Alexa স্থগিত হলো বিএফডিসির অতিরিক্ত চার্জ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১৪ ১৪২৬,   ০৩ রজব ১৪৪১

Akash

স্থগিত হলো বিএফডিসির অতিরিক্ত চার্জ

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৪৮ ২২ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৬:৫০ ২২ জানুয়ারি ২০২০

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে বৈঠকে প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটি সদস্যরা

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে বৈঠকে প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটি সদস্যরা

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও সচিব কামরুন নাহারের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটি সদস্যরা। মঙ্গলবার এ বৈঠক হয় বলে জানান প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু। বৈঠকে বিএফডিসির বিভিন্ন স্পট, ফ্লোর এবং ক্যামেরার অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের আদেশ স্থগিত করা হয়েছে।

খোরশেদ আলম খসরু বলেন, তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি)। গত ১৩ জানুয়ারি এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে স্পট, ফ্লোর এবং ক্যামেরার চার্জ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়। সেই সিদ্ধান্তের তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ করে প্রযোজক-পরিবেশক সমিতি। এই বিষয়েই মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক হয়। তিনি সমস্যাটি অনুধাবন করেন এবং অতিরিক্ত চার্জ বাতিল করতে বলেন। 

খসরু বলেন, এছাড়া আমরা বর্তমান চার্জও অর্ধেক নামিয়ে আনার দাবি জানিয়েছি। তিনি তাও বিবেচনার আশ্বাস দেন।

এফডিসির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী বর্তমানে বিএফডিসির বিভিন্ন ফ্লোর, অফিস রুম ও খোলা জায়গা চার্জ করা হয় সেট নির্মাণের সময় ও শুটিং চলার সময় এ দুই ভাগে। সেট নির্মাণের সময়ে বিএফডিসির খালি জায়গা, ছাদ ও সুইমিংপুলের ভাড়া ছিল ১০০০ থেকে ২৮০০ টাকা। মন্ত্রণালয়ের স্থগিতাদেশের ফলে এ চার্জ কমে খালি জায়গা ও ছাদ, সুইমিং পুলের জন্য সেট নির্মাণের চার্জ দিতে হবে ৮০০ থেকে ২০০০ টাকা। 

শুটিং চলার সময় খালি জায়গা, ছাদ ও সুইমিং পুলের চার্জ ছিল ২০০০ থেকে ৩৩০০ টাকা। এখন শুটিং চলার সময় প্রতি শিফটে ভাড়া দিতে হবে ২০০০ থেকে ৩০০০ টাকা। এ খাতে ৩০০ টাকা কমানো হয়েছে।

অন্যদিকে সেট নির্মাণের সময়ে ফ্লোরের ভাড়া ছিল ২৫৫০ থেকে ৫১০০ টাকা পর্যন্ত এবং শুটিং চলার সময় ফ্লোর ভাড়া ছিল ৬৫০০ থেকে ১৮৫৪০ টাকা পর্যন্ত। এখন ফ্লোরের ভাড়া হবে ২৪০০ থেকে ৪৮০০ টাকা। তবে শুটিং চলার সময় ফ্লোর ভাড়া যা ছিলো তা বহাল থাকবে।
 
আর নতুন সিদ্ধান্তে ক্যামেরার ভাড়া ছিল শিফট প্রতি ৬১২০ টাকা থেকে ৬৬৩০ টাকা। এখন বিএফডিসির ক্যামেরা পাওয়া যাবে ৬০০০ থেকে ৬৫০০ টাকায় প্রতি শিফটে। কমেছে ১২০ টাকা থেকে ১৩০ টাকা। 

প্রতি শিফট গণনা করা হয় ৮ ঘণ্টা হিসেবে। একদিনে দুই শিফটে বিএফডিসিতে শুটিং করা যায়। সকাল ৬টা থেকে শুরু হয় শিফট। ১৬ ঘণ্টায় সাধারণ নিয়মের দুই শিফট শেষ হয় রাত ১০টায়। রাত ১১টার পর শুটিং করলে তার জন্য চার্জ ছিল দ্বিগুণ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনএ