Alexa হুমকির মুখে শহর রক্ষা বাঁধ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ৭ ১৪২৬,   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

হুমকির মুখে শহর রক্ষা বাঁধ

 প্রকাশিত: ১৬:৪৬ ২৮ আগস্ট ২০১৮   আপডেট: ১৪:২৫ ২৯ আগস্ট ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পদ্মায় পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়েছে রাজবাড়ী শহরের গোদার বাজার এলাকায় নদী ভাঙ্গন। বাজারের পাশে আড়াই কিলোমিটার এলাকায় থাকা সিসি ব্লকের (ডাম্পিং) প্রায় ২শ’ মিটার এলাকা ধসে গেছে। ফলে হুমকির মুখে রয়েছে শহর রক্ষা বাঁধ।

পানি উন্নয়ন বোর্ড রাজবাড়ীর কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে, ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধ ফেজ-১ নামে একটি প্রকল্পের মাধ্যমে আড়াই কিলোমিটার এলাকায় সিসি ব্লক দ্বারা স্থায়ী বাধ তৈরি করা হয়।

পদ্মা নদী তখন বেশ দুরে থাকলেও গত চার বছরে আস্তে আস্তে ভাঙ্গতে ভাঙ্গতে এখন শুরু হয়েছে স্থায়ীভাবে সিসি ব্লক দ্বারা ডাম্পিং এলাকায় ভাঙ্গন। এরই মধ্যে ভেঙ্গে গেছে দুইশত মিটার এলাকা।

এলাকাবাসী জানান, সর্বনাশা পদ্মার ভয়াবহ গ্রাসে বাড়ি ঘর ভেঙ্গে এখন আশ্রয় নিয়েছি রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধে। এখন বাধ ভেঙ্গে গেলে আমাদের আর যাওয়ার যায়গা নেই। রাতের বেলায় আমরা নদীর শো শো শব্দে ঘুমাতে পারি না। সব সময় ভয়ে ভয়ে থাকি। নদী যেভাবে ভাঙ্গন শুরু করেছে তাতে এভাবে ভাঙ্গলে দুই একদিনের মধ্যে শহর রক্ষা বাধ ভেঙ্গে যাবে।

তারা আরো জানান, এর আগে যখন স্থায়ী বাধের কাজ করেছিল তখন এই অংশে কোন বালুর বস্তা ফেলা হয়নি। তখন থেকেই ঝুকিপূর্ণ ছিল এই অংশ। এখন ভাঙ্গন শুরু হয়েছে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া দরকার এই নদী ছিল অনেক দূরে গত বছরও ভেঙ্গেছে এবারও ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। এখন শহর রক্ষা বাধ মাত্র কয়েক মিটারের মধ্যে রয়েছে।

রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এম এ খালেক জানান, পদ্মা নদীর গোদার বাজার এলাকা ভাঙ্গনের কথা শুনে আমি পরিদর্শন করেছি। দেখেছি সেখানে খুব খারাপ অবস্থা বিরাজ করছে। এভাবে ভাঙ্গলে শহর রক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে যাবে। বিষয়টি নিয়ে আমি ডিসির সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড রাজবাড়ীর প্রকৌশলী প্রকাশ কৃঞ্চ সরকার বলেন, মূলত পানি বৃদ্ধির কারণে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে বালুর বস্তা ফেলে রক্ষা করার কাজ শুরু হবে। এছারাও ওই এলাকায় সাড়ে ৪ কিলোমিটার এলাকায় ৩৪২ কোটি টাকা ব্যয়ে রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধ ফেজ-২ নামে একটি প্রকল্প পাস হয়েছে। যার কাজ করবে খুলনা শিপইয়ার্ড। পানি কমার সঙ্গে স্থায়ীভাবে শহর রক্ষা বাঁধের উন্নয়ন কাজ শুরু হবে। আপাতত বালুর বস্তা ফেলে নদী শাসন করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর