বিএনপিকে ছেড়ে তৃতীয় শক্তি হিসেবে মাঠে আসছে ঐক্যফ্রন্ট

ঢাকা, রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮,   ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

বিএনপিকে ছেড়ে তৃতীয় শক্তি হিসেবে মাঠে আসছে ঐক্যফ্রন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক   ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:০০ ২ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ২০:৫৩ ২ অক্টোবর ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বিএনপিকে বাদ দিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে ঢেলে সাজানোর প্রস্তাব দিয়েছে আন্তর্জাতিক মহল। নির্বাচনের আগে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে দাঁড় করানোর প্রস্তাব দিয়েছে প্রভাবশালী কয়েকটি দেশের দূতাবাস।

বিভিন্ন কূটনৈতিক সূত্রের প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং ভারত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে বিকল্প গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক মোর্চা হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে প্রস্তাব দিয়েছে এবং দীর্ঘমেয়াদি কর্মসূচির মাধ্যমে ধাপে ধাপে এটাকে সংঘবদ্ধ করার পরামর্শ দিয়েছে। এর প্রথম কাজ হিসেবে ঐক্যফ্রন্ট থেকে বিএনপিকে বাদ দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে।

ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে মার্কিন দূতাবাসের ঊর্ধ্বতন কমিটির বৈঠকে এরকম একটি সুনির্দিষ্ট রূপরেখা দেওয়া হয়েছে বলে একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে। পাশাপাশি ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিসহ ভারতের প্রতিনিধিরাও ড. কামাল হোসেনকে একটি অর্থবহ রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে ঐক্যফ্রন্টকে গড়ে তোলার পরামর্শ দিয়েছে।

এ সমস্ত দেশের পরামর্শে যে মূল বিষয়টি এসেছে, তা হলো জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে বিএনপিকে বাদ দিতে হবে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে বাম দলসহ গণতান্ত্রিক এবং প্রগতিশীল যে রাজনৈতিক দলগুলো আছে, তাদের মধ্যে ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।

প্রায় তিন বছর আগে নাটকীয়ভাবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হয়। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের শেষ প্রক্রিয়ায় অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরীকে বাদ দেওয়া হয়। এই ঐক্যফ্রন্টের প্রধান দল হলো বিএনপি। শুরুতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রধান শর্ত ছিল, জামায়াতের সঙ্গে তারা সম্পর্ক রাখবে না। কিন্তু বিএনপি জামায়াতের সঙ্গে সম্পর্ক রেখেই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যোগ দেয়।

বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের দহরম-মহরম কমছে না। বর্তমানে জামায়াতের কারণে ঐক্যফ্রন্টের বিএনপিতে কোনো মূল্য নেই। ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে ২২ জন জামায়াতের প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিএনপি থেকে নির্বাচন করে, যা ড. কামাল হোসেনকে বিব্রতকর অবস্থার মধ্যে ফেলে। এরপর থেকেই ড. কামাল হোসেন বিএনপি থেকে জামায়াতকে বাদ দেওয়ার পরামর্শ দেন। এবার আন্তর্জাতিক মহল বিএনপি ছাড়ার পরামর্শ দিলো ড. কামাল হোসেনকে।

এরপক্ষে তাদের যুক্তি হলো, বিএনপি যেহেতু সেক্যুলার রাজনীতি হারিয়েছে এবং বিএনপি-জামায়াতের সম্পর্ক যেহেতু খুবই নিবিড়, কাজেই বিএনপিকে রেখে একটি সেক্যুলার রাজনৈতিক জোট হিসেবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বিকশিত হতে পারে না।

তাছাড়া গত দেড় দশক ধরেই বিদেশি দূতাবাসগুলো একটা নতুন রাজনৈতিক শক্তি উত্থানের জন্য চেষ্টা করছিল। সেক্ষেত্রে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টই একটি তৃতীয় রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে পারে বলে বিভিন্ন কূটনৈতিক মহল মনে করছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/এইচএন