বন্যার্তদের সাহায্যের কথা বলে ফান্ড ভারি করছে বিএনপি
15-august

ঢাকা, শুক্রবার   ১২ আগস্ট ২০২২,   ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯,   ১৩ মুহররম ১৪৪৪

Beximco LPG Gas
15-august

বন্যার্তদের সাহায্যের কথা বলে ফান্ড ভারি করছে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক   ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:২৩ ২৫ জুন ২০২২   আপডেট: ১৩:৫৯ ২৫ জুন ২০২২

বিএনপির লোগো- ফাইল ফটো

বিএনপির লোগো- ফাইল ফটো

বন্যার্তদের জন্য ত্রাণের অর্থ সংগ্রহ করে নিজেদের দলের ফান্ড ভারি করছে বিএনপি নেতারা। এরই মধ্যে সরাসরি ফান্ডে টাকা রাখায় দলটির নেতাকর্মীদের মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়েছে। 

জানা গেছে, দেশের চলমান বন্যায় সরকার, আওয়ামী লীগ এবং তাদের অঙ্গ সংগঠন, বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ও ব্যক্তি নিজ উদ্যোগ বন্যাদুর্গতের ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে। কিন্তু কোথাও দেখা যায়নি বিএনপি নেতাদের। বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় দলের স্থায়ী কমিটির নেতারা লজ্জিত হন। এ লজ্জা ঢাকতে উদ্যোগ নিতে সিদ্ধান্ত নেন স্থায়ী কমিটির নেতারা।

সিদ্ধান্ত হয় যে, বিএনপি জনগণের কাছে টাকা চাইবে এবং সেই টাকায় বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করবে। আর এজন্য সাধারণ মানুষের কাছে চাঁদা চাওয়ার জন্য গত ২৩ জুন থেকে রাজধানীতে লিফলেট বিতরণ শুরু করেছে বিএনপি। 

দলীয় গোপন সূত্র জানায়, দলের ফান্ডের টাকা নিয়ে গেছেন লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। এর আগে, এক দফা বন্যার্তদের সাহায্যের নামে তোলা টাকাও লন্ডনে পাঠাতে হয়েছে। সেজন্যই বাধ্য হয়ে এখন জনগণের কাছে হাত পাততে হচ্ছে বিএনপি নেতাদের।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির সিনিয়র এক নেতা জানায়, ১০ জনের কাছ থেকে অর্থ নেয়ার চাইতে কোটি জনের কাছ থেকে সাহায্য নেব। এরই মধ্যে ডোনাররা টাকা দিতে দিতে বিরক্ত। এখন আর তারা ফান্ড দিচ্ছেন না। কারণ, দলীয় ফান্ডের টাকা দল ও তৃণমূলের নেতাকর্মীর উন্নয়নে ব্যয় করার আগেই পাঠাতে হয় লন্ডনে তারেক রহমানের কাছে। বিষয়টি দীর্ঘদিন সহ্য করেছে দলীয় ব্যবসায়ী আর ডোনাররা। এখন আর তারা এগিয়ে আসছেন না।

তিনি আরো বলেন, জনগণের কাছ থেকে তোলা টাকা কোথায়, কিভাবে ব্যয় হবে জানা নেই। শুধুমাত্র দলের ফান্ড ভারি করা হচ্ছে। বন্যার্তদের নামে টাকা তুলে দলের ফান্ড ভারি করা অমানবিক। অন্তত আলাদা অ্যাকাউন্ট করে বন্যার্তদের জন্য টাকা তোলা উচিত। 

বিএনপির সিনিয়র আরেক নেতা বলেন, বিএনপির সমর্থকরা লিফলেট পেয়ে টাকা দিচ্ছেন। সেই টাকা আবার আমাদের দলের কার্যালয়ে আসছে। কার্যালয়ে আসার পর টাকা সরাসরি দলীয় ফান্ডে যাওয়ায় নেতাদের একটি অংশ নাখোশ। অপর অংশ দলীয় ফান্ডে টাকা রাখাকে যৌক্তিক মনে করছেন। এ নিয়ে দ্বন্দ্বও সৃষ্টি হয়েছে। 

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বিএনপি বন্যার্তদের সাহায্যের নামে চাঁদাবাজি শুরু করেছে। কেউ কেউ এটিকে ভিক্ষাবৃত্তি বলছেন। চাঁদা কিংবা ভিক্ষাবৃত্তির টাকাই হোক তা বিএনপির মূল ফান্ডে রাখা উচিত নয়। কারণ, বিএনপির ফান্ড ভারি হচ্ছে। ফান্ড যত ভারি হবে তত তারেক রহমানের বিলাসিতা বাড়বে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/এমকেএ/এমআরকে

English HighlightsREAD MORE »