Alexa স্ত্রীর সন্তুষ্টিতে এক দিনে ৮ লাখ ডলারের গহনা কেনেন নাজিব!

ঢাকা, রোববার   ১৮ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৩ ১৪২৬,   ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

স্ত্রীর সন্তুষ্টিতে এক দিনে ৮ লাখ ডলারের গহনা কেনেন নাজিব!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৫৮ ১৬ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ১৯:০০ ১৬ জুলাই ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

স্ত্রীর বিলাসবহুল চাহিদা মেটাতে এক দিনে আট লাখ মার্কিন ডলারের গহনা কিনেছিলেন মালয়েশিয়ার প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। এজন্য ইতালির একটি অলংকারের দোকানে তার ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেছিলেন। কুয়ালালামপুর আদালতে সরকারি কৌঁসুলিরা এ তথ্য জানিয়েছেন।

আদালতে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ৮ আগস্ট ইতালিতে সুইস অলংকার বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ডি গ্রিসোগোনোতে নাজিব রাজাক ভিসা ও মাস্টারকার্ডের প্লাটিনাম ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন। সে সময় আট লাখ তিন হাজার মার্কিন ডলারের অলংকার তিনি কেনেন। 

এর কয়েক মাস পর হাওয়াইয়ের একটি বুটিকের দোকান থেকে একই ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে এক লাখ আট হাজার মার্কিন ডলারের পণ্য কেনা হয়। এছাড়া এক কার্ডেই এক লাখ ২৭ হাজার রিঙ্গিত (মালয়েশিয়ার মুদ্রা) খরচ করা হয় ব্যাংককের বিলাসবহুল শাংরি-লা হোটেলে। এই লেনদেনের সবকয়টির অর্থ পরিশোধ করা হয়েছিল নাজিবের অ্যামব্যাংকের হিসাব থেকে।

নাজিব রাজাক ২০১৮ সালে ক্ষমতা থেকে বিদায় নেন। এরপর থেকেই তার বিরুদ্ধে সরকারি তহবিলের অর্থ আত্মসাৎসহ একাধিক দুর্নীতির মামলা চলছে। ওই মামলাগুলোতে প্রমাণ হিসেবে এই ক্রেডিট কার্ডের বিলগুলো আদালতে উপস্থাপন করা হয়।

মালয়েশিয়ার অর্থনীতির উন্নয়নের জন্য ২০০৯ সালে ওয়ানএমডিবি তহবিল গঠন করা হয়েছিল। নাজিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ওই তহবিলের ৪০০ কোটি মার্কিন ডলার নাজিবের জ্ঞাতসারে দুর্নীতির মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী খরচ করা হয়েছে। এর মধ্যে চলচ্চিত্রে বিনিয়োগ, প্রমোদতরী ক্রয়, আবাসন খাতে ব্যয় এবং তারকাদের নিয়ে বিনোদন করা হয়। 

অভিযোগ রয়েছে, তহবিল থেকে ৬০ কোটি ৮১ লাখ মার্কিন ডলার গিয়েছে নাজিবের ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাবে। এই অর্থ ব্যয় করা হয়েছে নাজিব ও তার রোজমাহ মানসুরের বিলাসবহুল চাহিদা মেটাতে।

প্রসঙ্গত, গেল বছর ক্ষমতা থেকে বিদায়ের পর নাজিবের বাড়িতে অভিযান চালায় মালয়েশিয়ার পুলিশ। ওই সময় তার বাড়ি থেকে ২৭ কোটি ৩০ লাখ ডলারের বিলাসবহুল পণ্য উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে রয়েছে এক ৪০০ গহণা, ৫৬৭টি হাতব্যাগ, ৪২৩টি ঘড়ি, দুই হাজার ২০০ আংটি, এক হাজার ৬০০ ব্রোচ এবং ১৪টি টায়রা।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর
 

Best Electronics
Best Electronics