হাত পা ছাড়াই বিশ্ব জয়!

ঢাকা, শনিবার   ২৫ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৬,   ১৯ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

হাত পা ছাড়াই বিশ্ব জয়!

 প্রকাশিত: ১৬:৪২ ২১ জুলাই ২০১৭  

নিক ভুজিসিস। সারা বিশ্বোর মানুষ তাকে চেনে একজন বক্তা হিসেবে। যার বক্তব্য শুনে বদলে গেছে অনেকের জীবন। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে আছে তার ভক্তরা। তবে অবাক করা ব্যাপার হল কোনো হাত বা পা নেই ভুজিসিসের। তবুও তিনি জয় করেছেন বিশ্বকে। নিক ভুজিসিসের জন্ম অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে। জন্মের সময় শিশুর হাত-পা নেই দেখে আঁতকে উঠেছিলেন ডাক্তাররাও। এই শারীরিক অপূর্ণতা নিয়ে জন্মের কোনো ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি ডাক্তারি শাস্ত্রেও। জন্মের পর এই শরীর দেখে কোলে নিতে চাননি তার মা। পরে অবশ্য ভাগ্যকে মেনে নিয়ে ছেলেকে বুকে তুলে নিয়েছিলেন। শরীরের এই অংশ দিয়েই কম্পিউটারে টাইপ করতে পারেন তিনি; বলে লাথি দিতে পারেন। এমনকি সাঁতার কাটার পাশাপাশি স্কাইডাইভিংও করতে পারেন নিক ভুজিসিস। স্কুলে পড়ার সময় থেকেই হতাশা তাড়া করে ফিরেছে তাকে। এমনকি ১০ বছর বয়সে আত্মহত্যার চেষ্টাও করেছিলেন তিনি। কিন্তু সে যাত্রায় ব্যর্থ হন। ১৭ বছর বয়সে তাকে জনসম্মুখে বক্তব্য দেয়ার পরামর্শ দেন তার স্কুলের দারোয়ান। আর এতেই ঘুরে যায়, জীবনের মোড়। প্রতিটি কাজে নিজের সাহস জোগানোর পাশাপাশি হতাশাগ্রস্তদের অনুপ্রেরণা দেয়া শুরু করেন তিনি। তার কথায় মুগ্ধ মানুষের সংখ্যা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে; বাড়তে থাকে তার সুনামের পরিধিও। এখন জাদুকরী বক্তাদের রাজ্যের মুকুটহীন রাজা তিনি। এ পর্যন্ত বিশ্বের ৫০টি দেশে ১ হাজারের বেশি বক্তব্য দিয়েছেন ভুজিসিস। ইতোমধ্যে তার লেখা ৭টি বই প্রকাশিত হয়েছে। মার্কিন মুলুকের ক্যালিফোর্নিয়ায় স্ত্রী ক্যানে ও দুই সন্তানকে নিয়ে বাস করেন তিনি। ‘লাইফ উইদাউট লিম্বস’ (অঙ্গহীন জীবন) নামের একটি অলাভজনক সংস্থার প্রধান নিক সারা বছরই ব্যস্ত থাকেন বিভিন্ন অনুষ্ঠান নিয়ে। তার দিন কাটে বক্তব্য দিয়ে। কারণ সারা বিশ্বেই ছড়িয়ে আছে তার অগণিত ভক্ত। তার কাছ থেকেই শুনতে চান, আমি যদি শতবার উঠে দাঁড়াতে ব্যর্থ হই, তাতে কি আমি হাল ছেড়ে দেব? না, কখনোই না। আমি বার বার চেষ্টা করব। তাতেও যদি ব্যর্থ হই হব। আমি তোমাদের বলতে চাই, আমি কখনোই হাল ছেড়ে দেয়ার নই। ডেইলি বাংলাদেশ/আরকে
Best Electronics