নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়মিত সাক্ষাৎ খালেদার, তবুও গৃহবন্দির অভিযোগ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৯ ১৪২৭,   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়মিত সাক্ষাৎ খালেদার, তবুও গৃহবন্দির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৫৮ ২০ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৮:৪৫ ২০ অক্টোবর ২০২০

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দলীয় কোনো নেতা-কর্মীর সাক্ষাতে কোনো বাধা নেই, তবুও গৃহবন্দির অভিযোগ তুলছে দলটি। আর তাই বিএনপির এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে মনে করছেন দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম। 

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া বাসায় থাকাকালীন দলটির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে একাধিকবার দেখা করেছেন। তিনি চাইলে আইনজীবীসহ যে কারো সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন। তারপরও কেনো গৃহবন্দির অভিযোগ তুলছে বিএনপি?

খুরশীদ আলম বলেন, পরিবারের পক্ষের আবেদনে ওনাদের পারমিশন দেয়া হয়েছে। এখন গৃহবন্দি কেনো বলছে?

এ বিষয়ে জানতে চাইলে খালেদা জিয়ার আইনজীবী ও দলের যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, উনি চাচ্ছেন বাইরে চিকিৎসা করাতে। কিন্তু সরকার শর্ত না দিলে তো বাইরে চিকিৎসা করাতে পারতেন। করোনা পরিস্থিতির কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির সিনিয়র দায়িত্বশীল এক নেতা বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য বিদেশি কয়েকটি হাসপাতালে যোগাযোগ করছে তার পরিবার। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে সেটিও সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি বলেন, আইনি প্রক্রিয়া ব্যর্থ হয়ে সরকারের এমন সিদ্ধান্তকে শুরু থেকে স্বাগত জানিয়েছেন দলের নীতিনির্ধারকরা। অথচ মুক্তির ৮ মাস পর গৃহবন্দির অভিযোগ দেশের মানুষের কাছে বিএনপির গ্রহণযোগ্যতা আরো কমে যাবে। 

তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়ার জামিনের শর্ত হলো- তিনি বিদেশ যেতে পারবেন না, বাসায় থেকে চিকিৎসা নেবেন। শর্তে কিন্তু বলেনি- তিনি নেতা-কর্মীদের বা কারো সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না। আসলে তিনি নিজে থেকেই রাজনীতি থেকে দূরে সরে গেছেন।

প্রসঙ্গত, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বেড়েছে দুই দফা। বিদেশে না যাওয়া, বাসায় চিকিৎসা নেয়া এ দুটি শর্তে সরকারের নির্বাহী আদেশে তাকে মুক্তি দেয়া হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/এমআরকে/টিআরএইচ