হজের টাকা করোনা তহবিলে দান করলেন ৮৭ বছরের বৃদ্ধা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০২ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৯ ১৪২৭,   ০৯ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

হজের টাকা করোনা তহবিলে দান করলেন ৮৭ বছরের বৃদ্ধা

ধর্ম ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:০৮ ৬ এপ্রিল ২০২০   আপডেট: ১৬:৪৩ ৬ এপ্রিল ২০২০

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

পুরো বিশ্বে এখন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) ছড়িয়ে পড়েছে। প্রতিনিয়তই ভয়াবহ মাত্রায় বেড়ে চলেছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। 

বৈশ্বিক মহামারি এ করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সাহায্য তহবিলে হজের জন্য জমানো ৫ লাখ রুপী দান করলেন ৮৭ বছরের বৃদ্ধা খালেদা বেগম।

২০২০ সালে হজে যাওয়ার পরিকল্পনায় দীর্ঘ দিন ধরে টাকা জমাচ্ছিলেন তিনি। ভারতের জম্মু-কাশ্মীরের এ বৃদ্ধা তার জমানো ৫ লাখ রুপী দান করে দিলেন। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় সাড়ে ৫ লাখ টাকার বেশি।

৮৭ বছরের এই বৃদ্ধা নিজের সঞ্চিত অর্থের পুরোটাই দিয়েছেন হিন্দুত্ববাদী আরএসএস-এর শাখা সংগঠন সেবা ভারতীকে। খালিদা বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরেই সেবা ভারতীর কাজ দেখেছি। জানি ওরা কেমন কাজ করে, তাই গরিব কাশ্মীরিদের সাহায্য করার জন্য ওদের হাতেই টাকা তুলে দিয়েছি।’

খালিদা বেগমের বাবা একসময় জম্মু-কাশ্মীরে জনসংঘের পদেও ছিলেন। ফলে ছোটবেলা থেকেই আরএসএস-এর কাজের সঙ্গে পরিচিতি হয় খালিদার।

প্রতিটি মুসলমানের হৃদয়ে লালিত স্বপ্ন থাকে যে, একবার দুই পবিত্র ভূমি মক্কা-মদিনা জেয়ারত করার। আর সামর্থবান মুসলিম নারী-পুরুষের জন্য জীবনে একবার হজ ফরজ। এ লালিত স্বপ্ন পূরণে ৫ লাখ রূপী জমিয়ে ছিলেন জম্মু-কাশ্মীরের ৮৭ বছরের বৃদ্ধা খালেদা বেগম।

সৌদি আরব লকডাউন করে দেয়াসহ মহামারির করোনা প্রাদুর্ভাবের এ সময়ে বৃদ্ধা খালেদা বেগম তার হজের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেন। যদিও মুসলিমদের জীবনে হজের গুরুত্ব অপরিসীম। তথাপিও তিনি কোভিড-১৯ এ আক্রান্তদের সহায়তায় হজের জমানো পুরো টাকাই করোনা তহবিলে দান করে দেন।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে খালেদা বেগম তার জমানো টাকাগুলো ভালো কাজে লাগানোর চিন্তা করেন। তিনি বহু লোককে প্রাণঘাতী মহামারি করোনাভাইরাসে ভুগতে দেখেছেন। সে কারণেই তিনি নিজের হজের জন্য জমানো টাকাগুলো মানুষের জীবন রক্ষায় দান করার সাহসী পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে/এস