Exim Bank Ltd.
ঢাকা, সোমবার ২২ অক্টোবর, ২০১৮, ৭ কার্তিক ১৪২৫

সালমান শাহ্‌

লেগ্যাসি অফ এ লেজেন্ড

মেহেদী হাসান মুনডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
লেগ্যাসি অফ এ লেজেন্ড
ছবি: সংগৃহিত

তুমি মোর জীবনের ভাবনা, হৃদয়ে সুখের দোলা,

নিজেকে আমি ভুলতে পারি, তোমাকে যাবে না ভোলা...

২২ বছর হয়ে গেলেও আমরা ভুলতে পারিনি সালমান শাহ্‌কে। ভুলতে পারিনি সেপ্টেম্বর মাসকে। সেদিন হুট করেই শোনা গেল সালমান শাহ্‌ নাকি আত্মহত্যা করেছে! সালমান শাহ্‌র সিনেমা দেখা লক্ষ লক্ষ মানুষ বিশ্বাস করতে পারছিল না পর্দায় দেখা সে হাসিখুশি মানুষটা আজ আর নেই। আর কখনো পর্দায় দেখা যাবে না স্বপ্নের সে নায়ককে। সেই মুচকি হাসি, লাজুক চাহনি, বিক্ষোভে ফেটে পড়া, অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হওয়া- এসব রূপে সালমান শাহ্‌কে আর দেখা হবে না কখনো। নিজস্ব স্টাইল আর অভিনয় দক্ষতা দিয়ে বাংলাদেশের সিনেমাপ্রেমী দর্শকদের মনে জায়গা করে নিয়েছিলেন সালমান, সে সালমান আজ আর নেই। সালমানের আর পৌঁছানো হল না তার স্বপ্নের ঠিকানায়।

না আমরা আজ তার চলে যাওয়া নয়, বরং স্মরণ করবো তার বেচে থাকাকে, তার জন্মদিনটাকে। কারণ সেপ্টেম্বর শুধু তার চলে যাওয়ার মাস নয়, তার জন্ম মাসও, আজ ১৯ সেপ্টেম্বর সালমান শাহর জন্মদিন।

----------------

শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন। জন্ম হয়েছিল তার বাংলাদেশ জন্ম হবার বছরেই, ১৯৭১ সালে, আজকের এই দিনে। নাটকে অভিনয় করা শুরু করেন ১৯৮৫ সালের দিকে। কিন্তু পাখির চোখ করেছিলেন যেনসিনেমাকেই। কী শাহরিয়ার চৌধুরী ইমনের নামটা অপরিচিত লাগছে? এই ইমনই হচ্ছেন আমাদের প্রিয় সালমান শাহ্‌। প্রখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক সোহানুর রহমান সোহানের হাত ধরে সালমান শাহ চলচ্চিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পান। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আনন্দ মেলা তিনটি হিন্দি ছবি 'সনম বেওয়াফা', 'দিল' ও 'কেয়ামত সে কেয়ামত তক' এর কপিরাইট নিয়ে সোহানুর রহমান সোহানের কাছে আসে এর যে কোন একটির বাংলা পুনঃনির্মাণ করার জন্য কিন্তু তিনি উক্ত ছবিগুলোর জন্য উপযুক্ত নায়ক-নায়িকা খুঁজে না পেয়ে সম্পূর্ণ নতুন মুখ দিয়ে ছবি নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেন। নায়িকা হিসেবে মৌসুমীকে নির্বাচিত করলেও নায়ক খুঁজে পাচ্ছিলেন না। তখন নায়ক আলমগীরের সাবেক স্ত্রী খোশনুর আলমগীর 'ইমন' এর সন্ধান দেন। প্রথম দেখাতেই তাকে পছন্দ করে ফেলেন পরিচালক এবং সনম বেওয়াফা ছবির জন্য প্রস্তাব দেন, কিন্তু যখন ইমন 'কেয়ামত সে কেয়ামত তক' ছবির কথা জানতে পারেন তখন তিনি উক্ত ছবিতে অভিনয়ের জন্য পীড়াপীড়ি করেন। তার কাছে কেয়ামত সে কেয়ামত তক ছবি এতই প্রিয় ছিলো যে তিনি মোট ২৬বার ছবিটি দেখেছেন বলে পরিচালক কে জানান। শেষ পর্যন্ত পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান তাকে নিয়ে কেয়ামত থেকে কেয়ামত চলচ্চিত্রটি নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেন এবং ইমনের নাম পরিবর্তন করে সালমান শাহ রাখা হয়।

