আগৈলঝাড়ায় নির্যাতিতা সীমাকে প্রশাসনে সহযোগিতা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৯ ১৪২৬,   ১৭ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

আগৈলঝাড়ায় নির্যাতিতা সীমাকে প্রশাসনে সহযোগিতা

 প্রকাশিত: ২১:১৯ ১৩ নভেম্বর ২০১৮   আপডেট: ২১:১৯ ১৩ নভেম্বর ২০১৮

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

যৌতুকের জন্য স্বামীর নির্যাতনের স্বীকার গৃহবধূ সীমাকে ইউএনও বিপুল চন্দ্র দাস সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

উপজেলার বাকাল গ্রামের মৃত তাজেম হাওলাদারের মেয়ে সীমা বেগম। পাঁচ বছর পূর্বে পূর্ব সুজনকাঠী গ্রামের ইউনুস সরদারের ছেলে মো.সোহাগ সরদারের সঙ্গে সামাজিকভাবে বিভিন্ন উপঢৌকন দিয়ে তার বিয়ে হয়। বিয়ের কিছু দিন পর জানতে পারে সোহাগ ইয়াবাসেবী।

তার সঙ্গে বিয়ের আগে সোহাগ আরো পাঁচটি বিয়ে করেছে। বিয়ের পর থেকেই অকারণে সোহাগ মাদক সেবন করে সীমার উপর নির্যাতন করে। এরই মধ্যে হাবিবা নামে তাদের ঘরে এক কন্যা শিশুর জন্ম হয়।

বর্তমানে স্বামীর নির্যাতনের শিকার থেকে সীমা বেগম প্রাণে বাঁচাতে গত দুই মাস আগে ভাই ও বিবাহিতা বোনের সংসারে আশ্রায় নিয়েছে। নির্যাতরে প্রতিকার চেয়ে স্বামীর ঘরে ফিরতে সংশ্লিষ্ঠ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে।

বিষয়টি ইউএনও বিপুল চন্দ্র দাস জানতে পেরে মঙ্গলবার সকালে নির্যাতিতা সীমাকে আর্থিক সহযোগিতা করে। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে প্রশিক্ষন দিয়ে সেলাই মেশিন দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসকে

Best Electronics