বাঙালির আশা-আকাঙ্ক্ষার ঠিকানা শেখ হাসিনা: হানিফ

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২২,   ৫ মাঘ ১৪২৮,   ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

বাঙালির আশা-আকাঙ্ক্ষার ঠিকানা শেখ হাসিনা: হানিফ

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:১৪ ২৭ নভেম্বর ২০২১   আপডেট: ২০:৪৮ ২৭ নভেম্বর ২০২১

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, বাঙালির আশা-আকাঙ্ক্ষার ঠিকানা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার রাজধানীর উত্তরার আজমপুর রবীন্দ্র স্মরণিতে ঢাকা মহানগর উত্তর ১নং ওয়ার্ড ইউনিট আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মাহবুব-উল হানিফ বলেন, বাঙালির আশা-আকাঙ্ক্ষার ঠিকানা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জনগণের নিরঙ্কুশ ম্যান্ডেট নিয়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে। ২০০৯ সালে বাংলাদেশ কোথায় ছিল আর আজ কোথায় এসেছে। ৬০০ ডলারের নিচে মাথাপিছু আয় ছিল। আজ ২৫০০ ডলার ছাড়িয়ে গেছে। রফতানি ছিল ৮ বিলিয়নের নিচে এখন সেটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৪ বিলিয়ন। বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে ৬ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স ছিল, আজ বাংলাদেশের রেমিট্যান্স ৪৩ বিলিয়ন ছাড়িয়ে গেছে। বাংলাদেশকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশে পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে হচ্ছে, কর্ণফুলী ট্যানেল হচ্ছে, পারমানবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র হচ্ছে। দেশের অবকাঠামোর উন্নয়ন হচ্ছে কিন্তু এসব বিএনপির চোখে পড়ে না।

আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, উন্নয়নের ফিরিস্তি দেখে বিএনপি এখন খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে রাজনীতি শুরু করেছে। তিনি প্রধানমন্ত্রী ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন ছিলেন ঠিক আছে, তিনি আদালত কর্তৃক দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি এটা আগে মানতে হবে। দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত কয়েদি। দেশে সংবিধান আছে, আইন আছে সেগুলো অনুসরণ করতে হবে। খালেদা জিয়া, মির্জা ফখরুলের জন্য আলাদা আইনের সুযোগ নেই। আইন সবার জন্য সমান।

আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক সুস্থতার জন্য বিএনপির মাথাব্যাথা নেই। তার সন্তানেরও মায়া নেই। তারেক রহমান তার অসুস্থ মাকে দেখতে আসবেন না। কারণ তার কাছে মায়ের মমতার চেয়ে ক্ষমতার লোভটাই বেশি। বিএনপি চায়, খালেদা মারা যাক। দেশের ভেতর একটা অস্থিতিশীলতা করে, জ্বালাও-পোড়াও করে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করা তাদের উদ্দেশ্য।

খালেদা জিয়ার প্রাণের জন্য বিএনপিই এখন বড় হুমকি উল্লেখ করে তিনি বলেন, আন্দোলন করে সরকার পতন ঘটানোর ক্ষমতা বিএনপির নেই। তাই মিথ্যাচার করে তারা জাতিকে বিভ্রান্ত করছেন। খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর উনার ব্যক্তিগত গৃহপরিচারিকা ছিলেন, বাসায় আসার পর নেতা-কর্মীরা, ব্যক্তিগত চিকিৎসক ছিলেন। মির্জা ফখরুল সাহেবকে জিজ্ঞেস করতে চাই, হঠাৎ করে স্লো পয়জনিং এলো কেনো? নাকি আপনারা নতুন করে ষড়যন্ত্র করছেন?

এর আগে ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ বজলুর রহমান। এতে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-১৮ আসনের এমপি হাবিব হাসান।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/এমআরকে/এমকেএ

English HighlightsREAD MORE »