স্পেনে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা ফিতুর 

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৪ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২০ ১৪২৭,   ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

স্পেনে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা ফিতুর 

কবির আল মাহমুদ, স্পেন প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৪৬ ২৭ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

স্পেনের মাদ্রিদে সম্পন্ন হয়েছে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা ‘ফিতুর ২০২০’। পাঁচ দিনের এ মেলার ৪০তম আসরে বিশ্বের ১৬৫টি দেশের ১১ হাজার ৪০ পর্যটন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। যেখানে রেকর্ড সংখ্যক দর্শনার্থী উপস্থিত ছিলেন।

গত ২২ থেকে ২৬  জানুয়ারি স্পেনের ফেরিয়া দে মাদ্রিদ নামক আন্তর্জাতিক ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত এ মেলায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ২ লাখ ৫৫ হাজার দর্শনার্থী আসেন। ভ্রমণপ্রিয় পর্যটকদের কাছে নিজেদের দেশের শিল্প, সংস্কৃতির পাশাপাশি পর্যটন স্থানগুলোকে পরিচয় করিয়ে দেয়া ও তাদের দেশ ভ্রমণে আগ্রহ সৃষ্টি করতে ফিতুর-এ ট্যুর অপারেটররা পাঁচদিন নানা কৌশলী ব্যবস্থার আয়োজন করেন। 

প্যাভিলিয়নের সামনে নিজস্ব সংস্কৃতির পোশাক পরিধান করে নৃত্য করতে কিংবা গান পরিবেশন করতেও দেখা যায়। মেলায় কাতার এয়ারলাইন্স, ইবেরিয়া এয়ারলাইন্স ভ্রমণে তাদের নিত্য নতুন সেবা দর্শনার্থীদের সামনে তুলে ধরে। স্পেনের রেল যান রেনফে দর্শনার্থীদের জন্য নানা অফারের ব্যবস্থা করে। পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের প্যাভিলিয়নে দর্শনার্থীদের জন্য নানা উপহার সামগ্রী রাখা হয়।

মেলায় প্রতিদিনই ছিল বিভিন্ন বিষয়ের উপর সেমিনার, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের পাশাপাশি পর্যটন বিশেষজ্ঞরা এতে বক্তব্য দেন। প্রতিবারের মতো এবারের পর্যটন মেলায়ও  পর্যটকদের স্বাস্থ্য বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়।‘ফিতুর হেল্থ’ নিয়ে ছিল আলাদা প্যাভিলিয়ন ও সেমিনারের ব্যবস্থা।

পর্যটন সংশ্লিষ্ট বিশ্বের বাণিজ্যিক তথ্য পাওয়া, পর্যটকদের মধ্যে নেটওয়ার্কিং সৃষ্টি করা, পর্যটন পণ্যের বৈশিষ্ট বিশ্লেষণ ও তুলনা, শিল্প বিবর্তন ও প্রবণতা সম্পর্কিত তথ্যগুলোকে ফিতুরে প্রাধান্য দেয়া হয়।

বাংলাদেশের পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমার, ভারতের পাশাপাশি দক্ষিণ এশিয়া থেকে পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলংকা, ভুটান, মালদ্বীপ অংশগ্রহণ করেছে। আন্তর্জাতিক ট্যুরিজম সেক্টরে ‘গ্লোবাল মিটিং পয়েন্ট’ হিসেবে খ্যাত ফিতুর-এ বাংলাদেশের অংশগ্রহণ অনিয়মিত। বাংলাদেশ ২০১২, ২০১৩, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালে মোট চারবার এ মেলায় অংশ নেয়।

এ প্রসঙ্গে স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সেলর রেদোয়ান আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করে আগামী ২০২১ সালে ফিতুর মেলায় যাতে বাংলাদেশ অংশগ্রহণ করে, সে চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

১৯৮০ সাল থেকে প্রতিবছর স্পেনের মাদ্রিদে আন্তর্জাতিক এ পর্যটন মেলা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। বিশ্বের শতাধিক দেশের পর্যটন শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান, ট্যুর অপারেটর, পর্যটন বিষয়ক গবেষক, সাংবাদিক ও লেখকরা উপস্থিত থাকেন এ মেলায়

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে