Exim Bank Ltd.
ঢাকা, শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

একিলিস – গোড়ালিতে গলদ

শামস রহমানডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
একিলিস – গোড়ালিতে গলদ

ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের বিদঘুটে ইডিয়মস অ্যান্ড ফ্রেজ এর মধ্যে একটা ইডিয়ম আমাদের সবারই বেশ পরিচিত, একিলিস হিল। ইডিয়মটার অর্থ, দুর্বল স্থান বা দুর্বলতা। তো, কে এই একিলিস? আর তার হিল বা গোড়ালিতে সমস্যাটাই বা কোথায়?

একিলিস গ্রিক মিথোলজির অন্যতম বীর, ট্রোজান যুদ্ধের অন্যতম প্রধান চরিত্র এবং হোমারের “ইলিয়াড” এর অন্যতম নায়ক। একিলিসের মা থেটিসের প্রেমে পড়েছিলেন জিউস ও পসাইডন দুজনই, কিন্তু প্রমিথিউস তাদের দুজনকেই এই বলে সতর্ক করে দেন যে, থেটিসের ছেলে তার বাবাকে ছাড়িয়ে যাবে, ফলে পিছিয়ে যান দুজনেই। শেষ পর্যন্ত থেটিস এর বিয়ে হয় মিরমিডন্সের রাজা পেলিউসের সঙ্গে।

যখন একিলিস জন্ম নেন, তার মা তার মৃত্যু নিয়ে বেশ চিন্তিত হয়ে পড়েন, তাই তাকে নিয়ে যান স্টিক্স নদীতে, তাকে অমর করতে।কেননা ওই নদীর পানিই দেবতাদের অমর করতো। কিন্তু থেটিস এটি খেয়াল করেননি, গোড়ালি ধরে তাকে পানিতে ডোবানোয় একিলিসের গোড়ালিতে স্টিক্স নদীর পানির ছোয়া লাগেনি, ফলস্বরূপ সেটি থেকে গিয়েছিলো তার দেহের একমাত্র মরণশীল স্থান।

একিলিসের ৯ বছর বয়সে একজন ভবিষ্যতবক্তা পেলিউস ও থেটিসকে জানান তার ছেলে ট্রয়ের যুদ্ধে মারা যাবে। এই ভবিষ্যতবাণীতে ভয় পেয়ে ছেলেকে বাচাতে তারা দুজনে মেয়ে সাজিয়ে তাকে পাঠিয়ে দেন স্কিরস দ্বীপে, একিলিস বড় হন সেখানকার রাজার মেয়েদের সঙ্গে।

ট্রয়ের রাজপুত্র প্যারিস যখন গ্রিক রানী হেলেনকে নিয়ে পালিয়ে যান, গ্রিক রাজা মেনেলাউস ট্রয় আক্রমণ করার সিদ্ধান্ত নেন। গ্রিকরা যখন জানতে পারে একিলিস ছাড়া ট্রয় বিজয় সম্ভব নয়, তারা তাকে খুঁজতে শুরু করে। খুজে পাওয়া সম্পর্কে দুটি কাহিনি জানা যায়, প্রথমটিতে একটি যুদ্ধের শিঙা বাজানো হয়, যাতে সাড়া দেওয়া একমাত্র নারী ছিলেন একিলিস। অন্যটিতে, গ্রিকরা অস্ত্র এবং গহনা নিয়ে বণিক সেজে স্কিরসে পৌঁছোয় এবং একমাত্র একিলিস অস্ত্রের প্রতি আগ্রহ দেখায়।

শেষবার ছেলেকে বাচানোর প্রচেষ্টায় থেটিস স্বর্গীয় কর্মকার হেপাস্টাসকে বলেন এমন ঢাল ও শিরোন্ত্রাণ বানিয়ে দিতে যা তার ছেলেকে নিরাপদ রাখবে। কিন্তু অ্যাপোলোর বুদ্ধিতে হেপাস্টাস যে ঢালটি তৈরি করেছিলেন তা নিচের দিকে কয়েক ইঞ্চি ছোট ছিল। যুদ্ধের শুরুতে একিলিস ৫০টি জাহাজকে নেতৃত্ব দিতেন, যেগুলোর প্রত্যেকটিতে ছিলো ৫০ জন মিরমিডিয়ান। সে পাঁচ জন কমান্ডার নিয়োগ দেয় – মেনেস্থাস, ইউডোরাস, পেইসান্দার, ফিনিক্স ও আলসিমেডন।

