ঢাকা, শুক্রবার   ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৯ ১৪২৫,   ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪০

সিলেটে জ্বলবে ১ হাজার সড়কবাতি

সিলেট প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ২০:১৩ ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ২০:১৩ ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

সিলেট নগরকে আলোকিত করতে বেশ কয়েকটি এলাকায় প্রায় ১ হাজার সড়কাবাতি স্থাপন করা হচ্ছে। এসব বাতির মধ্যে ১৩০টি সোলার পর্শন বাতি রয়েছে। যা বিদ্যুৎ না থাকলেও আলো দিবে। কমে আসবে চুরি, ছিনতােইয়ের মত অপরাধ। আর নগরের সড়ক আলোকিত করতে কাজ চালাচ্ছে সিলেট সিটি করপোরেশন।  

সিলেট সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা যায়, সিলেট মহানগরকে আলোকিত করতে ১৭ হাজার বাতি লাগানোর পয়েন্ট রয়েছে। সবমিলিয়ে বাতি লাগানো রয়েছে ১৫ হাজারের উপরে। নতুন করে আরও ১ হাজার ২টি সড়ক বাতি লাগানোর কাজ করছে এরইমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। ঢাকা থেকে টেন্ডার আহবান করে সিসিকের সুপারভিশনে কাজ চলছে। সিলেটে ১ হাজার ২টি সড়কবাতিই উন্নতমানের। এগুলোর মধ্যে নন সোলার এলইডি বাতি রয়েছে ৮৭২টি। সোলার পর্শন এলইডি বাতি রয়েছে ১৩০টি। বিদ্যুৎ না থাকলেও সোলার বাতিগুলো সড়ককে আলোকিত রাখতে সক্ষম। হাউজিং এস্টেট এলাকা থেকে সুবিদবাজার এলাকা পর্যন্ত সোলার বাতি লাগানো হবে। পাশাপাশি নন-সোলার বাতিগুলো বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী।

সিলেট সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, নতুন এক হাজার বাতি লাগানো হবে হুমায়ুন রশিদ চত্বর-আজাদ চত্বর হয়ে বঙ্গবীর সড়ক পর্যন্ত, মেন্দিবাগ থেকে বুরহান উদ্দিন মাজার হয়ে কুশিঘাট পর্যন্ত, টিলাগড় থেকে শাহী ঈদগাহ পর্যন্ত, হাউজিং এস্টেট থেকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত ও নগরের উপশহরের রোজভিউ হোটেল সংলগ্ন সড়ক থেকে শিবগঞ্জ সাফরন রেস্টুরেন্ট এলাকা পর্যন্ত। 

নগরে শুধু বাতি লাগালেই হবে না সেগুলো সংরক্ষণেও সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে বলে মনে করেন সিলেট কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এহছানুল হক তাহের। 

তিনি বলেন, নগরের সড়কে নতুন বাতি স্থাপন করা হচ্ছে এটা প্রশংসনীয় উদ্যোগ। তবে এসব বাতি সঠিকভাবে সংরক্ষণ করতে হবে। এসব বাতি সংরক্ষণ ও নষ্ট হলে যাতে দ্রুত পাল্টানো হয়।

সুজন সিলেটের সভাপতি ফারুক মাহমুদ বলেন, সড়কে পর্যাপ্ত বাতি লাগানো দরকার। সেই কাজ সিলেটে সিটি করপোরেশন আগে কয়েকবার করেছে। কিন্তু দেখা যায় কয়েকদিন পর বাতি অকেজো হয়ে গেলে কিংবা নষ্ট হলে তা আর ঠিক করা হয় না। এজন্য এসব ভালো প্রকল্পের সুবিধা নগরবাসী বেশিদিন উপভোগ করতে পারেন না। এজন্য তিনি সড়কবাতি গুলো রক্ষনাবেক্ষনের জন্য সিলেট সিটি করপোরেশনকে আরো দায়ীত্বশীল হওয়ার আহবান জানান।

সিলেট সিটি করপোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমান বলেন, সাতটি সিটি করপোরেশনের অংশ হিসেবে সিলেটেও বাতি লাগানোর কাজ চলছে। ঢাকা থেকে টেন্ডার আহবান করে সুপারভিশনের কাজ আমরা করে থাকি। আমাদের ১৭ হাজার লাইট লাগানোর পয়েন্ট রয়েছে তার মধ্যে ১৫ হাজারের উপরে লাইট লাগানো আছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম