হসপিটাল পরিদর্শনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের এডিজিডিজি

ঢাকা, সোমবার   ১৭ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৫ ১৪২৬,   ১২ শাওয়াল ১৪৪০

হসপিটাল পরিদর্শনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের এডিজিডিজি

উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ২১:৪১ ১২ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২১:৪১ ১২ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

কক্সবাজারের মধূরছড়ার ‘হোপ ফিল্ড হসপিটাল ফর উইমেন’ শনিবার পরিদর্শন করেছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক প্রফেসর ড. নাসিমা সুলতানা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলার সিভিল সার্জন ডা. এম এ মতিন, ইউএনএফপিএ’র বিশেষ স্বাস্থ্য উপদেষ্ঠা ডা. সৈয়দ আবু জাফর মুহাম্মদ মুসা, ইউএনএফপিএ’র প্রজেক্ট টেকনিক্যাল অফিসার শামসুজ্জামান, ইউএনএফপিএ’র কোয়ালিটি অফিসার ডা. এ.এ সাফায়েতউল্লাহ, ইউএনএফপিএ’র ফিল্ড অফিসার মুহাম্মদ আশরাফুল আলম ভুঁইয়াসহ প্রমুখ।

হোপ ফাউন্ডেশনের বাংলাদেশ কান্ট্রি ডাইরেক্টর কে এম জাহিদুজ্জামান, হসপিটাল ডাইরেক্টর ডা. রোলান্ড ভেলা, সিনিয়র ম্যানেজার মো. শওকত আলী এবং অন্যান্য সিনিয়র কর্মকর্তারা তাদের অভ্যর্থনা জানান।

পরে অতিথিরা হোপ ফিল্ড হসপিটালের নতুন অপারেশন থিয়েটার, ম্যাটার্নিটি কর্নার, লেবার রুম, ফার্মেসীসহ বিভিন্ন বিভাগ ঘুরে দেখেন। তারা হোপ ফিল্ড হসপিটাল ফর উইমেন এর কার্যক্রমের প্রশংসা করেন।

রোহিঙ্গা আশ্রয়গ্রহণকারী অনুপ্রবেশের সঙ্গে সঙ্গেই হোপ ফাউন্ডেশন ২০১৭ সালে ২৫ ডিসেম্বর মধুছড়ায় (ক্যাম্প-০৪) ৪০ শয্যা বিশিষ্ট একটি হসপিটাল স্থাপন করে। হসপিটালটিতে ২৩ জুন ২০১৮ থেকে ২৪/৭ ম্যার্টানিটি ও বহি:বিভাগ চালু করার মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করে যাচ্ছে। শিগগিরই হসপিটালটিতে ইনডোর বিভাগ চালু করতে যাচ্ছে। যার মাধ্যমে ২৪/৭ সিজারিয়ান অপারেশন করা সম্ভব হবে।

আমেরিকা প্রবাসী ডা. ইফতিখার মাহমুদ পরিশ্রম ও মেধার মাধ্যমে ১৯৯৯ সালে কক্সবাজারে হোপ ফাউন্ডেশন ফর উইমেন এন্ড চিলড্রেন অব বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করেন। কক্সবাজারের  মাতৃ ও শিশু মৃত্যুর হার কমানো এবং ফিস্টুলা মুক্ত করতে মুলত: এই প্রতিষ্ঠানটি কাজ করে যাচ্ছে। ডা. ইফতিখার মাহমুদ এ মহৎ কাজে সার্বিক সহায়তা করতে বাংলাদেশ সরকারের শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশন এবং বিভিন্ন দাতা সংস্থার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