খালেদার নির্দেশ মানছেন না রিজভী

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১২ ১৪২৭,   ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

খালেদার নির্দেশ মানছেন না রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:১১ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১২:২৪ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে পার্টি অফিসে বেশিক্ষণ থাকতে ও কোনো মিছিল বা হুটহাট সংবাদ সম্মেলনে অংশ না নিতে নির্দেশনা দিয়েছিলেন খালেদা জিয়া। কিন্তু সেই নির্দেশনা অমান্য করে পার্টি অফিসে প্রতিনিয়ত অবস্থান ও সংবাদ সম্মেলন করছেন তিনি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রুহুল কবির রিজভীর বেশকিছু কর্মকাণ্ডে বিরক্ত ও বিব্রত অবস্থায় পড়েছেন খালেদা জিয়া। যেকোনো ইস্যুতে হুট করে সংবাদ সম্মেলন আর প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে ১০ থেকে ১২ জন নেতা-কর্মী নিয়ে ‘ঝটিকা মিছিল’ করায় বিব্রত বিএনপির শীর্ষস্থানীয় নেতারাও। 

তাদের দাবি, এসব কর্মসূচির মাধ্যমে নেতা-কর্মীরা রাজনীতির প্রতি দিন দিন নিরুৎসাহিত হচ্ছেন। সিনিয়র নেতারা ঘরমুখো হয়ে পড়ছেন। মিছিলে ১০ থেকে ১২ জন অংশ নিলে, এর চেয়ে লজ্জার কি আছে? তার (রিজভীর) এই কর্মসূচিই প্রমাণ করে বিএনপির বর্তমান জনপ্রিয়তা। এতেই বুঝা যায় বর্তমানে নালিশ পার্টিতে পরিণত হয়েছে দলটি। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির একাধিক সিনিয়র ও এক সময়ের শীর্ষস্থানীয় এক নেতা বলেন, রুহুল কবির রিজভী মর্নিং ওয়ার্কের নামে যেসব কর্মসূচি পালন করছেন, তা একদমই ঠিক নয়। এগুলো রীতিমতো তামাশা ছাড়া আর কিছুই নয়। 

তারা বলেন, এসব কর্মসূচিতে দলের যতটুকু লাভ হয়, তার চেয়ে বেশি ক্ষতি হচ্ছে। এর মাধ্যমে দলের জুনিয়র নেতারা রাজনীতির প্রতি নিরুৎসাহিত হচ্ছেন। সিনিয়র নেতারা বিভিন্ন জায়গায় বিব্রত অবস্থায় পড়ছেন। 

রিজভীকে উদ্দেশ্য করে তারা আরো বলেন, তিনি যে এলাকায় মিছিল করেন সেখানে সংশ্লিষ্ট ইউনিটের দায়িত্বশীল নেতারা তার কর্মসূচি সম্পর্কে কিছুই জানেন না। বিষয়টি কেমন হলো? তাহলে তো ওই এলাকার নেতাদের বিশ্বাস করেন না রিজভী। আর তার সঙ্গে মিছিলে যে কয়েকজন লোক থাকে, তারাই বা কারা? 

দলীয় সূত্র থেকে জানা গেছে, রিজভী সম্পর্কে দলের সিনিয়র নেতারা খালেদা জিয়ার কাছে এসব বিষয়ে নালিশ করলে এবং তিনি নিজেও এতদিন বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে সম্প্রতি রিজভীকে ফোন করে এ ধরনের কর্মসূচি পালন না করতে নির্দেশনা দেন। তবে তার কোনো তোয়ক্কা করছেন না রিজভী।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/জেডআর/এইচএন