Alexa ৬ মুসলিম প্রধান দেশের বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর

ঢাকা, রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ২ ১৪২৬,   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

৬ মুসলিম প্রধান দেশের বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর

 প্রকাশিত: ০৯:৪৯ ৩০ জুন ২০১৭   আপডেট: ১৯:৪৩ ৯ অক্টোবর ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রে কার্যকর হলো ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা।

যুক্তরাষ্ট্রে কার্যকর হলো ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা।

যুক্তরাষ্ট্রে অবশেষে কার্যকর হলো ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা। দেশটির রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিতর্কিত এই ভ্রমণ নিষেজ্ঞার কারণে ছয়টি মুসলিম প্রধান দেশের নাগরিক এবং শরণার্থীদের জন্য এখন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করা বেশ কঠিন হয়ে পড়লো। ইরান, লিবিয়া, সিরিয়া, সোমালিয়া, সুদান এবং ইয়েমেনের নাগরিক এবং যে কোনো দেশের শরণার্থীদের ওপর এই নতুন নীতি কার্যকর করা হবে বলে বৃহস্পতিবার মার্কিন সরকারের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

বিবিসি জানায়, বৃহস্পতিবার উল্লেখিত ছয়টি মুসলিম দেশের নাগরিক এবং শরণার্থীদের জন্য ভিসায় নতুন নিয়ম-নীতি এনেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর আগে ওই মুসলিম প্রধান দেশগুলোর নাগরিকদের ওপর যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন ট্রাম্প। পরে একটি মার্কিন নিম্ন আদালত ওই নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করেছিল। তবে নয়া বিধিতে ওই ছয় দেশের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ঠ পারিবারিক এবং ব্যবসায়িক সম্পর্কের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এই ছয় দেশের নাগরিকদের মধ্যে যারা যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন এমন কারও বাবা-মা, স্বামী-স্ত্রী, সন্তান, মেয়েজামাই বা ছেলের স্ত্রী, ভাই-বোন অর্থাৎ পরিবারের কোনো সদস্য ছাড়া অন্য কেউ আগামী ৯০ দিনের মধ্যে দেশটিতে প্রবেশ করতে পারবেন না।

নতুন নীতির কারণে পারিবারিক বা ব্যবসায়িক সম্পর্ক ছাড়া কেউ যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন না। তাদের ভিসা দেবে না যুক্তরাষ্ট্র। তবে যারা ইতোমধ্যেই বৈধ ভিসা বহন করছেন তারা এই নতুন নীতির কারণে প্রভাবিত হবেন না। এর আগে ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আংশিক কার্যকরের বিষয়ে মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট সম্মতি জানান। এর পরই নতুন এই নীতি জারি করে দেশটি। যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা পেতে বা দেশটিতে প্রবেশ করতে হলে অবশ্যই নিজেকে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী কারো আত্মীয় বা ব্যবসায়িক সম্পর্ক আছে সেটা প্রমাণ করতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আগামী ১২০ দিনের মধ্যে কোনো শরণার্থী দেশটিতে প্রবেশ করতে পারবে না বলেও অনুমোদন দিয়েছেন আদালত। আগামী অক্টোবরের দিকেই আদালতের তরফ থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার ওপর চূড়ান্ত রায় দেয়া হবে বলে আশা করা হচ্ছে।