খন্দকার মোশাররফকে নিয়ে বিএনপিতে গুঞ্জন

ঢাকা, বুধবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২২,   ১৩ মাঘ ১৪২৮,   ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

খন্দকার মোশাররফকে নিয়ে বিএনপিতে গুঞ্জন

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৪৯ ১২ নভেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৩:৪৯ ১২ নভেম্বর ২০২১

বিএনপির সিনিয়র নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন- ফাইল ফটো

বিএনপির সিনিয়র নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন- ফাইল ফটো

খালেদা জিয়ার অনাস্থা ও আন্তর্জাতিক মহলের চাপ, সিনিয়র নেতাদের দলাদলি ও জামায়াতে ইসলামীর বিশেষ অনুরোধে অবশেষে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান পদ থকে সরে দাঁড়াতে রাজি হয়েছেন লন্ডনে পলাতক তারেক রহমান। সেই পদে শর্তসাপেক্ষে সর্বসম্মতিক্রমে বিএনপির সিনিয়র নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বানাতে রাজি হয়েছেন তিনি।

সূত্রের তথ্যানুযায়ী, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বানাতে তারেক যে শর্ত দিয়েছেন তা হলো- বিএনপির যাবতীয় কর্মকাণ্ডের সিদ্ধান্ত তারেক রহমানই নেবেন। ড. মোশাররফ শুধু বিদেশি বন্ধুদের আইওয়াশ করার জন্যই দলের দায়িত্ব নেবেন।

লন্ডন বিএনপি সূত্রে জানা যায়, প্রতিটি নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয়, সরকারবিরোধী আন্দোলনে দলীয় কর্মীদের অনীহায় বিএনপি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি জোট দলগুলোর অসম্মান প্রদর্শন এবং বিদেশে ডোনারদের ক্রমাগত চাপের মুখে পড়ে বিএনপির নেতৃত্ব নিয়ে সিদ্ধান্ত পাল্টানোর প্রাথমিক বিষয়ে ভাবতে শুরু করেন তারেক রহমান।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হওয়ায় বিদেশি ডোনাররা বিএনপির পেছনে নতুন করে অর্থ ব্যয় করতে রাজি হচ্ছে না। এছাড়া আন্তর্জাতিক লবিস্টরাও তারেক রহমানকে বিএনপির নেতৃত্বে দেখতে চাচ্ছেন না। 

তাদের মতে, তারেক রহমান বিএনপিকে সঠিক নেতৃত্ব দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। নিজেকে বাঁচানোর জন্যই বিদেশে পালিয়েছেন তারেক। অথচ তার মা দলের জন্য জেল খাটছেন। 

একজন আত্মগোপনকারী নেতা কখনই বৃহৎ একটি রাজনৈতিক দলকে নেতৃত্ব দিতে পারবেন না, ডোনারদের এমন শর্তের মুখে পড়ে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসনের দায়িত্ব হস্তান্তর করার চিন্তা করছেন তারেক।

পাকিস্তান ও মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশের দাবি হচ্ছে, তারেক বিএনপিকে নেতৃত্ব দিয়ে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী করে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করার মতো ক্ষমতা ও যোগ্যতা রাখেন না। তারেক শুধু অর্থ চেনেন, বিএনপি তারেকের কাছে গুরুত্বপূর্ণ না। তারেক শুধু ক্ষমতা ও অর্থের অন্ধভক্ত। সুতরাং তারেকের হাতে বিএনপির নেতৃত্ব থাকলে নির্ঘাত বিএনপি ধীরে ধীরে রাজনীতি থেকে বিলীন হয়ে যাবে। 

তারেকের মাথায় দুর্নীতি ও ক্ষমতা অপব্যবহারের দণ্ড থাকায় আন্তর্জাতিক মহল বিএনপির ওপর ভরসা করতে পারছে না। তাই চারিদিকের চাপ বিবেচনা করে দলের নেতৃত্ব ছেড়ে দিতে তারেক প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এদিকে তারেক রহমানের এমন প্রাথমিক সিদ্ধান্তের বিষয়ে আভাস পেয়ে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে বিএনপির আগামীর বিভিন্ন সমাবেশে প্রধান বক্তা বানানোর চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে। তবে খন্দকার মোশাররফকে দলের দায়িত্ব দিলেও পর্দার পেছন থেকে কলকাঠি নাড়বেন তারেক রহমান। তবে বিএনপির নেতৃত্ব জিয়া পরিবারের হাত থেকে ভিন্ন ব্যক্তির হাতে চলে যাওয়ায় কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে মির্জা ফখরুলের।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/এমকেএ

English HighlightsREAD MORE »