ঢাকা, শুক্রবার   ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৯ ১৪২৫,   ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪০

‘নির্বাচনে না থাকার প্রশ্ন আনবেন না’

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১৫:৪৬ ৭ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৫:৪৬ ৭ ডিসেম্বর ২০১৮

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার বিষয়ে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, কোনো ক্রমেই প্রশ্ন আনবেন না, নির্বাচনে থাকবো না বা থাকছি না।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী চালক দলের উদ্যোগে ‘নির্বাচন ব্যর্থ ও প্রশ্নবিদ্ধ হলে গণতন্ত্রের কি হবে?’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি।

জনগণ বোকা না, সরকারের চোখে ছানি পড়েছে, কিন্তু জনগণের চোখ খোলা আছে উল্লেখ করে জাফরুল্লাহ বলেন, উন্নয়ন দেখিয়ে নির্বাচনকে কব্জায় নেয়ার যতোই চেষ্টা করেন না কেনো; আপনাদের (ক্ষমতাসীনদের) সব পরিকল্পনা ব্যর্থ হবে। বিনা বিচারে হত্যা, গুম, খুন এসব উন্নয়নেই নৌকা ডুববে।

তিনি বলেন, এই সরকারের মৃত্যু ঘণ্টা বেজে গেছে। মৃত্যুর নৌকা ডুবে যাচ্ছে ৩০ তারিখেই। এক্ষেত্রে আপনাদের একটি মাত্র কাজ ভোটকেন্দ্রে আর ভয় নয়। সব ভয় শেষ হয়ে গেছে। 

তিনি বলেন, আমি খালেদা জিয়ার প্রতি কোন দয়া চাই না, মুক্তিও চাই না তার প্রতি সুবিচার চাই। সুবিচার হলেই তিনি মুক্তি পাবেন। ৩০ ডিসেম্বর হবে নির্বাচন আর বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন ২ জানুয়ারি।
 
শত অত্যাচারের মধ্যেও লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক বলেন, জোর গলায় বক্তব্য দিয়ে কোনো লাভ হবে না। ৫ বছর আমরা কিছুই করতে পারিনি।  

তিনি বলেন, ড. কামাল হোসেনের মতো নেতারা যখনই গণতন্ত্র পুণরুদ্ধারে আন্দোলন শুরু করেছে; তখনই আওয়ামী লীগ ষড়যন্ত্র করেছে। তাই এখন আর তাদের কাছে অভিযোগ করে কোনো লাভ হবে না। কেননা সংলাপে তো স্বীকার করেই এসেছেন নির্বাচনে যাব। 

সংগঠনের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন কবির সভাপতিত্বে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপিরসহ সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, রফিকুল ইসলাম বাবলু, দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/এএইচ/এমআরকে