১০ লাখ টাকা চাঁদা না দেয়ায় মিলের রাস্তা বন্ধ!

ঢাকা, শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭,   ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

১০ লাখ টাকা চাঁদা না দেয়ায় মিলের রাস্তা বন্ধ!

নরসিংদী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৩:০৫ ৬ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

নরসিংদীর মাধবধী উপজেলায় ১০ লাখ চাঁদা না দেয়ায় আর কে টেক্সটাইল মিলের যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে প্রভাবশালী দুই ব্যক্তি। রোববার দুপুরে উপজেলার মেহেরপাড়া ইউপির খালপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

দুই জন হলেন, নরসিংদী সদর উপজেলার শাহিদ হাসান পাপ্পু, মাধবদী উপজেলার মেহেরপাড়া ইউপির ঈমান হাসান। 

সম্প্রতি তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নরসিংদীর সদর উপজেলার শাহিদ হাসান পাপ্পু, মেহেরপাড়া ইউপির ঈমান হাসান তাদের সহযোগী সুমন, মিলন, নুরুনবীসহ ১৫/২০ জনের নেতৃত্বে মেহেরপাড়া ইউপির খালপাড় গ্রামের সাদ্দাম হোসেনের বাড়ী ও গ্যারেজে হামালা চালায়। 

ওই সময় সন্ত্রাসীদের হামলায় নারী পুরুষসহ সাত জন আহত হয়। ওই সময় সন্ত্রাসীরা বাড়ির গ্যারেজে থাকা মাইক্রোবাসসহ সাতটি গাড়ী ও বাড়িঘর ভাঙচুর করে। পরে আহতদের উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

এ ঘটনায় শাহিদ হাসান পাপ্পুসহ ১৪ জনকে আসামি করে মাধবদী থানায় মামলা দায়ের করেন সাদ্দাম হোসেন। এতে ক্ষিপ্ত হয় পাপ্পু। ৩১ ডিসেম্বর জামিনে বেরিয়ে আসেন পাপ্পুর সাত সহযোগী। এরপর আবারো রোববার দুপুরে আর কে ট্রেক্সট্রাইলের মালিক মোস্তাফা মিয়ার কারখানায় যাতায়াতের রাস্তায় গাছ ও বাঁশ ফেলে সড়কে যানচলাচল বন্ধ করে দেয়।

মোস্তাফা মিয়া বলেন, শনিবার রাতে পাপ্পু ও ঈমানের কথায় তাদের সহযোগী সুমন, মিলন, নুরনবী ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দেইনি বলে মিলের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। এখন কোনো গাড়ী মিলে প্রবেশ করতে পারছে না।

এলাকাবাসী জানায়, গত পাঁচ বছরে এমন কোনো অপর্কম নেই, যে তারা করেনি। অস্ত্র ব্যবসা, মিল কারখানা দখল, চাঁদাবাজি, বাড়ি দখল, মাদক ব্যবসা, ছিনতাইসহ সব অপকর্মের সঙ্গে জড়িত এই দুই ব্যক্তি। তাদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এই ইউপির জনগণ। চাপা ক্ষোভ ও কান্না বিরাজ করছে এলাকা জুড়ে।  

খালপাড় গ্রামের সাদ্দাম হোসেন বলেন, পাপ্পুর নেতৃত্বে আমাদের বাড়িতে হামলা হয়। তার বিরুদ্ধে মামলা দেয়ায় সে আরো ক্ষিপ্ত হয়। জামিনে এসে এখন প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। তাদের হাত থেকে বাঁচতে চাই।

শাহিদ হাসান পাপ্পুকে ফোন দিলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। 

নরিসংদী এএসপি সদর সার্কেল সাহেদ আহমেদ বলেন, রাস্তার বন্ধ করার এখতিয়ার কারো নেই। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে