Alexa ১১৯ সংস্থাকে পর্যবেক্ষণের অনুমোদন

ঢাকা, বুধবার   ২১ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৬ ১৪২৬,   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

১১৯ সংস্থাকে পর্যবেক্ষণের অনুমোদন

 প্রকাশিত: ০২:২৩ ৭ জুন ২০১৮   আপডেট: ১০:২৩ ৭ জুন ২০১৮

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

নির্বাচন পর্যবেক্ষক হিসেবে ১১৯টি সংস্থাকে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

বুধবার নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব এস এম আসাদুজ্জামান অনুমোদনপত্রে স্বাক্ষর করেন।

ইসি সূত্রে জানা যায়, যাচাই বাছাই ও আপত্তি শেষে যোগ্যতা সম্পন্ন সংস্থাগুলোকে ২০২৩ সালের মে মাস পর্যন্ত পাঁচ বছরের জন্য নিবন্ধন দেওয়া হয়।

এর আগে নিবন্ধনের জন্য নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলোর কাছ থেকে আবেদন চেয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করে ইসি। আগ্রহী সংস্থাগুলোর আবেদন করার শেষ সময় ছিল গত বছরের ৭ নভেম্বর।

নির্দিষ্ট সময়ে ১৯৯টি সংস্থা নিবন্ধনের জন্য আবেদন করে। সেখান থেকে ১২০টি সংস্থাকে প্রাথমিকভাবে মনোনীত করে ইসি। সেখান থেকে ১১৯টি সংস্থাকে চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়।

নির্বাচন পর্যবেক্ষণ নীতিমালা ২০১৭ অনুসারে পর্যবেক্ষক সংস্থা হিসেবে নিবন্ধনে আগ্রহী বেসরকারি সংস্থাগুলোর কাছ থেকে দরখাস্ত আহ্বান করে কমিশন।

ইসি সূত্রে জানা যায়, ২০০৮ সালে নবম সংসদ নির্বাচনের আগে আরপিও ১৯৭২ সংশোধন করে প্রথমবারের মতো নির্বাচন পর্যবেক্ষণের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হয়। নবম সংসদ নির্বাচনের সময় প্রথমবারের মতো পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলোর নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়। একইসঙ্গে পর্যবেক্ষক নীতিমালাও তৈরি করা হয়।

এরপর ২০১০ সালে নীতিমালা সংশোধন করে তৎকালীণ এটিএম শামসুল হুদার নেতৃত্বাধীন কমিশন পর্যবেক্ষকদের নিবন্ধনের মেয়াদ বাড়িয়ে পাঁচ বছর করে। সেই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে নির্বাচন কমিশন ১৩৮টি নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থার প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করে। পরে ২০১৩ সালে নিবন্ধন নীতিমালা সংশোধন করে ১২০টি সংস্থাকে তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে। যাদের পাঁচ বছর মেয়াদকাল ২০১৬ সালের জানুয়ারি শেষ হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/সালি

 

Best Electronics
Best Electronics