২২০০ শিক্ষক-কর্মচারীর পাশে শিল্পমন্ত্রী 

ঢাকা, রোববার   ৩১ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭,   ০৭ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

২২০০ শিক্ষক-কর্মচারীর পাশে শিল্পমন্ত্রী 

নরসিংদী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:১৫ ১৫ মে ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

নরসিংদীর মনোহরদী ও বেলাব উপজেলার কিন্ডারগার্টেনের ২২০০ শিক্ষক ও কর্মচারীর মাঝে ঈদ উপহার দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

এরই অংশ হিসেবে শুক্রবার বিকেলে মনোহরদীর গোতাশিয়ায়  বাগানবাড়িতে মন্ত্রীর পক্ষ থেকে তার ছেলে মঞ্জুরুল মজিদ মাহমুদ সাদী মনোহরদী পৌরসভা ও দৌলতপুর ইউপির কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষক ও কর্মচারীর মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ করেন। 

এ সময় পৌরসভা ও দৌলতপুর ইউপির ১৮টি কিন্ডারগার্টেনের ২৫০ জন শিক্ষক ও কর্মচারীর হাতে ঈদ উপহার তুলে দেয়া হয়।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নরসিংদী জেলা পরিষদের সদস্য ইসরাত জাহান তামান্না, বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন অ্যাসোসিয়েশনের মনোহরদী উপজেলার সভাপতি সাইদুর রহমান তসলিমসহ প্রমুখ।

বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন অ্যাসোসিয়েশনের মনোহরদী উপজেলার সভাপতি সাইদুর রহমান তসলিম বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমিত হবার পর বিগত ১৬ মার্চ থেকে সব স্কুল কলেজ বন্ধ ঘোষণার পর থেকে একই ঘোষণায় কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলোও বন্ধ ঘোষণা করা হয়, এখনো বন্ধ রয়েছে। এ স্কুলগুলো এবং এর শিক্ষকরা অতি অল্প বেতন নিয়ে চাকরি করে থাকে এবং তারা টিউশনি করে পরিবার চালায়। স্কুল বন্ধ থাকার কারণে এই শিক্ষকরা না পাচ্ছে কোনো বেতন ভাতা, না করতে পারছে কোনো টিউশনি । এ অবস্থায় এ অসহায় মানুষগুলো না পারছে কারো কাছে চাইতে না পারছে সংসার চালাতে । শিক্ষকদের এই অসহায় মুহূর্তে শিল্পমন্ত্রী তাদের পাশে দাঁড়ানোয় সব শিক্ষকের মুখে হাসি ফুটেছে।

শিল্পমন্ত্রীর ছেলে মঞ্জুরুল মজিদ মাহমুদ সাদী  বলেন, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সারাদেশে সব স্কুল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। যার কারণে কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলোও বন্ধ হয়ে যায়। যার ফলে শিক্ষকরা বেতন ভাতা না পেয়ে খুব মানবেতর দিনযাপন করছে। তাদের ঘরে অভাব থাকলে ও তারা মুখ ফোটে বলতে পারে না। বিষয়টি শিল্পমন্ত্রীর দৃষ্টিগোচর হলে তিনি মনোহরদী ও বেলাব উপজেলার ২২০০ কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষক ও কর্মচারীর পাশে থাকার নির্দেশনা দিয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় শিক্ষকদের হাতে শিল্পমন্ত্রীর ঈদ উপহার তুলে দেয়া হয়েছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