এরপর তো পুরোটাই ইতিহাস। সংক্ষিপ্ততম সময়ে বাংলা চলচ্চিত্রে সুপারস্টার তকমা পাওয়া একমাত্র নায়ক সালমান শাহ্‌। আশির দশকের সফলতম পরিচালক এ জে মিন্টুর সহকারী হিসেবে কাজ করা সোহান এই সিনেমার মধ্য দিয়ে নব্বই দশকের অন্যতম ব্লকবাস্টার হিট উপহার দেন। টানা এক মাস হাউজফুল ব্যবসা করে অধিকাংশ হলগুলো। বাংলা চলচ্চিত্র ও বাংলা চলচ্চিত্রের দর্শকরা শুনতে পায় এক মহানায়কের পদধ্বনি। সফলতা যার পা চুমে গেছে সবসময়।

সালমান-মৌসুমি জুটি যখন জনপ্রিয়তার তুঙ্গে ঠিক সে সময় পরিচালক জহিরুল হক সিদ্ধান্ত নেন শাবনূরকে কাস্ট করবেন সালমানের অপোজিটে। শাবনূরও তখন নতুন মুখ বাংলা চলচ্চিত্রে, এহতেশামের হাত ধরে আসা শাবনূরের প্রথম ছবিই ব্যর্থ ছিল বক্স অফিসে। তাই অনেকেই সন্দিহান ছিল যে সালমানের সঙ্গে শাবনূরের জুটি দর্শক মেনে নেবে কী না! কিন্তু ‘তুমি আমার’ সিনেমায় সালমান-শাবনূরকে দর্শক গ্রহণ করলো দু'হাত ভরে। শিবলি সাদিকের ‘অন্তরে অন্তরে’ সালমান শাহ্‌র সুপারস্টারডমকে যেন আরও পোক্ত করে দেয়। সালমান-মৌসুমির হিট জুটি আবার রিপিট করেন শিবলি সাদিক। সারপ্রাইজ প্যাকেজ হিসেবে পজেটিভ চরিত্রে থাকেন রাজিব। দর্শক হুমড়ি খেয়ে পড়ে হলগুলোতে। আলম খানের সুপারহিট সব গান ছিল সকলের মুখে মুখে। টানা ৩টি সুপারহিট দিয়ে সালমান শাহ্‌ তখন বাংলা চলচ্চিত্রের নতুন কাণ্ডারি হিসেবে অবতীর্ণ হয়েছে।

১৯৭৫ সালে খান আতা প্রমোদ কর ছদ্মনামে ফারুক ও কবরীকে নিয়ে নির্মাণ করেছিলেন অলটাইম রোম্যান্টিক ক্লাসিক ‘সুজন সখী’। সে সিনেমাকেই সালমান-শাবনূর জুটিকে নিয়ে রিমেক করার ঘোষণা দেন জহিরুল হক। কিন্তু সিনেমা নির্মাণের সময় তার প্রয়াণ ঘটে। তবুও সিনেমার কাজ শেষ হয়, যার চিত্রনাট্য লিখেন খান আতা নিজেই। গ্রামীন প্রেক্ষাপটে সালমান-শাবনূরকে দর্শক যেন লুফে নেয়, পুরোনো সুপারহিট গান যেন আবার মুখে মুখে রটে যায়। সালমান প্রমাণ করে দেন তার অভিনয় দক্ষতা;শহুরে ধনাঢ্য যুবক হোক ও আর গ্রামীণ খেটে খাওয়া মাঝির চরিত্র, দু ক্ষেত্রেই যে তিনি কনভিন্সিং ও দক্ষ। ‘বিক্ষোভ’ সিনেমার মাধ্যমে সালমানকে প্রথম আউট এন্ড আউট রোম্যান্টিক ঘরানার বাইরে গিয়ে ভিন্ন কিছু করতে দেখা যায়। স্বৈরতন্ত্রের পতনের পর সে সময়ে রাজনীতি সচেতন দর্শক অনেক বেশিই ছিল, তাই বিক্ষোভে ছাত্র রাজনীতি কমার্শিয়াল এলেমেন্টে পরিপূর্ণ হয়ে দর্শককে তৃপ্তির ঢেকুর তুলে দিয়েছিল। সেরকম রিলেটেবল পরিস্থিততে রিলেটেবল নায়ক হিসেবে সালমানকে দেখা দর্শকদের যেন নতুনত্বের স্বাদ দিয়েছিল।

এরপর একে একে সালমান বৃত্ত ভাঙতে থাকেন আর সফলতার স্বর্ণশিখর ছুঁতে থাকেন। স্নেহ, দেনমোহর, মহামিলন দিয়ে নিজের সুপারস্টারডম পোক্ত করছিলেন সালমান। আর ‘স্বপ্নের ঠিকানা’ দিয়ে তো তিনি সাফল্যের সর্বোচ্চ সীমাকেই যেন ভেঙে ফেললেন। এম এ খালেকের এই সিনেমা সালমানকে নব্বই দশকের এমনকি বাংলা চলচ্চিত্র ইতিহাসের অন্যতম সফল নায়ক হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে দেয়। সালমান-শাবনূর জুটি তখন ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা জুটির তকমা পেয়ে যায়। ৩৫ এম এম ফরম্যাটে সিনেমাটি তৈরি হওয়ায় দর্শকদের জন্যও ছিল সেটি নতুন এক অভিজ্ঞতা। বিচার হবে, তোমাকে চাই- সালমানকে দেখার জন্যই যেন ভিড় লেগে যেত প্রতিবার হলগুলোর সামনে।

বাণিজ্যিক ছবিই যে কেবল করতেন সালমান শাহ্‌, তা কিন্তু নয়। প্রতিবার তিনি নিজে থেকে এক্সপেরিমেন্ট করেছেন, দর্শকদের নতুন কন্টেন্টের সঙ্গে পরিচয় করে দিতে চেয়েছেন। নইলে মালেক আফসারীর ‘এই ঘর এই সংসার’ এর মতো পারিবারিক সিনেমা সালমান ক্যারিয়ারের এমন তুঙ্গে থাকা অবস্থায় করবার আত্মবিশ্বাস পেতেন না। স্বপ্নের পৃথিবী, সত্যের মৃত্যু নাই- এই চলচ্চিত্রগুলো মানুষ বারবার হলে গিয়ে দেখেছে কেবল সালমানকে দেখার জন্যই। এতো জনপ্রিয়তা, এতো ক্রেজি ফ্যানবেইজ আর কোন নায়ক হয়তো উপভোগ করে যেতে পারেন নি। সেই সালমান অধ্যায়ের সমাপ্তি এতোটা কালো হবে কে জানতো!

জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা অবস্থাতেই সালমান বিয়ে করেছিলেন সামিরাকে। কাজের ব্যস্ততায় সালমানের যেন নিঃশ্বাস ফেলারও সুযোগ ছিল না সেসময়। সিনেমায় সফল হয়ে টিভি নাটকেও মাঝে মাঝে উঁকি দিয়ে যেতেন সালমান। মন মানে না সিনেমাটির অর্ধেক কাজ শেষ করে রেখে সালমান সেপ্টেম্বর মাসের এক সন্ধ্যায় শুটিং স্পট থেকে বাসায় ফিরে আসেন। সে যে ফিরে আসলেন আর বের হলেন না সালমান। কোন সিনেমার শুটিং এ আর দেখা গেল না তাকে, ক্যামেরা আর খুঁজে পেলো না কখনো সালমানের লাজুক চাহনি। সালমান আত্মহত্যা করেছেন, এই খবর চাউর হবার সঙ্গে সঙ্গেই পুরো দেশজুড়ে থমথমে অবস্থা, দানা বাঁধা শুরু করে সন্দেহ-গুজব। তারপর দানা বাঁধা কষ্ট বুক চেপে ধরে একটা সময় গিয়ে।

সালমানের প্রয়াণের এতো বছর পরও কেন মানুষ তাকে মনে রেখেছে? কারণ তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের স্বর্ণালী সময়টাকে দেখিয়ে গিয়েছিলেন চোখে আঙুল দিয়ে। জানিয়ে গিয়েছিলেন অভিনয়-স্টাইল-জনপ্রিয়তায় উপমহাদেশ খানদের পাবার আগেই শাহ্‌কে পেতে পারতো। বাংলা চলচ্চিত্র নিয়ে গৌরবের একটা জায়গায় পৌঁছাতেও হয়তো পারতো যদি সালমান শাহ্‌ থাকতো। এতোসব আক্ষেপের জন্ম দিয়ে আর কোটি মানুষের ভালোবাসা নিয়ে সালমান শাহ্‌ হয়তো আছেন এখন দূরে কোথাও কিন্তু আমরা আজও মনে রেখেছি তাকে কারণ- তুমি আমার এমনই একজন, যাকে এক জনমে ভালোবেসে ভরবে না এ মন...

ডেইলি বাংলাদেশ/এসজেড

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
আজো হিমঘরে সন্তানের প্রতীক্ষায় ‘বাবা’!
আজো হিমঘরে সন্তানের প্রতীক্ষায় ‘বাবা’!
আইয়ুব বাচ্চু মারা গেছেন
আইয়ুব বাচ্চু মারা গেছেন
দুই স্বামীকে ‘ছেড়ে’ মন্ট্রিলে দেখা মিলল তিন্নির!
দুই স্বামীকে ‘ছেড়ে’ মন্ট্রিলে দেখা মিলল তিন্নির!
না ফেরার দেশে সালমানের ‘শেষ প্রেমিকা’
না ফেরার দেশে সালমানের ‘শেষ প্রেমিকা’
প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার সময়সূচি
প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার সময়সূচি
যেভাবে প্রথম বুবলীর ‘ভাই’
যেভাবে প্রথম বুবলীর ‘ভাই’
স্ত্রী ফিরে দেখে বাসায় অন্য নারী!
স্ত্রী ফিরে দেখে বাসায় অন্য নারী!
‘ওয়েব সিরিজে ভরপুর নগ্নতা’ দেখার কেউ নেই!
‘ওয়েব সিরিজে ভরপুর নগ্নতা’ দেখার কেউ নেই!
দাম শুনলে চমকে যাবেন যে কেউই!
দাম শুনলে চমকে যাবেন যে কেউই!
মৃত্যুর আগে কোথায় ছিলেন আইয়ুব বাচ্চু?
মৃত্যুর আগে কোথায় ছিলেন আইয়ুব বাচ্চু?
অনেকেই সাবান জমান কেউ গোসলই করেন না!
অনেকেই সাবান জমান কেউ গোসলই করেন না!
এক উঠোনে মসজিদ-মন্দির, প্রার্থনায় নেই বিবাদ
এক উঠোনে মসজিদ-মন্দির, প্রার্থনায় নেই বিবাদ
দুলাভাইয়ের কাছে শ্যালিকার আবদার!
দুলাভাইয়ের কাছে শ্যালিকার আবদার!
বন্ধুর ‘অকাল প্রয়াণে’ যা বললেন হাসান
বন্ধুর ‘অকাল প্রয়াণে’ যা বললেন হাসান
এবার মেয়েকে নিয়ে মারাত্মক কথা বললেন ঐশ্বরিয়া!
এবার মেয়েকে নিয়ে মারাত্মক কথা বললেন ঐশ্বরিয়া!
‘বেঁচে আছেন বাচ্চু?’ এ কী শোনালেন!
‘বেঁচে আছেন বাচ্চু?’ এ কী শোনালেন!
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বাচ্চুর ৬০টি গিটার!
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বাচ্চুর ৬০টি গিটার!
১ কোটি টাকা চেয়েছিলেন অনন্ত
১ কোটি টাকা চেয়েছিলেন অনন্ত
মিলনেই মৃত্যু, কারা ছিলো সেই ‘বিষকন্যা’?
মিলনেই মৃত্যু, কারা ছিলো সেই ‘বিষকন্যা’?
কাদের ওপর চটেছেন জেমস?
কাদের ওপর চটেছেন জেমস?
শিরোনাম:
বাংলাদেশ দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন বাংলাদেশ দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়েকে হারাল টাইগাররা ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়েকে হারাল টাইগাররা