হতাশ খামারিরা

ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৬,   ১৮ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

হতাশ খামারিরা

 প্রকাশিত: ১৯:৫৪ ১২ জুন ২০১৮   আপডেট: ১৯:৫৫ ১২ জুন ২০১৮

সংগৃহীত

সংগৃহীত

২০১৮-১৯অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে   আমদানীকৃত গুড়োদুধের উপর দশ শতাংশ শুল্ক নামিয়ে আনায়  হতাশা ব্যক্ত করেছে  দেশীয় দুগ্ধ খামারিদের সংগঠন বাংলাদেশ ডেইরি ফারমার্স এসোসিয়েশন। সেই সঙ্গে দেশের ডেইরি র্ফাম গুলো বিলুপ্তি হবে বলে মনে করে সংগঠনের নেতারা।

মঙ্গবার  জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত বাজেটে গুড়োদুধের আমদানীতে শুল্ক নামিয়ে আনার প্রতিবাদে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির সভাপতি  মোঃ ইমরান হোসেন এসব কথা বলেন।

মোঃ ইমরান হোসেন বলেন, ‘আমাদের দেশে গুড়াদুধ আমদানির ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম এই শুল্কহার ছিল একান্ন শতাশং পরবর্তীতে তা কমিয়ে পচিশ শতাংশ করা হয়ে ছিল । কিন্তু এই বাজেটে আমাদের অর্থমন্ত্রী দশ শতাংশ করার প্রস্তাব করেন।

যেখানে দেশে দুধের উৎপাদন বাড়ছে, খামারের সংখ্যা বাড়ছে, বেকার সমস্যার সমাধান হচ্ছে, সেক্ষেত্রে হঠাৎ করে উদীয়মান সেক্টরে গুড়াদুধের উপর আমদানি শুল্ক দশ শতাংশ কমিয়ে দেয়া দেশের দুগ্ধখামারিদের অস্তিত্ব হুমকির মুখে পড়বে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন তিনি।

তিনি বলেন, সরকার দেশীয় শিল্পকে প্রণোদনা না দিয়ে বিদেশ থেকে গুরু দুধের আমদানি দেশের দুগ্ধ খামারিদের একটি অসম প্রতিযোগিতার মধ্যে ফেলে দিয়েছে। যা এর প্রধান কারণ হলো ভর্তুকি।

সংগঠনের সভাপতি বলেন, ‘বর্তমান বাজেটে আমদানি শুল্ক কমানোর যে প্রস্তাব করা হয়েছে তা আমাদের সংগঠন থেকে বাতিলের দাবি জানাচ্ছি। পাশাপাশি আমাদের এন্টিডাম্পিং এর জন্য ত্রিশ  শতাংশ অতিরিক্ত শুল্ক আরোপ করার জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি। ‘

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএস

 

Best Electronics