যুক্তরাষ্ট্রের জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের তালিকায় বিএনপি

ঢাকা, রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮,   ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

যুক্তরাষ্ট্রের জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের তালিকায় বিএনপি`র শতাধিক নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৯:৪০ ৪ অক্টোবর ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

জঙ্গিবাদ এবং সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে যুক্ত শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মীর তালিকা তৈরি করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, এরা আন্তর্জাতিক বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে জড়িত আছে বা ছিল এবং এরা জঙ্গি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত।

এদেরকে দল থেকে অনতিবিলম্বে বের করে দেওয়ার সুপারিশ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। যদি বের করা না হয়, তাহলে বিএনপিকেই সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করবে বলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

যে শতাধিক নেতার তালিকা তৈরি করা হয়েছে, তাদের মধ্যে বিএনপির অনেক সাবেক মন্ত্রী ও শীর্ষ পর্যায়ের নেতাও রয়েছেন বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। 

এদের মধ্যে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক প্রতিমন্ত্রী শাহ মোফাজ্জল হোসাইন কায়কোবাদ, আসলাম চৌধুরী, খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীসহ একাধিক ব্যক্তির নাম আছে। 

এদের মধ্যে প্রায় ৪০ জনের তালিকা পাওয়া গেছে যারা আফগানিস্তানের তালেবান বা অন্যান্য উগ্র মৌলবাদী জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত ছিল, আফগান ফেরত এরা আফগানিস্তান থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছিল। মার্কিন বিরোধী তথাকথিত যুদ্ধেও তারা অংশগ্রহণ করেছিল। এদের মধ্যে অন্তত ৬ জনকে পাওয়া গেছে, যারা সিরিয়ায় আইএসএর সঙ্গে সরাসরি যুক্ত ছিল এবং সিরিয়া যুদ্ধে এরা অংশগ্রহণ করেছিল। এছাড়াও অন্যান্য জঙ্গি গোষ্ঠীর সঙ্গে সরাসরি যুক্ত ছিলেন বাকিরা।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের সূত্রে জানা গেছে, যে সমস্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান মার্কিনবিরোধী যুদ্ধে অংশগ্রহণ করে বা মার্কিন নীতির সমালোচনা করে প্রত্যক্ষ, সশস্ত্র জিহাদ বা অন্য উগ্র মৌলবাদী পন্থা অবলম্বন করে তাদের সন্ত্রাসী বা জঙ্গি হিসেবে চিহ্নিত করা হয় এবং এদের কালো তালিকাভুক্ত করা হয়। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর জঙ্গি ও সশস্ত্র তৎপরতার সঙ্গে যুক্ত একটি তালিকা রয়েছে। এ তালিকাভুক্তরা শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের অযোগ্যই হয় না, এরা যে দেশেই অবস্থান করুক না কেন, সে দেশের পক্ষ থেকে যেন তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রয়োগ করা হয় সেজন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র পদক্ষেপ গ্রহণ করে।

মার্কিন দূতাবাসের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা বলেছেন, মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর যে তালিকা তৈরি করেছে, এ তালিকায় তারা খুব শিগগিরই বাংলাদেশের পররাষ্ট্র দফতর ও বিএনপির কাছে হস্তান্তর করবে। 

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র দফতরের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, লুৎফুজ্জামান বাবর, কায়কোবাদসহ বিএনপির যে নেতাদের নাম দেওয়া হয়েছে তারা এরই মধ্যে জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি হয়েছেন এবং তাদের আইনের আওতায় আনা হয়েছে। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ও দশ ট্রাক অস্ত্র মামলায় বিএনপির একাধিক নেতার জড়িত থাকার বিষয়টি আদালতের রায়েই প্রমাণিত হয়েছে। কাজেই তাদের বিরুদ্ধে সরকার ব্যবস্থা নিচ্ছে। বিএনপি তাদের বহিষ্কার করবে কি করবে না, সেটা তাদের নিজস্ব বিষয়। 

সরকার মনে করে, বিএনপির যারা সন্ত্রাসী, জঙ্গি ও উগ্র মৌলবাদী সংগঠনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট হয়ে বিএনপিতে আশ্রয় নিয়েছে, বিএনপি যদি গণতান্ত্রিক দল হয় তাদের অবিলম্বে বহিষ্কার করা উচিৎ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর