয়ে তথ্য দিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। জনসাধারণ আমাদের যথেষ্ট সাহায্য করছেন। নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সপ্তাহ-১৯ চলবে ২১ জুন পর্যন্ত।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসবি/এমআরকে