.ঢাকা, রোববার   ২১ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ৭ ১৪২৬,   ১৫ শা'বান ১৪৪০

​প্রেম নাকি বন্ধুত্ব?

 প্রকাশিত: ১৩:৩১ ৯ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ১৩:৩১ ৯ অক্টোবর ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

কিছুদিন আগে সালমান খান ও শিল্পা শেঠিকে নিয়ে একটি গুঞ্জন বেশ আলোচনায় আসে। তাতে শোনা যায়, সালমান নাকি মাঝরাতে শিল্পার বাসায় যেতেন!

এরপর থেকে বলিউড পাড়া সরগরম। এই দুই তারকা ছাড়া কারা কারা এই ধরণের গভীর সম্পর্কে জড়িয়ে ছিলেন তাদের নিয়েও এরই মধ্যে তুমুল আলোচনা সমালোচনা শুরু হয়েছে।

আজ ডেইলি বাংলাদেশের পাঠকদের জানাবো এমনই কিছু ঘনিষ্ঠ বন্ধুর খবর, যারা প্রেমিক না হয়েও নায়িকাদের বাসায় দুই একদিন থেকে যেতেন।  

সালমান-শিল্পা:

সম্প্রতি প্রকাশিত সালমান-শিল্পার সেই সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুলেছেন নায়িকা। বললেন, সালমানের সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব ছিল। এখনো তাই আছে। কিন্তু তার সঙ্গে আমি কখনো ডেট করিনি।

আসলে তখনকার সময়ে সহকর্মীদের মধ্যে আস্থা এবং অন্তরঙ্গতা ছিল গভীর, যা এখন নেই। সালমান আসলে খুব ভাল মানুষ। আমাদের এত গভীর সম্পর্ক যে, মাঝরাতে সালমান বেশ কয়েকবার আমার বাড়িতে এসেছে! যখন আমি ঘুমিয়ে পড়েছি। ও আমার বাবার সঙ্গে বসে মদ্যপান করেছে।

আমার এখনো মনে আছে, বাবা মারা যাওয়ার পর আমাদের বাড়িতে এসে ও সোজা বার টেবিলে গিয়ে মাথা নিচু করে কেঁদে ফেলেছিল। সালমান কতটা ভালো মানুষ ছিল, সেটা তার কাছের বন্ধুরা ছাড়া কেউ হয়ত বুঝতে পারবে না।

আলিয়া ভাট-সিদ্ধার্থ মালহোত্রা:

আলিয়া ভাট-সিদ্ধার্থ মালহোত্রাকে নিয়েও প্রেমের গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল। তারা একসঙ্গে ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’সহ পরপর দু’টি ছবিতে অভিনয় করার পর দু’জনকে নিয়ে এমন গুঞ্জন ওঠে। কিন্তু পরে আলিয়া-রণবীরের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে গেলে গুঞ্জন থেকে অনেকটা পরিত্রাণ পান এই তারকা।

কিন্তু এখনো সিদ্ধার্থ মালহোত্রাকে আলিয়ার ‘এক্স’ বলা হয়। তারো একটি কারণ আছে, এই নায়ক নাকি মাঝে মাঝে আলিয়ার বাসায় গিয়ে দু’একদিন থেকেও যেতেন। কারণ তার পরিবারের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক ছিল সিদ্ধার্থের। যার ফলে তাদের মধ্যে অবৈধ সম্পর্কও হয়েছে বলে অনেকের ধারণা। অথচ বিষয়টি নাকি কার্যত তেমন নয়। আলিয়া বরাবরই সিদ্ধার্থের ভালো বন্ধু ছিলেন।

শাহরুখ খান-জুহি চাওলা:

বলিউডের চিরসবুজ বন্ধু জুটি শাহরুখ খান-জুহি চাওলা। দু’জনের বন্ধুত্ব একেবারে পারিবারিক। ‘রাজু বনগয়া জেন্টলম্যান’ ছবি  থেকেই নাকি দু’জনের গভীর সম্পর্ক গড়ে উঠে। ভালো একটি সখ্যতাও তৈরি হয় তাদের মধ্যে। এমনকি তারা একসঙ্গে একটি ব্যবসায়িক উদ্যোগেও সামিল হন। তাছাড়া একসঙ্গে কিনে নেন ‘নাইট রাইডার্স’ দলটি।

রণবীর সিং-পরিচালক জোয়া আখতার:

রণবীর সিং-পরিচালক জোয়া আখতারের বন্ধুত্ব নানা কারণেই সমালোচিত। নির্মাতা জোয়ার পরিচালনায় ‘দিল ধড়কনে দো’ সিনেমায় অভিনয়ের সময় থেকেই আলোচনায় আসে তাদের বন্ধুত্ব। তাছাড়া সামনে তার (জোয়ার) ‘গালি বয়’ সিনেমায় আবারো দেখা যাবে রণবীরকে।

করণ জোহর-টুইংকেল খান্না:

বিশিষ্ট বলিউড নির্মাতা করণ জোহরের সঙ্গে অভিনেত্রী টুইংকেল খান্নার বন্ধুত্ব অনেক আগের। এখনো বহাল রয়েছে তাদের সেই সম্পর্ক। যদিও একসময় তাদের নিয়ে নানা রটনা রটে। মহারাষ্ট্রের বোর্ডিং স্কুলে একসঙ্গে পড়ার সময় থেকেই নাকি তাদের মধ্যে সখ্যতা গড়ে ওঠে। এরপর সুখে-দুঃখে তারা একে অপরের পাশে দাঁড়ায়।

করণ জোহর-কারিনা:

করণ জোহর শুধু টুইংকেল খান্না নয় বরং বেশ ভালো বন্ধু কারিনারও। ‘কাল হো না হো’ ছবিতে প্রথম অভিনয়ের জন্য কারিনাকে প্রস্তাব দিয়েছেলেন করণ। কিন্তু তখন সে প্রস্তাবে সাড়া না দিলেও পরে তার ‘কাভি খুশি কাভি গাম’ ছবিতে অভিনয় করেন কারিনা।

সেই থেকে তাদের বন্ধুত্বের শুরু। এখনো রয়েছে তাদের সেই সম্পর্ক। করণকে নিজের দার্শনিক ও অবিভাবক মানেন তিনি।

কারিনা-মনীশ মালহোত্রা:

কারিনার আরেক বন্ধু বলিউডের প্রখ্যাত পোশাক ডিজাইনার মনীশ মালহোত্রা। তার নকশা করা বিয়ের পোশাকেই পতৌদির নবাব তথা বলিউডের অভিনেতা সাইফ আলী খানের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছেন নায়িকা কারিনা।

টাইগার শ্রফ ও শ্রদ্ধা কাপুর:

টাইগার শ্রফ ও শ্রদ্ধা কাপুরের বন্ধুত্বও অনেক আগের। স্কুল জীবনে তাদের সম্পর্কের শুরু। মূলত মুম্বাই থাকাকালীন তারা দুজনই একই স্কুলের একই ক্লাসে পড়াশোনা করেছেন।

শাহরুখ-কাজল:

বলিউডের কঠিন জুটি ছিলেন শাহরুখ-কাজল। তাদের সিনেমা মানেই ছিল চরম রোম্যান্টিক কিছু! ওইসময় তাদের অভিনীত ছবি ও সিন দেখে অনেকেই মনে করতেন তারা স্বামী-স্ত্রী অথবা প্রেমিক-প্রেমিকা! তবে আরেক নায়ক অজয় দেবগন-কাজলকে বিয়ে পর সকলের ধারণা পাল্টে যায়। এরপর থেকে সবাই বুঝতে পারেন তাদের মধ্যে শুধুই বন্ধুত্ব।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