এখান থেকেই হোমার তার ইলিয়াড শুরু করেছেন, সেখানে দেখা যায়, আগের এক যুদ্ধে বিজয়ী হওয়ার পর মেনেলাউসের ভাই এবং ট্রয়ের যুদ্ধে গ্রীকদের নেতা আগামেমনন অ্যাপোলোর এক পুরোহিতের মেয়ে ক্রিসেইসকে উপপত্নী হিসেবে গ্রহণ করেন। পুরোহিত তার মেয়েকে ফেরত চাইলে আগামেমনন উপহাস করেন এবং মানা করে দেন। ফলে পুরোহিত দেবতাদের কাছে সাহায্য ভিক্ষা করেন। এই ডাকে সাড়া দিয়ে অ্যাপোলো ছড়িয়ে দেন প্লেগ, মরতে থাকে একের পর এক গ্রিক সেনা। ভবিষ্যতদ্রস্টা ক্যালচাস এই প্লেগের কারণ খুজে বের করেন এবং আগোমেননকে বাধ্য করেন ক্রিসেইসকে ফেরত দিতে। আগামেমনন রাজী হন তবে একই সঙ্গে আরেকটি জট বাঁধিয়ে ফেলেন। তিনি একিলিসকে বলেন তার প্রিয় উপপত্নী ব্রিসেইসকে তার কাছে দিতে। নেতার আদেশ মানতে বাধ্য একিলিস ব্রিসেইসকে পরিত্যাগ করেন ঠিকই, কিন্তু অপমানে ক্রোধে একিলিস ঘোষণা দেন, তিনি আর গ্রিকদের পক্ষে লড়বেন না।

মরার উপরে খাড়ার ঘা হিসেবে একিলিস তার মা থেটিসকে বলেন জিউসকে রাজী করাতে, যেন তিনি ট্রোজানদের সাহায্য করেন। কাজ হয়, ট্রোজানরা গ্রিকদের পেছাতে বাধ্য করে, তাদের নিয়ে আসে সাগরতীরে। এসময় গ্রিকদের অবস্থা এতই বাজে হয় যে শেষ পর্যন্ত একিলিস তার বন্ধু প্যাট্রোক্লাসলে তার বর্ম আর রথ ধার দেন, যেন একিলিস এসেছে এই উদ্দীপনায় সৈন্যরা উজ্জীবিত হয় এবং একিলিসের ভয়ে ট্রোজানরা পালিয়ে যায়। কাজ হচ্ছিলো, কিন্তু ক্ষিপ্ত অ্যাপোলো অাবারো ট্রোজানদের সাহায্য করেন, ট্রয়ের রাজপুত্র হেক্টরকে সাহায্য করেন প্যাট্রোক্লাসকে মেরে ফেলতে।

প্রিয় বন্ধুর মৃত্যুতে অগ্নিশর্মা একিলিস প্রতিশোধের জন্য একের পর এক হত্যা করেন ট্রোজান সেনা, হেক্টরকে তাড়া করেন ট্রয় পর্যন্ত । হেক্টর একিলিসের সাথে সমঝোতার চেষ্টা করেন, কিন্তু একিলিসের সমঝোতার প্রতি কোন আগ্রহই ছিল না। একিলিস হত্যা করেন ট্রয়ের রাজপুত্রকে। মৃত্যুর আগে হেক্টর একিলিসের কাছে যথাযোগ্য সম্মানের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া প্রার্থনা করেন, কিন্তু একিলিস প্রতিপক্ষকে অপমান করতে বদ্ধপরিকর ছিলেন। তাই তিনি হেক্টরের মৃতদেহকে রথের পিছনে টেনে পুরো যুদ্ধক্ষেত্র ঘুড়িয়ে ফেলে দেন এক ময়লার স্তূপে। যদিও শেষ পর্যন্ত ট্রয়ের রাজা ও হেক্টরের বাবা প্রিয়ামের অনুরোধের পর যথাযথ শেষকৃত্যের জন্য হেক্টরের লাশ ফিরিয়ে দেন একিলিস।

