Exim Bank Ltd.
ঢাকা, বুধবার ১২ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

ক্যান্সার আক্রান্ত জন্নাত

স্বপ্ন মুষড়ে পড়েছে পলিথিনে ঢাকা মাটির বিছানায়

পেকুয়া-কুতুবদিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধিডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
স্বপ্ন মুষড়ে পড়েছে পলিথিনে ঢাকা মাটির বিছানায়
পলিথিনে ঢাকা ঘর, ইনসেটে জন্নাত। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

আরেফিন জন্নাত শিবলী (১৫)। ৯ম শ্রেণির এক মেধাবী ছাত্রী। আর দশজন শিক্ষার্থীর মতো তারও স্বপ্ন ছিল, পড়ালেখা করে সে একদিন ডাক্তার হবে। দেশ-দশের সেবায় উৎসর্গ করবে নিজেকে। কিন্তু বিধিবাম! সেই স্বপ্নাতুর মেয়েটির স্বপ্ন আটকে গেছে হতদরিদ্র বাবার পলিথিন ঢাকা ভাঙা ঘরের মাটির বিছানায়। যে বিছানায় শুয়েই কাতরাচ্ছেন হাঁটুর বোন ক্যান্সারে আক্রান্ত মেয়েটি।

জন্নাত কক্সবাজারের চকরিয়ার ভেওলা মানিকচর (বিএমচর) ইউনিয়নের দক্ষিণ বহদ্দার কাটায় পরিবারের সঙ্গে থাকেন। মোহাম্মদ শফি ও রেনুআরা বেগমের ৩য় মেয়ে। জন্নাত বিএমচর ইউনিয়নের বহদ্দারকাটা উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়েন।

তার মা জানান, ৯ম শ্রেণিতে ভর্তি হওয়ার পর এক মাসও পার হয়নি। প্রতিদিনের মতো সেদিনও স্কুলে যায় জন্নাত। স্কুল থেকে ফেরার পথেই অনুভব হয় তার হাঁটুর প্রচন্ড যন্ত্রণা। পরদিন আর স্কুলে যেতে পারেনি। কয়েক দিন পর যন্ত্রণা তীব্র আকার ধারণ করলে চট্টগ্রামে গিয়ে ডাক্তার দেখান। ডাক্তার জানায় তার হাঁটুতে বোন ক্যান্সার হয়েছে।

পিতা শফি কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, আমি এমন এক হতভাগ্য বাবা, যে কিনা সারারাত মেয়ের ব্যথার যন্ত্রণার আহাজারি শুনি কিন্তু কিছুই করতে পারি না। আমি গরীব মানুষ। বয়সও হয়েছে। কাজ করতে পারি না। আমার থাকার ঘরটি পর্যন্ত নেই। পরিবারের ৮ সদস্যের আহার জোগাড় করতে হিমশিম খাচ্ছি। তবুও আমি মেয়েদের পড়ালেখা করাতে চেষ্টা চালাচ্ছি। এ অবস্থায় আমার মেয়ে আরেফিন এখন বোন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে।

মেধাবী ছাত্রী আরেফিনের চিকিৎসকদের দেয়া ব্যবস্থাপত্র থেকে জানা যায়, জন্নাত এখন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের রেডিওথেরাপী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ ডা: এম এ আউয়ালের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছেন। দীর্ঘ ৭ মাস তার চিকিৎসা চলছে। তবে বর্তমানে ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী তার পরিবার অর্থাভাবে কেমোথেরাপি ঠিক সময়ে দিতে পারছেন না।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শফি একটি ভাঙা ঝুপড়ি বাড়িতে ৪ মেয়ে ২ ছেলেকে নিয়ে বসবাস করেন। ঘরের চালা ভেঙে গেছে। তাই পলিথিন চেপে দিয়ে কোনোভাবে রোদ-বৃষ্টি থেকে রক্ষা করছেন। ঘরের ভিতরে দেখা যায়, কোনো আসবাবপত্র নেই বললেই চলে। মাটি দিয়ে বানিয়েছেন বিছানা। এখন এ মাটির বিছানায় শুয়ে-বসেই কাটছে মেধাবী জন্নাতের জীবন। কখনো কখনো ব্যথার যন্ত্রণা সইতে না পেরে সজোরে চিৎকার করেন। কখনো চোখের পানি ফেলেন নিরবে। মা রেনুআরা বেগম আর ছোটবোন আশরাফুল জন্নাত সব সময় থাকেন তার পাশে।

পড়ালেখা করে কি হতে চাও? জানতে চাইলে ভেজা চোখে কিছুক্ষণ ফ্যাল ফ্যাল তাকিয়ে থাকেন আরেফিন। বলেন, আমার স্বপ্ন ছিল আমি পড়ালেখা করে বড় হয়ে ডাক্তার হব। গরীব রোগীদের ফ্রি চিকিৎসা দেব। দেশের মানুষের সেবা করব। কিন্তু এখন আমার সব স্বপ্ন আটকে আছে এ বিছানায়। যদি আল্লাহর রহমতে সুস্থ হতে পারি, তাহলে আবার স্কুলে যাব, মন দিয়ে পড়ালেখা করব।

