ষাটের জনপ্রিয় কবি আবুল হাসান’র জন্মদিন আজ

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৫ ১৪২৮,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ষাটের জনপ্রিয় কবি আবুল হাসান’র জন্মদিন আজ

শিল্প ও সাহিত্য ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৪০ ৪ আগস্ট ২০২১  

ষাটের দশকের জনপ্রিয় কবিদের একজন আবুল হাসান

ষাটের দশকের জনপ্রিয় কবিদের একজন আবুল হাসান

ষাটের দশকের জনপ্রিয় কবিদের একজন আবুল হাসান এবং সত্তুরের দশকেও গীতি কবিতার বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। আজও তার সাহিত্যকর্ম সচেতন পাঠকের তালিকায় রয়েছে। তিনি পেশা হিসিবে সাংবাদিকতাকে বেছে নিয়েছিলেন। আসল নাম আবুল হোসেন মিয়া। সাহিত্যিক নাম আবুল হাসান। আজ ৪ আগস্ট, ১৯৪৭ সালের এদিন জন্মেছিলেন তিনি।

আবুল হাসান গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গীপাড়ার বর্নি গ্রামে মাতুলালয়ে নানার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। বাবার বাড়ি পিরোজপুরে নাজিরপুরের ঝনঝনিয়া গ্রামে। তার বাবা আলতাফ হোসেন মিয়া ছিলেন পুলিশ অফিসার।

১৯৬৫ সালে তিনি বরিশালের সরকারি ব্রজমোহন কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিকে পড়াশোনা শেষ করেন। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি বিভাগে ভর্তি হলেও পড়াশোনা শেষ করেননি। জীবিকার তাগিদে ১৯৬৯ সালের প্রথম দিকে তিনি দৈনিক ‘ইত্তেফাক’র বার্তা বিভাগে চাকরি জীবন শুরু। তিনমাস পার করার পর তিনি এ চাকরি ছেড়ে দেন। একে একে ‘গণবাংলা’, ‘জনপদ’, ‘গণকণ্ঠ’ পত্রিকায় কাজ করলেও কোনো পত্রিকাতেই টানা বেশিদিন চাকরি করেননি। 

আবুল হাসানের প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘রাজা যায় রাজা আসে’ প্রকাশিত হয় ১৯৭২ সালে। তার কিছুদিন পরেই বের হয় দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘যে তুমি হরণ করো’। হাসপাতালের বেডে শুয়ে আবুল হাসান তৃতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘পৃথক পালঙ্ক’র পাণ্ডুলিপি তৈরি করেন। মৃত্যুর দশ বছর পর ১৯৮৫ সালে প্রকাশিত হয় ‘আবুল হাসানের অগ্রন্থিত কবিতা’। 

কবি হলেও আবুল হাসান বেশ কিছু সার্থক ছোটগল্পও রচনা করেছেন। বেঁচে থাকতে তার কোনো গল্প-সংকলন প্রকাশিত হয়নি। ‘ওরা কয়েকজন’ নামে একটি কাব্যনাটক লিখেছিলেন।

১৯৭৫ সালের ২৬ নভেম্বর মাত্র আটাশ বছর বয়সে আবুল হাসান মারা যান। মৃত্যুর পর তিনি ১৯৭৫ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার এবং ১৯৮২ সালে একুশে পদক লাভ করেন। সংক্ষিপ্ত জীবনে মাত্র দশ বছরের সাহিত্য-সাধনায় সাহিত্যকর্মে অন্যন্যা এক অধ্যায় রচনা করেছেন। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম