ঢাকা, শুক্রবার   ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৯ ১৪২৫,   ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪০

১৪ মাস পর রমেশ টুডুর লাশ উত্তোলন

গাইবান্ধা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ

 প্রকাশিত: ১৭:৪৩ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

 

মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে নিহতের ১৪ মাস পর সাঁওতাল রমেশ টুডুর মৃতদেহ কবর থেকে তোলা হয়েছে।

আদালতের নির্দেশে মঙ্গলবার তার মরদেহ তোলা হয়।

এর আগে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে মরদেহ তোলার আবেদন করে পিবিআই।

পিবিআই গাইবান্ধার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন জানান, গোবিন্দগঞ্জের বাগদা ফার্মে জমি দখল নিয়ে ২০১৬ সালে সাঁওতালদের সঙ্গে মিল শ্রমিক ও পুলিশি হামলা ভাঙচুর অগ্নিসংযোগ ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ সময় সাঁওতালদের ছোড়া তীরবিদ্ধ হয় ৯ পুলিশ সহ ৩০ জন আহত হয়।

অপরদিকে ঘটনাস্থলেই আখ ক্ষেত থেকে রমেশ টুডুর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। গুলিবিদ্ধ হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন মঙ্গল মার্ডি ও শ্যামল হেমব্রম নামের দুই সাঁওতাল। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।

নিহত দুজনের মরদেহ ময়নাতদন্তের পর সৎকার করা হয়। তবে ময়নাতদন্ত ছাড়াই রমেশ টুডুর মৃতদেহ সৎকার করা হয়।

এঘটনায় স্বপন মুর্মু বাদী হয়ে ও পরে গত ২৬ নভেম্বর থমাস হেমব্রম গোবিন্দগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। সাধারণ ডায়েরির পর থমাস হেমব্রম রমেশ টুডুর মৃত্যুর কারণ জানতে হাইকোর্টে আবেদন করেন। হাইকোটের নির্দেশে মামলাটি পিবিআই গাইবান্ধাকে তদন্তের নির্দেশ দেন। এরই প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার লাশ উত্তোলন করা হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর