মানিকগঞ্জের ঐতিহ্য ঝিটকার হাজারী গুড়

ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৬,   ১৯ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

মানিকগঞ্জের ঐতিহ্য ঝিটকার হাজারী গুড়

 প্রকাশিত: ১৭:৩৭ ১৫ নভেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৭:৩৭ ১৫ নভেম্বর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

‘লোক সঙ্গীত আর হাজারী গুড়, মানিকগঞ্জের প্রাণের সুর’। মানিকগঞ্জের শতবছরের ঐতিহ্য ঝিটকার হাজারী গুড়। দিনবদলের পালায় আর অসৎ ব্যবসায়ীদের জন্য এ বিখ্যাত গুড়ের ঐতিহ্য এখন বিলীনের পথে।

প্রায় ২০০ বছর আগে মানিকগঞ্জের ঝিটকা গ্রামে মোহাম্মদ আলী হাজারী নামে একজন দক্ষগাছী ছিলেন। দক্ষতা, সাধনা আর অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে আবিস্কার করেন সুস্বাদু সুগন্ধী গুড়। তার নাম অনুসারেই এ গুড়ের নাম রাখা হয় হাজারী গুড়। হাজারী পরিবারের সদস্যরা এখনো এ সুনাম অক্ষুন্ন রেখেছে। 

গুড় উৎপাদনের মৌসুম শীতকাল। শীত এলেই গুড়চাষিরা ব্যস্ত হয়ে পড়ে। পুরানো রসের হাড়ি আর গুড় তৈরীর যাবতীয় সরঞ্জাম নতুন করে ঝালাই করে তারা। 

এ ব্যপারে হাজারী পরিবারের সদস্য মো. তারেক হোসেনের বলেন,একসময় ইংল্যান্ডের রানীর জন্য উপহার হিসেবে এ হাজারী গুড় নেয়া হতো। হাজারী গুড়ের সেই সুনাম এখন আর নেই। নানা প্রতিকূলতার কারণে গুড় চাষীরা তাদের পেশা ছেড়ে অন্য পেশায় ঝুকে পড়েছে। এজন্য চাহিদা অনুযায়ী উৎপাদন অনেকটা হ্রাস পেয়েছে। তাছাড়া গ্রামগঞ্জের অপরিকল্পিত ভাবে গড়ে উঠেছে ইটভাটা। কিছু অসাধু ব্যবসায়ী ইটপুড়াতে খেজুর গাছ ব্যবহার করছে। ফলে কমে যাচ্ছে খেজুর গাছ এবং গুড় উৎপাদন।

খেজুরের রসের অভাবে গুড়ের সঙ্গে চিনি ও হাইড্রোস মিশিয়ে তা হাজারী গুড় বলে বাজারে বিক্রি হচ্ছে।
মানিকগঞ্জ বাজারের গুড় ব্যবসায়ী নাসীরউদ্দীন মুন্সী বলেন,শীত শুরু হয়েছে। গুড়চাষিরা গুড় উৎপাদনে ব্যস্ত। এককেজি হাজারী গুড়ের মূল্য ২০০ থেকে ৩০০ টাকা কেজি। আবার কোন কোন সময় ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা ও হয়। 

ঝিটকার গ্রামের গুড় চাষি ফজল আলী বলেন, চিনি মিশানো নকল হাজারী গুড়ে বাজার ছেয়ে গেছে। এসব গুড় প্রতিকেজি ৭০ থেকে ১০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

হাজারী গুড়ের ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য ২০১৭ সালে মানিকগঞ্জের ডিসি মো. নাজমুছ সাদাত সেলিমের সভাপতিত্বে মানিকগঞ্জ জেলা ব্র্যান্ডিং নামে একটি বই ছাপা হয়। ”লোক সঙ্গীত আর হাজারী গুড়.মানিনগঞ্জের প্রানের সুর’’ লোগো নির্মিত বইটির মাধ্যমেই বেঁচে থাকবে ঝিটকার ঐতিহ্যবাহী হাজারীগুড়ের নাম।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস

Best Electronics