সুবিধাবাদী মওদুদের পরবর্তী গন্তব্য কোথায়?

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২২ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ১০ ১৪২৮,   ০৯ রমজান ১৪৪২

সুবিধাবাদী মওদুদের পরবর্তী গন্তব্য কোথায়?

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:২০ ৫ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৪:৩০ ৫ জানুয়ারি ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

মৌমাছি যেমন ফুলে ফুলে উড়ে মধু আহরণ করে, তেমনই দল বদল করতে করতে জীবন সায়াহ্নে এসে পৌঁছেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ।

প্রথমে তিনি ছাত্রলীগ, পরে বিএনপি হয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন। সেখানে সুবিধা আদায় করেন এবং জাতীয় পার্টির দুর্দিন শুরু হলে লাফ দিয়ে বিএনপি শিবিরে যোগ দেন।

এখন চাউর হয়েছে, তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর গঠিত নতুন রাজনৈতিক দলে যোগদানের চেষ্টা করছেন। যার অংশ হিসেবে গোপনে আইনি বিষয়সহ পুরো রাজনৈতিক তৎপরতা দেখভাল করছেন। প্রয়োজনে বিভিন্ন দিকনির্দেশনাও দিচ্ছেন।

দায়িত্বশীল সূত্রের তথ্য মতে, রাজনীতিতে অভিষেকের পর থেকেই মওদুদ যেখানে ক্ষমতার গন্ধ, সেখানেই ছুটে গেছেন। নিজের স্বার্থের বাইরে কখনই তার কাছে গুরুত্ব পায়নি দলীয় সংগঠন। এ কারণে সবার কাছে তিনি ‘সুবিধাবাদী মওদুদ’ নামেই পরিচিত। 

রসিকতা করে অনেকে বলেন, মওদুদ আসলে কোনো দলীয় আদর্শের অনুসারী নন। তিনি মূলত সুবিধাবাদী নীতির অনুসারী।

শুধু তাই নয়, গুলশান অ্যাভিনিউয়ের যে বাসভবনে মওদুদ থাকতেন এবং সেই বাড়ি নিজের বলে দাবি করতেন। সেটি আসলে জোরপূর্বক দখলে নেয়া একটি বাড়ি। বাড়ির প্রকৃত মালিকের উত্তরসূরিদের সঙ্গে আলাপে এর সত্যতা পাওয়া যায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন জানান, বাড়িটি তাদের পারিবারিক সম্পত্তি। কিন্তু মওদুদ একটি পয়সাও বাড়ি ভাড়া না দিয়ে বরং তা দখল করে রাখেন। পরে আইনি প্রক্রিয়ায় বিষয়টি সরকারকে অবহিত করা হয়। সরকার তা আমলে নিয়ে অবৈধ সম্পত্তি থেকে মওদুদকে উৎখাত করে।

সূত্রটি আরো জানায়, মওদুদের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ। আইনমন্ত্রী থাকাকালীন তিনি নিজের পছন্দের লোককে তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধান করার জন্য বিচারপতিদের অবসরের বয়সসীমা দুই বছর বৃদ্ধি করেন। পরে তা নিয়ে বাঁধে বিপত্তি। এখন নতুন করে আবার তিনি সুবিধার আশায় সাবেক ডাকসু ভিপি নুরের দল থেকে ‘ফায়দা’ নেয়ার অবিশ্রান্ত চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা বলছেন, আদতে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের কোনো রাজনৈতিক আদর্শ নেই। তিনি সুবিধাবাদী, এটাই তার প্রকৃত পরিচয়। বাকি সব মিথ্যা। তাই তার থেকে নুরুল হক নুরসহ সবার সতর্ক থাকা একান্ত জরুরি। অন্যথায় তার লালসার ‘সুবিধাবাদী’ ফাঁদে পড়ে বিপদে পড়বে অনেকেই।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/জেডআর/এইচএন