Alexa সড়ক দুর্ঘটনা নয়, জেরিনকে খুন করা হয়

ঢাকা, বুধবার   ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ৬ ১৪২৬,   ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

Akash

সড়ক দুর্ঘটনা নয়, জেরিনকে খুন করা হয়

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৩৪ ২১ জানুয়ারি ২০২০  

মাদিনাতুল কিবরিয়া জেরিন

মাদিনাতুল কিবরিয়া জেরিন

হবিগঞ্জ সদরের স্কুলছাত্রী মাদিনাতুল কিবরিয়া জেরিনের মৃত্যুকে সড়ক দুর্ঘটনা বলে চালানো হয়েছিলো। কিন্তু দীর্ঘ তদন্তে মূল রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে জাকির হোসেন নামক এক যুবককে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন তিনি। পরে হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুলতান উদ্দিন প্রধানের আদালতে তার জবানবন্দি নেয়া হয়।

জাকির জানান, প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় জেরিনকে সিএনজি অটোরিকশা থেকে ফেলে হত্যা করেন তিনি।

আটক জাকির হোসেন সদর উপজেলার ধল গ্রামের দিদার হোসেনের ছেলে।

হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামি জাকির হোসেন

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসপি মোহাম্মদ উল্যা বলেন, জাকির হোসেন দীর্ঘদিন ধরে জেরিনকে প্রেমের প্রস্তাব দিচ্ছিলেন। কিন্তু প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে জেরিন বিষয়টি পরিবারকে জানান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে হত্যা করেন জাকির।

তিনি আরো জানান, রোববার সকালে পরিকল্পিতভাবে জেরিনের বাড়ির সামনে একটি সিএনজি অটোরিকশা দাড় করিয়ে রাখেন। জেরিন বাড়ি থেকে বের হয়ে ওই সিএনজিতে উঠে যান। পথে জাকির ও তার সহযোগী হৃদয় একই সিএনজিতে ওঠেন। এরপর তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা ও ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে জেরিনকে সিএনজি থেকে ফেলে দেন তারা। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানেই সোমবার ভোরে মারান যান জেরিন।

এসপি জানান, জেরিনের মৃত্যু সড়ক দুর্ঘটনায় হয়েছে। এমন সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে সহপাঠীরা। পরে বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নামে পুলিশ। এক পর্যায়ে জাকির হোসেনকে আটক করা হলে বেড়িয়ে আসে এসব চাঞ্চল্যকর তথ্য।

সদর মডেল থানার ওসি মো. মাসুক আলী বলেন, সোমবার রাতে হত্যা মামলা করেছেন জেরিনের বাবা। ওই মামলায় জাকির হোসেনকে আসামি করা হয়েছে। তার সহযোগী হৃদয় ও সিএনজিচালক নূরকে ধরতে অভিযান চলছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর