উগ্রবাদী সাম্প্রদায়িক অপশক্তি পাকিস্তানি হানাদারের চেয়েও ভয়ংকর

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১,   চৈত্র ৩০ ১৪২৭,   ২৯ শা'বান ১৪৪২

উগ্রবাদী সাম্প্রদায়িক অপশক্তি পাকিস্তানি হানাদারের চেয়েও ভয়ংকর: নাছিম

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৪১ ৭ এপ্রিল ২০২১   আপডেট: ১৯:২৮ ৮ এপ্রিল ২০২১

বক্তব্য রাখছেন আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বক্তব্য রাখছেন আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেছেন, উগ্রবাদী সাম্প্রদায়িক অপশক্তি পাকিস্তানের হানাদার বাহিনীর চেয়েও জঘন্য ও ভয়ংকর রূপ ধারণ করেছে। হেফাজতের তাণ্ডব এরই প্রমাণ। শুধু আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা তাদের টার্গেট নয়, পুরো দেশকে ধ্বংস করাই এদের টার্গেট।

বুধবার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে হেফাজত কর্তৃক আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঘরবাড়ি, দোকানপাট ভাঙচুর ও ক্ষতিগ্রস্তদের দেখতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী যখন পালন করা হচ্ছে, এ সময় স্বাধীনতাবিরোধী ও ধর্মব্যবসায়ীদের একটি চক্র দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করার পাঁয়তারা শুরু করেছে। এদের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে বাংলাদেশকে একটি ব্যর্থ ও অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করা। এরা দেশ ও জনগণ বিরোধী। দেশের উন্নয়ন ধ্বংস করতে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে।

বিএনপি-জামায়াত শিবির মিলে তাদের অ্যাজেন্ডা বাস্তবায়ন করাই হেফাজতের মূল লক্ষ্য উল্লেখ করে তিনি বলেন, ধর্মব্যবসায়ীরা দেশের উন্নয়ন, অর্জন ও জনগণ চায় না। এরা দেশের সবকিছু ধ্বংস করতে চায়। এরাই স্বাধীনতাবিরোধী ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী। তাদের অ্যাজেন্ডা বাস্তবায়ন করার জন্য ১৭ জন নিরীহ মানুষকে নিহত হতে হয়েছে। এর দায়ভার উগ্রপন্থী হেফাজতকেই নিতে হবে।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, এ সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী মানুষের ঘরবাড়ি ভাঙচুর ও জ্বালাও-পোড়াও করেছে, রেললাইন উপড়ে ফেলেছে, থানায় আগুন দিয়ে ভাঙচুর করেছে। হেফাজত তাদের কাজে অবুঝ শিশুদেরকে ব্যবহার করা শুরু করেছে।

তিনি বলেন, দেশের মধ্যে ধ্বংসলীলা চালিয়ে হেফাজতিরা আবার নারীকে নিয়ে রিসোর্টে আরাম করতে যায়। ধরা খেয়ে ধর্মব্যবসায়ীদের মুখোশ উন্মোচিত হওয়ায় এখন উন্মাদ হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, প্রিয় মাতৃভূমিকে রক্ষা করার জন্য দেশের সব মানুষকে ঐক্যবদ্ধভাবে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উগ্রবাদী জামায়াত-শিবির-বিএনপির সাম্প্রদায়িক শক্তিকে প্রতিহত করতে হবে। এদের দ্রুত ও উপযুক্ত বিচার করার জন্য বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করারও আহ্বান জানান তিনি।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/জেডআর/এইচএন