শফির প্রথম ছেলে বিয়ে করে শ্বশুড় বাড়ি চলে গেছে। আরেক ছেলে কক্সবাজারের একটি হোটেলে চাকরি করে কোনোরকম সংসার চালাচ্ছেন। চার মেয়ের মধ্যে সবার বড় জন্নাতুন নঈম। পড়ছেন এইচএসসি ২য় বর্ষে। টিউশনি করে পড়ালেখা চালায়। ২য় মেয়ে জন্নাতুল পড়ে পেকুয়া শহীদ জিয়াউর রহমান উপকূলীয় কলেজের প্রথম বর্ষে। পেকুয়ার এক বাড়িতে থেকেই (লজিং) পড়ালেখা চালায়। আর ৩য় মেয়ে আরেফিন জন্নাত। আর চতুর্থ মেয়ে আশরাফুল জন্নাত পড়ে ৬ষ্ঠ শেণিতে।

তবে দারিদ্র্যের কশাঘাতেও শফি ও রেনুআরা এখনো আশায় বুক বেঁধে আছেন। তাদের মেয়ে সঠিক চিকিৎসা পেলে সুস্থ হয়ে উঠবে। আবার পড়াশোনা শুরু করবে। তার স্বপ্ন পূরণ করবে। এজন্য দেশের দানশীল বিত্তবানদের সাহায্যও কামনা করেছেন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, দেশের বিত্তবানরা যদি একটুখানি দয়ার হাত বাড়ান তাহলে একটি মেধাবী মেয়েকে বাঁচানো সম্ভব হবে। অন্যথায় চোখের সামনেই পৃথিবী থেকে চিরতরে হারিয়ে যাবে একটি মেধাবী মুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
ফাইভ জি চালু হতেই মরল কয়েকশ পাখি!
ফাইভ জি চালু হতেই মরল কয়েকশ পাখি!
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেয়াই মারা গেছেন
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেয়াই মারা গেছেন
ফখরুলের গাড়িবহরে হামলা
ফখরুলের গাড়িবহরে হামলা
‘বিশ্ব সুন্দরী’র মুকুট পড়া হলো না ঐশীর
‘বিশ্ব সুন্দরী’র মুকুট পড়া হলো না ঐশীর
জনসম্মুখে পুরুষ নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল!
জনসম্মুখে পুরুষ নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল!
৭ দিনের নিচে কোন ইন্টারনেট প্যাকেজ নয়
৭ দিনের নিচে কোন ইন্টারনেট প্যাকেজ নয়
সিলেটি যুবককে বিয়ের জন্য ক্যাথলিক মেয়ের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ
সিলেটি যুবককে বিয়ের জন্য ক্যাথলিক মেয়ের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ
ক্যান্সার শনাক্তে বাংলাদেশি বিজ্ঞানীর সাফল্য
ক্যান্সার শনাক্তে বাংলাদেশি বিজ্ঞানীর সাফল্য
এমিরেটসের হীরায় মোড়ানো বিমান
এমিরেটসের হীরায় মোড়ানো বিমান
পাপ যেন পিছু ছাড়ছে না নিকের!
পাপ যেন পিছু ছাড়ছে না নিকের!
‘যৌন মিলন দেখিয়ে আনন্দ পাই’
‘যৌন মিলন দেখিয়ে আনন্দ পাই’
সোমবার রাতের মধ্যেই ঢাকা ছাড়ছেন এরশাদ
সোমবার রাতের মধ্যেই ঢাকা ছাড়ছেন এরশাদ
বিশ্বের আদর্শ ফিগারের নারী কেলি ব্রুক
বিশ্বের আদর্শ ফিগারের নারী কেলি ব্রুক
বিএনপির হয়ে লড়বেন পার্থ
বিএনপির হয়ে লড়বেন পার্থ
উত্তেজনা ধরে রাখতে পারছেন না সাইফ কন্যা সারা!
উত্তেজনা ধরে রাখতে পারছেন না সাইফ কন্যা সারা!
২০১৯ নিয়ে অন্ধ নারীর ভয়ঙ্কর ভবিষ্যদ্বাণী!
২০১৯ নিয়ে অন্ধ নারীর ভয়ঙ্কর ভবিষ্যদ্বাণী!
বিএনপির বিরুদ্ধে লড়বেন হিরো আলম
বিএনপির বিরুদ্ধে লড়বেন হিরো আলম
তামিম-সৌম্য শতকে ৩৩২ তাড়া করে জয়
তামিম-সৌম্য শতকে ৩৩২ তাড়া করে জয়
কুমিল্লায় বিএনপির মিছিলে হামলা, অর্ধশতাধিক আহত
কুমিল্লায় বিএনপির মিছিলে হামলা, অর্ধশতাধিক আহত
শাকিবের সঙ্গে প্রেম বিষয়ে মুখ খুললেন রোদেলা
শাকিবের সঙ্গে প্রেম বিষয়ে মুখ খুললেন রোদেলা
শিরোনাম :
ময়মনসিংহ ৭ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে সরে দাঁড়ালেন রওশন এরশাদ, প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন ৪ আসনে ময়মনসিংহ ৭ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে সরে দাঁড়ালেন রওশন এরশাদ, প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন ৪ আসনে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলেই তৃণমূলে মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হয়: শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলেই তৃণমূলে মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হয়: শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে শেখ হাসিনার জনসংযোগ শুরু বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে শেখ হাসিনার জনসংযোগ শুরু ডিসিদের রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট ডিসিদের রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট