৪০ কোটি টাকা নিয়ে লাপাত্তা দুই ভাই!
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=132061 LIMIT 1

ঢাকা, সোমবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ৬ ১৪২৭,   ০৩ সফর ১৪৪২

৪০ কোটি টাকা নিয়ে লাপাত্তা দুই ভাই!

কুমিল্লা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৪০ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৬:৫৯ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

লাপাত্তা দুই ভাইয়ের পৈতৃক বাড়ি

লাপাত্তা দুই ভাইয়ের পৈতৃক বাড়ি

কুমিল্লায় শতাধিক গ্রাহকের প্রায় ৪০ কোটি টাকা নিয়ে গোল্ড ডায়মন্ড প্রপার্টিজ ডেভেলপার কোম্পানির চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর দুই ভাই লাপাত্তা হয়ে গেছে। এ নিয়ে নগরীতে গ্রাহকদের মাঝে চরম হাহাকার শুরু হয়েছে। 

গত শুক্রবার রাত থেকে গোল্ড ডায়মন্ড প্রপার্টিজ কোম্পানির চেয়ারম্যান পিন্টু সাহা ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর মন্টু সাহা পরিবারসহ নিরুদ্দেশ হয়ে গেছেন।

নগরীর তালপুকুর পাড়ে তিনটি, নওয়াব ফয়জুন্নেছা স্কুলের পাশে একটি, বাগিচাগাঁওয়ে একটি, পুরাতন চৌধুরী পাড়ায় একটি, মিশনারী স্কুলের পাশে একটিসহ তাদের ১০-১২টি নির্মাণাধীন প্রকল্প রয়েছে।

কুমিল্লা নগরীর ছাব্বি অ্যান্ড রিজভী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পরিচালক মো.সুলতান সফিউল্লাহ রিজভী  জানান, মিশনারী স্কুলের পাশের নির্মাণাধীন নাজমা পার্ক হেভেনে ফ্ল্যাট দেয়ার কথা বলে তার থেকে ৩২ লাখ ৭০ হাজার টাকা নিয়েছে। ভবনের কাজ শেষ হয়নি। গোল্ড ডায়মন্ড প্রপার্টিজ কোম্পানির চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর দেশ ছেড়ে ভারত চলে গেছে বলে তিনি জেনেছেন। তিনি তার টাকা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন।

তিনি আরো জানান, তারা এক ফ্ল্যাট তিনবারও বিক্রি করেছে। ফ্ল্যাটের দাম ৫০ লাখ টাকা হলেও তারা ১০ লাখ টাকাও নিয়েছে।

নাজমা পার্ক হেভেনের জমির মালিক ওমর জামান জানান, তারা উধাও হয়ে গেছে কিনা তিনি নিশ্চিত নন। আরো কয়েকদিন পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। চুক্তি ছিল তাকে ৪০ভাগ দিয়ে বাকি ৬০ ভাগ তারা নেবে। তারা কাজে সময় নিচ্ছিল। তিনি তাই দেড় কোটি টাকা দামের বাড়ি ভেঙে ভাড়া বাসায় ছিলেন। 

আর  গ্রাহকদের বিষয়ে জানান, গ্রাহকদের সঙ্গে তার কোনো চুক্তি হয়নি। এই বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারবেন না।

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত জানান, রাণীর দিঘির পাড়ের একটি ভবনে ফ্ল্যাট দেয়ার কথা বলে তার থেকে ৪২ লাখ টাকা নিয়েছে। এ ছাড়া ফয়জুন্নেছা স্কুলের পাশের একটি ভবনে ফ্ল্যাট দেবে বলে কণ্ঠশিল্পী দীপা সিনহার ভাই খোকন সিনহার থেকে টাকা নিয়েছে। গোল্ড ডায়মন্ড প্রপার্টিজ কোম্পানির মালিক পক্ষ উধাও হয়ে গেছে বলে তিনি শুনেছেন। বিষয়টি স্থানীয় এমপি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার অবগত হয়েছেন। এখন তিনি দেশের বাইরে আছেন। এমপি সাহেব দেশে আসলে মালিক পক্ষের সঙ্গে বসে বিষয়টি সমাধান করবেন।

বিএনপি নেতা জাফর ইকবাল জানান, তার ভাগিনা নাজমা পার্ক হেভেনের ফ্ল্যাটের জন্য ২০ লাখ টাকা দিয়েছে। বুধবার বিকেলে নগরীর রানীর বাজারে গোল্ড ডায়মন্ড প্রপার্টিজ কোম্পানির অফিসের সামনে গিয়ে তালা মারা দেখা যায়। একই এলাকায় তাদের পৈতৃক বহুতল ভবন রয়েছে। সেখানে দুই ভাইয়ের বাসায় তালা। তারা কখন কোথায় গেছে কেউ বলতে পারে না। 

তাদের মেজ ভাই পিয়াস সাহা বলেন, তারা দুইজন শনিবার থেকে স্ত্রী সন্তানসহ বাসায় নেই। কোথায় গেছে জানি না। তাদের ফোনও বন্ধ। মানুষ তাদের টাকার জন্য তার কাছে আসছে। তিনি তাদের ব্যবসার বিষয়ে কিছু জানেন না। বাড়িটিও তারা ইউসিবিএল ব্যাংকে বন্ধক রেখেছে বলে তিনি জানান।

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মনিরুল হক সাক্কু জানান, গোল্ড ডায়মন্ড প্রপার্টিজ কোম্পানির কাছে একটি পক্ষ টাকা পেত, তিনি দরবার করে ২৬ লাখ টাকার মধ্যে ১৪ লাখ টাকা উদ্ধার করেছিলেন। এখন শুনছেন তারা দেশ ছেড়ে চলে গেছে। ক্ষতিগ্রস্তরা যোগাযোগ করলে তিনি মালিক পক্ষের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করবেন।

কুমিল্লার ডিসি মো.আবুল ফজল মীর জানান,বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবগত নন। ক্ষতিগ্রস্তরা যোগাযোগ করলে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