রেকর্ড ভেঙে শেষ হলো বইমেলা

ঢাকা, সোমবার   ২৬ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১১ ১৪২৭,   ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

রেকর্ড ভেঙে শেষ হলো বইমেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২৩:২৯ ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২৩:৩৮ ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মেলায় বই দেখছেন পাঠকরা (ফাইল ছবি)

মেলায় বই দেখছেন পাঠকরা (ফাইল ছবি)

মাসজুড়ে কেবলই জন্ম হয়েছিল দৃশ্যের। নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে প্রায় ৫ হাজার। বিক্রি হয়েছে প্রায় ৮২ কোটি টাকার বই। বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করা অমর একুশে বইমেলা ২০২০ হয়ে থাকলো স্মরণকালের সফল। 

জানা গেছে, গত বছরের তুলনায় এবার দুই কোটি টাকা বেশি বিক্রি হয়েছে মেলায়। গেল বছরে বিক্রির পরিমাণ ছিল ৮০ কোটি টাকা। এবার তা বেড়ে হয়েছে ৮২ কোটি টাকা। আবার গেল বছরের চেয়ে ২৩৪টি বেশি প্রকাশিত হয়ে এবার বইয়ের সংখ্যা ৪৯১৯টি।

শনিবার সন্ধ্যায় সমাপনী অনুষ্ঠানে এমন তথ্য জানান মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ড. জালাল আহমেদ।

বিগত আট বছরের বই বিক্রির হারে বাংলা একাডেমি জানায়, ২০১৯ সালে বিক্রির পরিমাণ ছিল ৮০ কোটি টাকা। ২০১৮ সালে ছিল ৭০ কোটি ৫০ লাখ টাকা, ২০১৭ সালে ৬৫ কোটি ৪০ লাখ টাকা, ২০১৬ সালে ৪০ কোটি ৫০ লাখ টাকা, ২০১৫ সালে ২১ কোটি ৯৫ লাখ টাকা, ২০১৪ সালে ছিল সাড়ে ১০ কোটি টাকা এবং ২০১৩ সালে ১৬ কোটি ১৪ লাখ টাকা।

এবারের গ্রন্থমেলায় গুণীজন স্মৃতি পুরস্কার পেলেন যারা:

২০১৯ সালে প্রকাশিত বিষয় ও গুণমানসম্মত সর্বাধিক সংখ্যক বই প্রকাশের জন্য কথাপ্রকাশকে চিত্তরঞ্জন সাহা স্মৃতি পুরস্কার, ২০১৯ সালে প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে শৈল্পিক ও গুণমান বিচারে সেরা গ্রন্থ বিভাগে আবুল হাসনাত রচিত ‘প্রত্যয়ী স্মৃতি ও অন্যান্য’ গ্রন্থের জন্য জার্নিম্যান বুকস, মঈনুস সুলতান রচিত ‘জোহানেসবার্গের জার্নাল’ গ্রন্থের জন্য প্রথমা প্রকাশনীকে এবং রফিকুন নবী রচিত ‘স্মৃতির পথরেখা’ গ্রন্থের জন্য বেঙ্গল পাবলিকেশন্সকে মুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার দেয়া হয়েছে।

২০১৯ সালে প্রকাশিত শিশুতোষ বইগুলোর মধ্য থেকে গুণ ও মান বিচারে সর্বাধিক গ্রন্থ প্রকাশের জন্য পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লিমিটেডকে রোকনুজ্জামান খান দাদাভাই স্মৃতি পুরস্কার এবং ২০২০ সালের অমর একুশে গ্রন্থমেলায় অংশগ্রহণকারী প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্য থেকে দৃষ্টিনন্দন সাজসজ্জার জন্য সেরা প্রতিষ্ঠান হিসেবে অভিযান (এক ইউনিট), কুঁড়েঘর প্রকাশনী লিমিটেড (২-৪ ইউনিট) এবং বাংলা প্রকাশকে (প্যাভিলিয়ন) শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার প্রদান করা হয়।

শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২০-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে এসব পুরস্কার পুরস্কারপ্রাপ্তদের হাতে তুলে দেয়া হয়।

মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ, বাংলা একেডেমির মহাপরিচালক হাবিবুল্লাহ সিরাজী। সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএ