রুমিন আর তাবিথকে নিয়ে বিপাকে বিএনপি

ঢাকা, শুক্রবার   ২২ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৮ ১৪২৭,   ০৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

রুমিন আর তাবিথকে নিয়ে বিপাকে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:১৫ ২৩ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৭:৫০ ২৩ নভেম্বর ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নেতৃত্বের অদূরদর্শীতার কারণে দল এবং এর বাইরে ভীষণভাবে সমালোচিত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। এবার  তার বিরুদ্ধে ত্যাগী ও প্রবীণ নেতাদের উপেক্ষা করে তরুণদের নিয়ে দল সাজানোর অভিযোগ উঠেছে।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, এ লক্ষ্যে দলের অপেক্ষাকৃত তরুণ এবং তার প্রতি অনুগত নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়মিত বৈঠক করছেন তারেক।

এদিকে বিএনপির শীর্ষ কয়েকজন নেতার অভিযোগ, বিএনপির অনেক সিদ্ধান্তের কথাই আগে থেকে জানানো হয় না তাদের। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকেই এ প্রক্রিয়াতে দল চালাচ্ছেন তারেক।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বিএনপির স্থায়ী কমিটিতে শূন্যপদ নিয়ে এখন তারেকের সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। এ নিয়ে বিপাকে পড়েছে বিএনপি।

দলের গোপন সূত্রে জানা যায়, বিএনপির স্থায়ী কমিটির যে পদগুলো খালি রয়েছে, সেগুলো অপেক্ষাকৃত তরুণ ও কর্মক্ষম নেতাদের দিয়ে পূরণ করতে চান তারেক। আর এজন্য তিনি দুজনের নাম এরই মধ্যে প্রস্তাব করেছেন। 

বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, গত শনিবার মির্জা ফখরুলকে স্থায়ী কমিটিতে দুজনকে অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাব করেন তারেক রহমান। এরা হলেন- মহিলা কোটায় এমপি রুমিন ফারহানা এবং ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী বিএনপি প্রার্থী তাবিথ আউয়াল।

আরো জানা যায়, তারেক রহমান এ দুজনের নাম প্রস্তাব করার সঙ্গে সঙ্গেই মির্জা ফখরুল প্রতিবাদ করেন। তিনি বলেন, এরা জুনিয়র, স্থায়ী কমিটিতে যাওয়ার জন্য খুবই অনুপযুক্ত।

এ সময় মির্জা ফখরুল বলেন, ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাদের বাদ দিয়ে এ দুজনকে দায়িত্ব দেয়া হলে দলের মধ্যে একটা ভুল বার্তা যাবে। এতে তৃণমূলের নেতাকর্মীরা অনুৎসাহিত হবে। কিন্তু তারেক রহমান তার সিদ্ধান্তে অনড়।

এদিকে তারেকের সঙ্গে কথা বলার পরে মির্জা ফখরুল দলের কয়েকজন সিনিয়র নেতার সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলেন। সে সময় তারেকের প্রস্তাবের সবাই তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা করেন। তারা বলেন, এ রকম সিদ্ধান্ত নেয়া হলে তাদের জন্য বিএনপির রাজনীতি করা কঠিন হয়ে যাবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য জানান, দলের মহাসচিব তাকে টেলিফোন করে এ দুজনের নাম বলেছেন। তাদের স্থায়ী কমিটিতে নেয়ার ব্যাপারে আগ্রহের কথা জানিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটি দলের চেয়ারপারসনের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী কমিটি। দলে দীর্ঘ দিনের ত্যাগী, প্রবীণ ও পরীক্ষিত নেতাদের স্থায়ী কমিটির সদস্য করা হয়। কাজেই স্থায়ী কমিটির সদস্য আনকোরা নতুনদের করা হলে এটি দলের মধ্যে নেতিবাচক বার্তা দেবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/জেডআর/এইচএন/AN