ভার্চুয়াল মিটিংয়ের নামে বিএনপির খোশগল্প-মিথ্যাচার, বিরক্ত দর্শক

ঢাকা, শনিবার   ৩১ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৬ ১৪২৭,   ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ভার্চুয়াল মিটিংয়ের নামে বিএনপির খোশগল্প-মিথ্যাচার, বিরক্ত দর্শক

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:১৩ ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রাজপথের রাজনীতি থেকে সরে এসে ঘরমুখী ও ভার্চুয়াল রাজনীতিতে ঝুঁকে পড়েছে বিএনপি। যেকোনো ইস্যুতেই ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলন আর অনলাইনে আলোচনার মাধ্যমে এখন সীমাবদ্ধ তাদের কার্যক্রম। তবে ভার্চুয়ালি আলোচনার নামে সরকারি দলকে দোষারোপ, নিজেদের অপকর্ম অন্যের ঘাড়ে চাপানো, নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকা, খোশগল্প ও মিথ্যাচার করায় ব্যাপকভাবে সমালোচনার মুখে পড়েছে বিএনপি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় রয়েছেন। সম্প্রতি বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে ফোন করে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বেশিক্ষণ অবস্থান না করতে ও হুটহাট মিছিল না করতে নির্দেশ দেন। এরপর থেকেই বিএনপির কার্যক্রম পুরোপুরি অনলাইন নির্ভর। সংবাদ সম্মেলন, স্মরণসভা, প্রতিবাদ সভা কিংবা আলোচনা সভা যেটাই হোক, সবই এখন হয় ভার্চুয়ালি।

দলীয় সূত্র থেকে জানা গেছে, প্রতিদিনই কোনো না কোনো ইস্যুতে ভার্চুয়ালি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেখানে দলের নির্বাহী কমিটির সদস্য থেকে শুরু করে জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা যুক্ত হন। কোন কোন সময়ে লন্ডনে পলাতক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানও যুক্ত থাকেন।

সূত্রটি জানায়, আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে নেতা-কর্মীরা খালেদা ও তারেক রহমানের অপকর্ম ও কুকর্ম ঢাকতে নানা গল্প সাজিয়ে প্রতিযোগিতাপূর্ণ বক্তব্য দেন, নির্লজ্জ চাটুকারিতা করেন। দলীয় চেয়ারপার্সন ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে খুশি করতে নানা ধরনের মনগড়া গল্প বলেন। বিভিন্ন গুজব ছড়ান।

এদিকে বিএনপি নেতাদের এমন মিথ্যাচার, সরকারের বিরুদ্ধে তিরস্কার করার কারণে ভার্চুয়াল আলোচনায় খুব নগণ্য সংখ্যক দর্শক থাকে। বিরক্তিকর এক ঘেয়েমি আলোচনা কারণে বেশিরভাগ দর্শক লাইভ ছেড়ে চলে যান। অনেকেই অনলাইনে খোশগল্পের নামে বিএনপির এমন অলস আড্ডার তীব্র সমালোচনাও করেন।

পরিচয় গোপন করা শর্তে তেমনি একজন দর্শক বলেন, দলের ব্যর্থতা ও অপকর্ম আড়াল করতেই বিএনপি প্রতিনিয়ত নানা কৌশল অবলম্বন করে। রাজপথের রাজনীতিতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়ে তারা এখন ভার্চুয়ালি নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে চায়। সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড না থাকায় অনলাইনে অলস সময় কাটাচ্ছে তারা।

তিনি বলেন, এসব আলোচনায় দেশের ও মানুষের জন্য কিছু থাকে না। শুধু খালেদা ও তারেক রহমানের গুণগান এবং সরকারকে নিয়ে বিনা কারণে সমালোচনাই আলোচনার মূল প্রতিপাদ্য বিষয় থাকে। তাই এ ধরনের এক ঘেয়েমি আলোচনাতে বিরক্ত হয়ে উঠেছেন দর্শকরা।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা বলেন, রাজপথ ছেড়ে এসে রাজনীতিকে জুম মিটিং ও আলোচনার টেবিলে সীমাবদ্ধ রেখেছে বিএনপি। তাদের আলোচনা মানেই খোশগল্প, মিথ্যাচার আর অলস সময় কাটানো।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/টিআরএইচ