Alexa ৭৩৭-ম্যাক্স বিমান ইথিওপিয়া ও চীনে বাতিল

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৬ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ২ ১৪২৬,   ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪০

বোয়িংয়ের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন

৭৩৭-ম্যাক্স বিমান ইথিওপিয়া ও চীনে বাতিল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৪০ ১১ মার্চ ২০১৯   আপডেট: ১৮:৪১ ১১ মার্চ ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বের খ্যাতনামা বিমান নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির নতুন মডেল ৭৩৭ ম্যাক্স ব্যবহার বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে ইথিওপিয়া ও চীন।

রোববার ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের ‘ফ্লাইট ইটি-৩০২’ বোয়িং ৭৩৭-ম্যাক্স মডেলের একটি বিমান ১৪৯ জন যাত্রী ও ৮ জন ক্রুসহ বিধ্বস্ত হয়।  এটি রাজধানী ইদ্দিস আবাবা থেকে কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবি যাচ্ছিল। এ ঘটনায় বিমানটির ১৫৭ জনের সবাই নিহত হন।

বিমানটি উড্ডয়নের ৬ মিনিট পরেই বিধ্বস্ত হয়েছিল। দুর্ঘটনার প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, কারিগরি ত্রুটির কারণেই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। ফলে এ মডেলের বিমানটির নিরাপত্তা নিয়ে ব্যাপক সংশয় দেখা দিয়েছে।

এদিকে এই দুর্ঘটনার পরই ইথিওপিয়া ও চীনা সরকার ভবিষ্যতে এই মডেলের বিমান ব্যবহার বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়। এর আগে ২০১৮ সালের অক্টোবরে ইন্দোনেশিয়ার জনপ্রিয় বিমান সংস্থা লায়ন এয়ারলাইন্সের আরেকটি বিমান জাভা সাগরে বিধ্বস্ত হয়ে ১৮৯ জন নিহত হয়েছিল। সেই বিমানটিও ছিলো বোয়িং-৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের।

এ নিয়ে গেল ৫ মাসে বোয়িংয়ের দুটি ৭৩৭-ম্যাক্স মডেলের বিমান বিধ্বস্ত হলো। আর এ ঘটনা দুটিতে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ৩৪৬ জন লোক।

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় বাণিজ্যিক বিমানের নাম বোয়িং-৭৩৭। এটিরই সর্বশেষ সংস্করণ ‘বোয়িং-৭৩৭ ম্যাক্স’। উৎপাদন শুরুর কিছুদিন পর থেকেই বিতর্ক শুরু হয় মডেলটি নিয়ে।

গেল ৭ মার্চ মার্কিন সংস্থা আমেরিকান এয়ারলাইন্স ঘোষণা দেয়, বোয়িং-৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের সদ্য কেনা ১৪টি বিমান আর ব্যবহার করবে না। কারণ হিসেবে বলা হয়, এই মডেলের বিমানটির বেশকিছু যন্ত্র ঠিকভাবে বসানো হয়নি। এই ঘোষণার মাত্র ৩ দিন পরই ইথিওপিয়ায় ১৫৭ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো বোয়িং-৭৩৭ ম্যাক্স।

বিবিসিকে এভিয়েশন বিষয়ক সংবাদ সংস্থা ‘ফ্লাইট গ্লোবাল’র গ্রুপ সম্পাদক কিংসলে জোনস বলেন, ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন ছিল আফ্রিকার মুকুট। সারা বিশ্বের বিমান চালনার সঙ্গে যুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো এটিকে শ্রদ্ধার দৃষ্টিতে দেখত। এর এভাবে এত বড় দুর্ঘটনায় পড়া বিস্ময়কর।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী/জেডআর