হেক্টরের শেষকৃত্যের পর একিলিস আবার ট্রয়ে ফিরে আসেন। গ্রিকদের উপর তখনও ক্ষিপ্ত অ্যাপোলো হেক্টরের ভাই প্যারিসকে জানান, একিলিস আসছে। প্যারিস যোদ্ধা ছিলেন না, সাহসীও ছিলেন না। তাই তিনি সিদ্ধান্ত নেন, গোপনে হামলা করবেন তিনি। অসতর্ক একিলিসের দিকে প্যারিস ছুড়ে মারেন তীর। আর সেই তীরকে এগিয়ে নেন স্বয়ং অ্যাপোলো, ঠিক একিলিসের গোড়ালি বরাবর, যেখানে একিলিসকে স্টিক্স নদীর পানি ছোয়নি, যেখানে অমর একিলিস সাধারণ মানুষ। সত্য হয় মৃত্যুর সময় করা হেক্টরের ভবিষ্যতবাণী, প্যারিসের হাতে মৃত্যুবরণ করেন একিলিস, একটা যুদ্ধেও না হেরে। মৃত্যুর পর দাহ করা হয় একিলিসের দেহ, প্যাট্রোক্লাসের ছাইয়ের সঙ্গে মিলিয়ে দেওয়া হয় তার প্রিয় বন্ধুর দেহাবশেষ।

এভাবেই মৃত্যু বীর একিলিসের, গোড়ালিতে আঘাত পেয়ে। তাই এখনও কোন কিছুর দুর্বল স্থান বা দুর্বলতা প্রকাশ করতে আমরা ব্যবহার করি “একিলিস হিল”, এক সর্বজয়ীর করুণ মৃত্যুর কথা স্মরণ করতে ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসজেড

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন
রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
উচ্চতা বাড়ায় যেসব খাবার
উচ্চতা বাড়ায় যেসব খাবার
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
স্টিফেন হকিংয়ের পাঁচ ভয়ংকর ভবিষ্যদ্বাণী
স্টিফেন হকিংয়ের পাঁচ ভয়ংকর ভবিষ্যদ্বাণী
‘পবিত্র আশুরা’
‘পবিত্র আশুরা’
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
চাকরি না পাওয়ায় সুইসাইড নোট লিখে যুবকের আত্মহত্যা
চাকরি না পাওয়ায় সুইসাইড নোট লিখে যুবকের আত্মহত্যা
স্টিফেন হকিংয়ের জীবন বদলানো ১০ উক্তি
স্টিফেন হকিংয়ের জীবন বদলানো ১০ উক্তি
বিবাহিতা বা সন্তানের মা হলে ১০ লাখ জরিমানা!
বিবাহিতা বা সন্তানের মা হলে ১০ লাখ জরিমানা!
সর্বশেষ:
ইরানের আহবাজ শহরে সেনা প্যারেডে বন্দুকধারীর হামলা, আহত ২০ ইরানের আহবাজ শহরে সেনা প্যারেডে বন্দুকধারীর হামলা, আহত ২০ সড়ক পরিবহন আইনে যাত্রীদের অধিকার সম্পূর্ণ উপেক্ষা করা হয়েছে: যাত্রীকল্যাণ সমিতি সড়ক পরিবহন আইনে যাত্রীদের অধিকার সম্পূর্ণ উপেক্ষা করা হয়েছে: যাত্রীকল্যাণ সমিতি ২০১৮ শেষ অথবা ২০১৯’র শুরুতে জাতীয় নির্বাচন: সিইসি ২০১৮ শেষ অথবা ২০১৯’র শুরুতে জাতীয় নির্বাচন: সিইসি যশোরে ও বান্দরবানে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ যশোরে ও বান্দরবানে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ওসমান গণি মারা গেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ওসমান গণি মারা গেছেন তানজানিয়ায় ফেরি ডুবে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৬ তানজানিয়ায় ফেরি ডুবে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৬