.ঢাকা, সোমবার   ২২ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ৮ ১৪২৬,   ১৬ শা'বান ১৪৪০

৪৮ বছর ধরে জ্বলছে এ নরকের আগুন (ভিডিও)

 প্রকাশিত: ১৩:৩৩ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১২:০৮ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বিশ্বজুড়ে তা বিস্ময়ই বটে। এখানে দাউ দাউ করে জ্বলছে আগুন। তাও বছরের পর বছর। হ্যাঁ, পৃথিবীতে এমনই এক জায়গা রয়েছে। যাকে 'নরকের প্রবেশদ্বার (দ্য গেটওয়ে টু হেল)' বলে অভিহিত করা হয়।

তুর্কমেনিস্তানের কারাকুম মরুভূমির দেরওয়াজে গ্রামের কাছে এই নরকের প্রবেশদ্বার। এটি ২৩০ ফুট ব্যাস ও ৬৫ ফুট গভীর একটি গর্ত। যা গেল ৪৮ বছর ধরেই জ্বলছে।

সময়টা তখন ১৯৭১। কয়েকজন সোভিয়েত ভূতত্ত্ববিদ খনিজ তেলের সন্ধানে কারাকুমের ওই মরু অঞ্চলে অভিযানে নামেন। প্রথমে তাদের ধারণা ছিল এটি একটি তেলক্ষেত্র। তাই ড্রিলিং মেশিন দিয়ে তেল উত্তোলনের জন্য সেখানে ক্যাম্প স্থাপন করেন। পরে কিছুদিনের মধ্যেই সেই অভিযাত্রীরা টের পান, তারা ভূগর্ভস্থ গ্যাসের এক ভাণ্ডারের উপরে বসে রয়েছেন। এর কিছুদনি পরই তারা সেখান থেকে বিষাক্ত গ্যাস বের হতে শুরু হয়।

এক পর্যায়ে গ্যাস অনুসন্ধানকারীরা গ্যাসবহুল গুহার মধ্যে মৃদু স্পর্শ করলে দুর্ঘটনাক্রমে মাটি ধসে পুরো ড্রিলিং রিগসহ পড়ে যায়। যদিও এই দুর্ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। প্রাথমিকভাবে গবেষণা করে বিষাক্ত মিথেন গ্যাসের ব্যাপারে গবেষকরা নিশ্চিত হন।

ভূতত্ত্ববিদরা তখন পরিবেশে বিষাক্ত গ্যাস প্রতিরোধ করার জন্য গ্যাস উদ্গিরণ মুখটি জ্বালিয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নেন। তাদের মনে হয়ছিল, এখানে সীমিত পরিমাণ গ্যাস থাকতেও পারে। কিন্তু তাদের ধারণা ভুল প্রমাণ করে এটি ১৯৭১ সাল থেকে অনবরত জ্বলছে।

এই গর্ত ও তাতে জ্বলতে থাকা আগুন দেখার জন্য এখন সেখানে বিপুল পরিমাণ পর্যটক ভিড় জমান। ভয়ানক সেই গর্ত

এখন বিশ্বজুড়ে বিস্ময় ছড়াচ্ছে। এরই নাম ‌'দ্য গেটওয়ে টু হেল'।

দেখুন ভিডিওটি

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর/টিআরএইচ