Exim Bank Ltd.
ঢাকা, বুধবার ২৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০ মাঘ ১৪২৫

সমকামি মার্কিন বীর!

সাদাত হোসাইন সৌরভডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
সমকামি মার্কিন বীর!

মার্কিন সামরিক বাহিনীতে সমকামী পুরুষদের উপস্থিতি বরাবরই ছিল। সমকামিতা বৈধতার বহু পূর্বে, সামরিক বাহিনীর পুরুষরা একে অপরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব গড়ে তুলতো। পরবর্তীতে তারা একে অন্যের প্রেমে জড়াতো যা যৌন সম্পর্কের দিকে মোড় নিত। সামাজিক ও প্রশাসনিক বৈষম্যের কারণে তাদের অসংখ্য ঘটনা আমাদের অজানা রয়ে গিয়েছে। কিন্তু এমন একজন মহান যোদ্ধা ছিলেন যার জীবনের বড় একটি অংশ জুড়ে ছিল সমকামিতা। ব্যারন ফ্রেইডরিক ভন স্টুবেন একজন প্রুশিয়ান সেনা বিশেষজ্ঞ ছিলেন। যিনি যুদ্ধের দিনগুলোতে জর্জ ওয়শিংটনের সামরিক বাহিনীর জন্য প্ররোচনামূলক কর্মকান্ড চালান। এবং তার জন্যই সামরিক বাহিনীর মধ্যে সাহসিকতা, শৃঙ্খলা এবং দৃঢ়তা ফিরে আসে।

ইতিহাসবিদরাও মনে করেন যে তিনি সমকামি ছিলেন। তিনি এক সময়ে সামরিক বাহিনীতে অনেকটা খোলাখুলিভাবে সমকামিতা শুরু করেন। যখন পুরুষের সঙ্গে পুরুষের যৌন সম্পর্ক একটি অপরাধ ছিল। ইতিহাসবিদদের কলম থেকে জানা যায়, ‘বর্তমান আমেরিকানদের মধ্যে তার নামটি অল্প বিস্তর পরিচিত হলেও প্রতিটি মার্কিন সৈনিক ভন স্টুবেনের কাছে কৃতজ্ঞ- তিনি আমেরিকায় পেশাদার সেনাবাহিনী তৈরি করেন।’ কিন্তু এটা ততটা সহজ ছিল না। যুদ্ধের তিন বছর পর মার্কিন সেনাবাহিনীতে ছিল মনোবল, শৃঙ্খলা ও খাদ্য ঘাটতি। শুধুমাত্র তার কৌশলের জন্য, তার কঠোর অনুশীলন, ড্রিল দিয়ে তিনি সামরিক বাহিনীকে একটি পেশাদার বাহিনীতে পরিণত করেন।

ভন স্টুবেন ১৭বছর বয়সে সামরিক বাহিনীতে যোগ দেন এবং ফ্রেডেরিক গ্রেটের ব্যক্তিগত সহকর্মী হিসেবে কাজ শুরু করেন। কিন্তু তার সফল কর্মজীবন থাকা সত্ত্বেও ১৭৬৩ সালে আকস্মিকভাবে তিনি বরখাস্ত হন। পরবর্তীতে তিনি একটি বই ‘ইমপ্লেকেবল এনিমি’তে এ বিষয়ে লিখেছিলেন। সম্ভবত গুলি চালানোর কোনো ইস্যুকে কেন্দ্র করে তাকে বরখাস্ত হতে হয়। তবে ইতিহাসবিদরাও সঠিক কারণ সম্পর্কে অনিশ্চিত।

এদিকে, বরখাস্তের পর অস্থায়ীভাবে একটির পর একটি চাকরি করছিলেন ভন স্টুবেন। ফ্র্যাঙ্কলিনের পরামর্শে তিনি মার্কিন বাহিনীকে সাহায্য করার জন্য স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে যোগ দান করেন। সেসময়ে তিনি বেদেনের আদালতে আরেকটি সামরিক কাজের জন্য চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তার আবেদনটি অনাগ্রহের সঙ্গে দেখা হয়েছিল। কারণ একটি চিঠিতে স্টুবেনের সমকামিতার বিষয়ে অর্ত্যাৎ ছেলেদের সঙ্গে ‘আপত্তিকর মেলামেশা’ করা নিয়ে অভিযোগ উঠে।

ইতিহাসবিদ উইলিয়াম ই. বেনম্যান বলেছেন যে, কোনও ঐতিহাসিক প্রমাণ নেই যে স্টুবেন একজন যৌন নিপীড়নকারী ছিলেন। কিন্তু তিনি সমকামী ছিলেন। এবং তার এ সমকামিতা তার সহকর্মীদের অনেকেই অপচ্ছন্দ করতেন। এ বিষয় বেনম্যান লিখেছেন, ‘বন্ধুরা তাকে সাহায্য করার পরিবর্তে তাকে দেশ ছেড়ে পালানোর পরামর্শ দেয়। স্টুবেনও দেশ ছেড়ে পালাবার সিদ্ধান্ত নেন’।

ফ্র্যাঙ্কলিন সম্ভবত স্টুবেনের এ গুজব সম্পর্কে জানতেন এবং সেই কারণেই স্টুবেনের প্রস্তাব গ্রহণ করেন যা আগে প্রত্যাখ্যান করা হয়েছিল। তিনি তার ব্যক্তিগত জীবন পরিমাপ করেননি। পরিমাপ করেছিলেন সামরিক যোগ্যতা। ১৭৭৪ সালে ব্যারন ভন স্টুবেন ভ্যালি ফোর্জে পৌছান। জর্জ ওয়াশিংটনও তার এ অভিযোগের কথা জানতেন কিন্তু তিনি তার ক্যাম্পে ভন স্টুবেনকে স্বাগত জানান। তার সঙ্গে আলেকজান্ডার হ্যামিলটন ও জন লরেইন উভয়ই তাকে আমন্ত্রণ জানান। ঐতিহাসিকদের কাছে এটি ‘রোমান্টিক ফ্রেন্ডশিপ’-নামে পরিচিত।

যখন স্টুবেন ক্যাম্পে পৌছান তখন তিনি দেখেন সৈন্যরা যুদ্ধকালীন হতাশায় আক্রান্ত এবং নিজেদের মধ্যে বিবাদে জড়িয়ে পড়ছে। তিনি অবিলম্বে কঠোরভাবে বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করেন। তিনি একজন কঠোর ড্রিল মাস্টার ছিলেন। তবুও তিনি সৈন্যদের সঙ্গে আন্তরিক ছিলেন। স্টুবেন কেবল যৌন সম্পর্ক স্থাপন করতেন না বরং তিনি অন্যান্য পুরুষদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে মিশে যেতেন। তিনি উইলিয়াম নর্থ এবং বেঞ্জামিন ওয়াকারের ঘনিষ্ঠ হয়েছিলেন। ভন স্টুবেন সম্ভবত নর্থের সঙ্গে প্রেম এবং যৌন সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। যদিও এটি স্পষ্ট নয় যে তিনি ওয়াকারের কাছে কতটা ঘনিষ্ঠ ছিলেন।

ভন স্টুবেন নিজেকে সেনাবাহিনীর একজন বীর হিসেবে প্রমাণ করেন। ইন্সপেক্টর জেনারেল হিসাবে তিনি সেনাবাহিনীকে আরও দক্ষ যুদ্ধ কৌশল এবং শৃঙ্খলা শেখান। তার দেয়া প্রশিক্ষণের ধরণ ও সেনাবাহিনীর জন্য লেখা ড্রিল ম্যানুয়ালটি এখনও আংশিকভাবে মার্কিন সেনাবাহিনীতে ব্যবহার হয়।

ড্রিল মাস্টার দ্রুত ওয়াশিংটন এর সবচেয়ে বিশ্বস্ত পরামর্শদাতা হয়ে ওঠে, অবশেষে তাকে প্রধান স্টাফ হিসাবে দ্বায়িত্ব পালন করতে হয়। এখনও মার্কিনীরা ব্রিটিশবিরোধী বিপ্লবে জয়লাভের জন্য তাকে অন্যতম সাহায্যকারী হিসেবে বিবেচিত করেন। যুদ্ধ শেষে ভন স্টিভেনকে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব দেয়া হয়েছিল এবং নর্থ ও ওয়াকারের সঙ্গে তাকে নিউইয়র্কে বদলী করা হয়।

নর্থ লিখেছিলেন ‘আমরা তাকে ভালোবাসি এবং তিনি আমাদের ভালবাসা পাওয়ার যোগ্য কারণ তিনিও আমাদেরকে ভালোবাসেন। যুদ্ধের পর ভন স্টুবেনও তার এই দুই সঙ্গীকে সমকামী হিসেবে গ্রহণ করেছিলেন। তারা তিনজনেই একসঙ্গে বসবাস শুরু করেন। জন মিলিগানও ছিলেন একজন সমকামী। তিনি স্টুবেনের সেক্রেটারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ধারণা করা হয়, তিনিও অনৈতিক এ সম্পর্কে যুক্ত ছিলেন।

১৭৯৪ সালে স্টুবেন মারা যান। উত্তরাধিকার সুত্রে মিলিগান স্টুবেনের লাইব্রেরি এবং কিছু টাকা প্রাপ্ত হন। ভন স্টুবেন এর জীবনকালের সময়, সমকামী বিবাহের ধারণা ছিল অবিশ্বাস্য। সমকামিতা সেসময় কোনো খোলামেলা সংস্কৃতি ছিল না। তবে এর ইতিহাস সত্যিই অসাধারণ! সমকামিতা ছিল ঔপনিবেশিক আমেরিকায় একটি অপরাধ। ১৯ শতকের শেষ পর্যন্ত পুরুষদের মধ্যে বাড়তে থাকে সমকামিতা। ২০ শতকের প্রথম দিকে মার্কিন সৈন্যরা আনুষ্ঠানিকভাবে সমকামিদের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণ শুরু করে।

এলজিবিটি পরিসংখ্যান অনুসারে, আমেরিকার সবচেয়ে বেশি খোলামেলা সমকামি ছিলেন ভন স্টুবেন। সম্ভবত তিনিই একমাত্র সমকামি ব্যক্তি যিনি অগণিত মানুষের ভালোবাসা পেয়েছেন। তিনি মার্কিন সেনাবাহিনীর জন্য নিরলস পরিশ্রম করেছেন। তবুও তাঁর অবদান মানুষ আজ ভুলতে বসেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/সুইটি

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
নতুন হাইস্পিড রেলে ঢাকা থেকে ৫৪ মিনিটে চট্টগ্রাম
নতুন হাইস্পিড রেলে ঢাকা থেকে ৫৪ মিনিটে চট্টগ্রাম
সেলফিতে মাশরাফী দম্পতি
সেলফিতে মাশরাফী দম্পতি
বঙ্গোপসাগরে স্যাটেলাইট ট্রান্সমিটার যন্ত্রযুক্ত কচ্ছপ উদ্ধার
বঙ্গোপসাগরে স্যাটেলাইট ট্রান্সমিটার যন্ত্রযুক্ত কচ্ছপ উদ্ধার
বাংলাদেশের মাঝে এক টুকরো ‌'কাশ্মীর'!
বাংলাদেশের মাঝে এক টুকরো ‌'কাশ্মীর'!
‘মা’ গানে মাতালেন নোবেল, কাঁদালেন মঞ্চ (ভিডিও)
‘মা’ গানে মাতালেন নোবেল, কাঁদালেন মঞ্চ (ভিডিও)
মদের চেয়ে দুধ ক্ষতিকর: মার্কিন পুষ্টিবিদ
মদের চেয়ে দুধ ক্ষতিকর: মার্কিন পুষ্টিবিদ
পাসওয়ার্ড না দেয়ায় স্বামীকে পুড়িয়ে মারল স্ত্রী
পাসওয়ার্ড না দেয়ায় স্বামীকে পুড়িয়ে মারল স্ত্রী
বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শীর্ষে বাংলাদেশি পুরুষরা!
বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শীর্ষে বাংলাদেশি পুরুষরা!
স্ত্রীর ‘বিশেষ’ আবেদনে মলম মাখিয়ে বিপাকে স্বামী!
স্ত্রীর ‘বিশেষ’ আবেদনে মলম মাখিয়ে বিপাকে স্বামী!
সোমবার ‘চন্দ্রগ্রহণ’
সোমবার ‘চন্দ্রগ্রহণ’
শুধুই নারীসঙ্গ পেতে পর্যটকরা যেসব দেশে ভ্রমণ করেন
শুধুই নারীসঙ্গ পেতে পর্যটকরা যেসব দেশে ভ্রমণ করেন
মৃত মানুষের বাড়িতে কান্না করাই তাদের পেশা!
মৃত মানুষের বাড়িতে কান্না করাই তাদের পেশা!
স্ত্রীকে ভালোবাসার বিরল ঘটনা: ৫৫ হাজার পোশাক উপহার
স্ত্রীকে ভালোবাসার বিরল ঘটনা: ৫৫ হাজার পোশাক উপহার
পালিয়ে বিয়ে করলে আশ্রয় দেবে পুলিশ
পালিয়ে বিয়ে করলে আশ্রয় দেবে পুলিশ
বিয়ের খবর প্রকাশ করলেন সালমা
বিয়ের খবর প্রকাশ করলেন সালমা
বৃক্ষমানবের হাতে পায়ে ফের শেকড়
বৃক্ষমানবের হাতে পায়ে ফের শেকড়
বিষ খেয়ে হাসপাতালেই বিয়ে!
বিষ খেয়ে হাসপাতালেই বিয়ে!
পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ কাল
পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ কাল
স্থগিত শনিবারের ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন
স্থগিত শনিবারের ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন
শাহনাজের দুই মেয়ের দায়িত্ব নিচ্ছে উবার
শাহনাজের দুই মেয়ের দায়িত্ব নিচ্ছে উবার
শিরোনাম :
আগামী ১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান; ভোটগ্রহণ চলবে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত আগামী ১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান; ভোটগ্রহণ চলবে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত কুমিল্লার হত্যা মামলায় খালেদা জিয়ার আবেদন নাকচ, ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ হাইকোর্টের কুমিল্লার হত্যা মামলায় খালেদা জিয়ার আবেদন নাকচ, ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ হাইকোর্টের খুলনায় বিশেষ অভিযানে ১২ জন মাদক ব্যবসায়ীসহ অর্ধশতাধিক আটক খুলনায় বিশেষ অভিযানে ১২ জন মাদক ব্যবসায়ীসহ অর্ধশতাধিক আটক মণিরামপুরে যুবকের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার মণিরামপুরে যুবকের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার লক্ষ্মীপুরে ট্রাকের ধাক্কায় একই পরিবারের ছয় জনসহ প্রাণ গেল ৭ জনের লক্ষ্মীপুরে ট্রাকের ধাক্কায় একই পরিবারের ছয় জনসহ প্রাণ গেল ৭ জনের